মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৭ আগস্ট ২০১৭, ২ ভাদ্র ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

তৈরি পোশাকের উৎসে কর অর্ধেকে নামতে পারে

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রস্তাবিত বাজেটে বিভিন্ন খাতে শুল্ক-করে বড় পরিবর্তন না এলেও কমতে পারে তৈরি পোশাক শিল্পের জন্য উৎসে করের হার। এই করের হার অর্ধেকে নামতে পারে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের ঘোষিত বাজেটে তৈরি পোশাকসহ রফতানি খাতে উৎসে কর শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ থেকে ১৫০ শতাংশ বাড়িয়ে এক টাকা ৫০ পয়সা ধার্য করার প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী। বাজেট ঘোষণার পর পরই এ বিষয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখায় তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ।

এদিকে পোশাক রফতানিতে বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে যেতে ভারতের বড় পরিকল্পনার খবর, অন্যদিকে গণভোটে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বের হয়ে আসার রায় দেশের তৈরি পোশাকের জন্য নতুন চ্যালেঞ্জ হিসেবে সামনে উঠে আসে।

ব্যবসায়ীদের দাবি এবং তৈরি পোশাক রফতানিতে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার তাগিদ থেকে শেষ পর্যন্ত প্রস্তাবিত উৎসে করের হার কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়। সংশোধনী প্রস্তাবগুলো অর্থবিলের মাধ্যমে জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করা হবে। আগামী বুধবার অর্থবিল সংসদে পাস হবে। পরদিন পাস হবে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট।

কালীগঞ্জে কর্মসংস্থান ব্যাংকের ২১৩তম শাখার শুভ উদ্বোধন

কর্মসংস্থান ব্যাংকের ২১৩তম শাখা, জেলার কালীগঞ্জ উপজেলায় রবিবার হতে যাত্রা শুরু করেছে। নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে রবিবার ইফতার ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে কর্মসংস্থান ব্যাংকের আঞ্চলিক কার্যালয়, কুড়িগ্রামের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মুহঃ আকতার হোসেন প্রধান ব্যাংকের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এই সময় উপস্থিত ছিলেন কালীগঞ্জ উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা মোঃ নুরুল ইসলাম ও কালীগঞ্জ কর্মসংস্থান ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক মোঃ আবুল হাসনাত শাহ। কর্মসংস্থান ব্যাংকের কার্যক্রম চালুর মাধ্যমে কালীগঞ্জ উপজেলার বেকার যুবক ও যুবমহিলাদের আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ঋণ সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে এলাকার অর্থনীতি সমৃদ্ধ ঘটবে। -নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট

ঈদের ছুটিতে ব্যাংক খোলা রাখার দাবি ব্যবসায়ীদের

এবার ঈদে দীর্ঘ ৯ দিন ছুটি পাচ্ছেন সরকারী চাকুরেরা। এ সময় ব্যাংকের লেনদেন আংশিক চালু রাখার দাবি জানিয়েছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই)। সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দিয়েছে সংগঠনটি। আবদুল মাতলুব আহমাদ বলেন, ঈদের দীর্ঘ ছুটি চাকরিজীবীদের জন্য ভাল। তবে এতে ব্যবসায়ীরা ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। কেননা, ব্যাংক বন্ধ থাকলে নগদ টাকা জমা রাখা যাবে না। ঈদের আগে ব্যবসায়ীরা যে বেচাবিক্রি করবে সেই টাকা নিয়ে তারা সমস্যায় পড়বেন। চুরি-ডাকাতির ভয় রয়েছে। ব্যাংকের পাশাপাশি সেবা খাতকেও সচল রাখার দাবি জানিয়েছেন তিনি। ব্যাংক খোলা রাখার প্রসঙ্গে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ঈদের আগে আগামী ৪ জুলাই পর্যন্ত লেনদেন চালু রাখতে হবে। এছাড়া ঈদের দুদিন পর অর্থাৎ ৯ জুলাই থেকে আবার লেনদেন চালুর দাবি জানান তিনি। -অর্থনৈতিক রিপার্টার

প্রকাশিত : ২৮ জুন ২০১৬

২৮/০৬/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: