২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নওগাঁয় গৃহকর্মীকে ধর্ষণ ॥ ধর্ষিতাকে নিয়ে উধাও


নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ, ৪ মে ॥ স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে বাড়ির কাজের মেয়েকে (১৩) ধর্ষণ করে রক্তাক্ত জখম করেছে জেলার রানীনগর উপজেলার আতাইকুলা গ্রামের বয়লার-চাতাল ব্যবসায়ী সেলিম উদ্দিন। ঘটনার পর শুক্রবার ধর্ষকের বড় ভাই ভাদুর স্ত্রী ভিকটিমকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নেয়ার কথা বলে তাকে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। কিন্তু সোমবার বিকেল পর্যন্ত ভিকটিমের কোন সন্ধান মেলেনি। এমনকি নওগাঁ সদর হাসপাতালেও তাকে ভর্তি করানো বা চিকিৎসা করানো হয়নি বলে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ মাহফুজুর রহমান জানিয়েছেন। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক সেলিম আতাইকুলার বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে সটকে পড়েছে। তার সঙ্গে সহযোগী চাতাল মিলের ড্রাইভার আঙ্গুরও পালিয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। ঘটনাটি এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে সেলিম তার বাড়ির কাজের মেয়েকে ধর্ষণ করে রক্তাক্ত জখম করে। ঘটনার পর সে এবং তার মিলের ড্রাইভার আঙ্গুর বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মরিয়া হয়ে ওঠে। কিন্তু ভিকটিমের অবস্থার অবনতি ঘটলে শনিবার স্থানীয় পল্লী চিকিৎসককে ডেকে নিয়ে গেলে সে চিকিৎসা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। এরপরই ধর্ষক সেলিমের ভাবি ভিকটিমকে নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। এর কিছুক্ষণ পর ধর্ষক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছে, এমন ভান করে ড্রাইভার আঙ্গুর তাকে নিয়ে বাড়িতে তালা ঝুলিয়ে সটকে পড়ে।

ভাঙ্গায় বিক্ষোভের মুখে প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত ॥ পুলিশে সোপর্দ

সংবাদদাতা, ভাঙ্গা, ফরিদপুর, ৪ মে ॥ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার কালামৃধা গোবিন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাস বর্জন, মানববন্ধন ও অবরোধের মুখে সোমবার দুপুরে প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করেছে বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটি। লম্পট শিক্ষককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে ভাঙ্গা থানার পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, কালামৃধা গোবিন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলমগীর হোসেন ৩ বছর পূর্বে বিদ্যালয়টিতে যোগদান করে। যোগদানের পর থেকেই তিনি বিভিন্ন দুর্নীতি ও অনৈতিক কর্মকা- শুরু করেন। এ নিয়ে অনেকবার তার বিরুদ্ধে সালিশ হয়েছে। মাস্টার হওয়ায় প্রতিবারই তিনি মাফ পেয়ে গেছেন।

এ সময় বিদ্যালয়ের সভাপতি এক জরুরী সভা ডেকে প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করেন। ওসি নাজমুল ইসলাম বলেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ লম্পট মাস্টারকে বরখাস্ত করেছে। পর্নগ্রাফি আইনে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।