২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

দুই হাতের বোলার’ আগেও পেয়েছে শ্রীলঙ্কা


দুই হাতের বোলার’ আগেও পেয়েছে শ্রীলঙ্কা

অনলাইন ডেস্ক ॥ বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত যুব বিশ্বকাপে দুই হাতে বল করে হৈ-চৈ ফেলে দিয়েছেন লঙ্কান ক্রিকেটার কামিন্ডু মেন্ডিস। কামিন্ডু কিন্তু প্রথম বোলার নয়, যিনি এই কাণ্ড করলেন। দুই হাতে শ্রীলঙ্কার হয়ে প্রথম বল করা বোলার হাসান প্রসন্ন তিলকরত্ন নামের এক ক্রিকেটার। শ্রীলঙ্কা কালে কালে ‘বিরল বোলার’ জন্ম দিয়ে আসছে। এ তালিকায় লাসিথ মালিঙ্গাসহ সর্বশেষ সংযোজন দেশটির অনূর্ধ্ব-১৯ দলের স্পিনার এই কামিন্ডু মেন্ডিস।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে ২৭তম ওভারে দুই হাত দিয়ে বল করেন কামিন্ডু। ওভার শুরু করেছিলেন বাঁহাতি স্পিনার হিসাবে। ওভারের তৃতীয় বলে উমায়ের মাসুদ রানআউট হয়ে গেলে ক্রিজে আসেন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সালমান ফাইয়াজ। আম্পায়ারের অনুমতি নিয়ে চতুর্থ বলটি অফব্রেক করেন ১৭ বছর বয়সী এই স্পিনার!

অন্যদিকে ১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপে কেনিয়ার বিপক্ষে লিগ ম্যাচে দুই হাতে স্পিন বল করে শ্রীলঙ্কাকে জয় এনে দিয়েছিলেন হাসান প্রসন্ন তিলকরত্ন। আগে ব্যাট করে লঙ্কানরা সেদিন ৩৯৮ রান সংগ্রহ করে। শেষ ওভারে বল করতে আসেন হাসান। আজকের কামিন্ডু মেন্ডিসের সেদিন অবশ্য জন্ম হয়নি। তবে হাসানের ছেলের সঙ্গে খেলেছেন তিনি।

হাসান প্রসন্ন ১৯৮৬ সালে টেস্ট খেলা ছেড়ে দিলেও শ্রীলঙ্কার হয়ে ওয়ানডে খেলেন ২০০৩ সাল পর্যন্ত। মূলত তিনি ব্যাটসম্যান ছিলেন। তবে পার্টটাইম বোলার হিসেবে অধিনায়করা তাকে অল্প-স্বল্প ব্যবহারও করতেন। প্রয়োজনে উইকেট কিপিংও করতে পারতেন।

সব্যসাচী এই বোলার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে সব মিলিয়ে হাত ঘুরিয়েছেন ১৫টি ম্যাচে। ৩০ ওভার। উইকেট আছে ছয়টি।

কামিন্ডু আর হাসানের ভেতর অনেকটা মিল থাকলেও কামিন্ডুর দ্বারা শ্রীলঙ্কা বেশি উপকৃত হতে পারে; যদি তাকে ঠিক মতো পরিচর্যা করা হয়। কেননা কামিন্ডু নিয়মিত বোলার। ব্যাটও করতে পারেন দুই হাতে!

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: