মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মুরলি, ওয়ার্ন, সাকলায়েনে দৃষ্টি বিসিবির

প্রকাশিত : ৯ মে ২০১৬
মুরলি, ওয়ার্ন, সাকলায়েনে দৃষ্টি বিসিবির

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সহকারী কোচ শ্রীলঙ্কান রুয়ান কালপাগে। তিনি দলের স্পিন বিভাগটাও সামলান। তবে এ মুহূর্তে বাংলাদেশ দলের পেসাররা যেভাবে ভূমিকা রাখছেন, স্পিনাররা সেইরকম রাখতে পারছেন না। অথচ বাংলাদেশ দলের মূল শক্তিই ‘স্পিন’। বিশেষ করে উপমহাদেশে স্পিনারদের দাপটের তুলনাই হয় না। কিন্তু ইদানীং সেই দাপট যেন দিন দিন কমে যাচ্ছে। আর তাই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) স্পিন কোচ বা পরামর্শক নিয়োগ দিতে চাচ্ছে। তা না হলেও যেন এমন কেউ তারকা সাবেক স্পিনার আসেন, যেন সিরিজের আগে স্পিনটা ভালভাবে দলের স্পিনারদের শিক্ষা দিতে পারেন। সেই চিন্তা থেকে শ্রীলঙ্কান মুত্তিয়া মুরলিধরন, অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়ার্ন অথবা পাকিস্তানের সাকলায়েন মুস্তাকের দিকে নজর দিচ্ছে বিসিবি।

সাবেক অধিনায়ক, বিসিবির পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানই এমনটি জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘বাংলাদেশ জাতীয় দলের স্পিন আক্রমণকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। এর জন্য সাকলাইন মুস্তাক, মুত্তিয়া মুললিধরন ও শেন ওয়ার্নকে বিভিন্ন মেয়াদে নিয়োগ দেয়ার কথা ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। তাদের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি।’

আলোচনাটা কি রকম হয়েছে? জানা গেল, তিনজনের সঙ্গেই আলোচনা হচ্ছে। কেউই স্থায়ীভাবে বাংলাদেশের স্পিন কোচ হচ্ছেন না। তবে বিভিন্ন মেয়াদে তিনজনই বাংলাদেশ স্পিনারদের কোচিং করাতে পারেন। যেমন? সামনে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ রয়েছে। এর আগে যদি সাকলায়েন মুস্তাক কোচিং করাতে আসেন, তাহলে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অক্টোবরে সিরিজে খেলতে নামার আগে আরেকজন আসবেন। তিনি শেন ওয়ার্নও হতে পারেন। আবার হতে পারেন মুরলিধরনও। আসলে সিরিজ বাই সিরিজই আলোচনা হচ্ছে। এমনও হতে পারে, ৯০ দিনের চুক্তি হতে পারে। এ সময়ের মধ্যে স্পিন প্রশিক্ষণ দিতে থাকবেন স্পিনারদের। এখন দেখা যাক, কে কোন সময় কোচিং করান। তবে বিসিবি যথেষ্ট চেষ্টা চালাচ্ছে এ তিনজনকেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে জড়াতে।

তিনজনই যার যার দেশে কিংবদন্তি স্পিনার। মুরলিধরন তো এখনও ক্রিকেটের তিন ফরমেট মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি ৪৯৫ ম্যাচে ১৩৪৭ উইকেট শিকারী বোলার হয়ে আছেন। মুরলিধরনের পরেই আছেন শেন ওয়ার্ন। তিনি তিন ফরমেট মিলিয়ে ৩৩৯ ম্যাচ খেলে ১০০১ উইকেট নিয়েছেন। সাকলায়েন সেই তুলনায় অনেক কম উইকেট শিকার করেছেন। ২১৮ ম্যাচ খেলে ৪৯৬ উইকেট নিয়েছেন। তিনি অবশ্য টি২০ ম্যাচ খেলেননি। তবে ‘দুসরা’র সব রকমের জাদু সাকলায়েনই জানেন।

এর আগেও সাকলায়েন বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের স্পিন শিক্ষা দিয়েছেন। ২০১৪ সালে যে বাংলাদেশে হলো টি২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। সেই বিশ্বকাপের আগে সাকলায়েন বাংলাদেশ দলের স্পিনারদের স্পিনটা কিভাবে আরও ভাল করা যায়, সেই শিক্ষা দিয়েছেন। এরপরও আরেকবার খ-কালীন দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সঙ্গে যুক্ত হন সাকলায়েন। এবার শুধু সাকলায়েনেই নয়, মুরলিধরন ও ওয়ার্নের দিকেও দৃষ্টি দিয়েছে বিসিবি।

প্রকাশিত : ৯ মে ২০১৬

০৯/০৫/২০১৬ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: