ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০

মডরিচের দর্শনীয় গোলে রিয়ালের জয়

​​​​​​​স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:৪৩, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মডরিচের দর্শনীয় গোলে রিয়ালের জয়

.

 ক্রোয়েশিয়ার তারকা মিডফিল্ডার লুকা মডরিচের চোখ ধাঁধানো গোলে ভর করে স্প্যানিশ লা লিগায় মূল্যবান জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। রবিবার রাতে ঘারের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে অতিথি সেভিয়াকে - গোলে হারিয়েছে গ্যালাক্টিকোরা। ম্যাচের ৮১ মিনিটে দর্শনীয় গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেনসুপার সাবমডরিচ।

এই জয়ে লিগ শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে ২৬ ম্যাচে ২০ জয় ড্রয়ে রিয়ালের পয়েন্ট হয়েছে সর্বোচ্চ ৬৫। সমান ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরে আছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বার্সিলোনা। ২৫ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে জিরোনা। ২৬ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে চারে আছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আর ২৪ পয়েন্ট নিয়ে ১৫ নম্বরে অবস্থান করছে সেভিয়া। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে পুরো ম্যাচই ছিল দারুণ উপভোগ্য। কিন্তু গোলের দেখা মিলছিল না।

তবে বদলি নেমে ব্যবধান গড়ে দেন মডরিচ। ৩৮ বছর বয়সী তারকার দারুণ গোলে সেভিয়াকে হারিয়ে শিরোপা পুনরুদ্ধারে আরেকটি বড় বাধা পেরিয়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা। ঘরের মাঠে ম্যাচে আক্রমণে আধিপত্য ছিল রিয়ালের। ৬৪ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য স্বাগতিকরা শট নেয় ১৬টি, যার ৬টি ছিল লক্ষ্যে। সেভিয়ার শটের একটি লক্ষ্যে ছিল। গত রাউন্ডে রায়ো ভায়োকানোর সঙ্গে - ড্র করেছিল রিয়াল। ২০২১ সালে রিয়াল মাদ্রিদে ১৬ বছরের অধ্যায়ের ইতি টানার পর এই ম্যাচ দিয়ে প্রথমবার প্রাণের সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে খেলতে নামের স্প্যানিশ তারকা সার্জিও রামোস। তবে রিয়ালের জার্সিতে নয়, তিনি খেলেন সেভিয়ার হয়ে। ঘটনবাহুল ম্যাচের ৭৫ মিনিটে প্রথম পরিবর্তন করেন রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলোত্তি। নাচোর বদলি হিসেবে নামান মডরিচকে। ছয় মিনিট পরই দারুণ গোলে দলকে জয় পাইয়ে দেন অভিজ্ঞ ক্রোয়াট মিডফিল্ডার। ডি বক্সের বাইরে ফাঁকায় বল পেয়ে কিছুটা জায়গা বানিয়ে ডান পায়ে জোরালো শট নেন মডরিচ। বল ডান দিকের পোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে জড়ায়। এই গোলের পর প্রশংসায় ভেসে চলেছেন মডরিচ। অথচ কিছুদিন ধরে বেশ আড়ালেই ছিলেন তিনি! আলোচনা যা ছিল, তা মূলত তার অসন্তুষ্টির গুঞ্জন ঘিরে। সেরা একাদশে জায়গা বলতে গেলে একদমই পাচ্ছিলেন না। বদলি হিসেবেও খুব বেশি সময় মাঠে থাকার সুযোগ হচ্ছিল না। যথারীতি ম্যাচেও খেলার সুযোগ পান শেষের দিকে। ম্যাচে বল পায়ে রাখার লড়াইয়ে অনেক এগিয়ে থাকলেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না রিয়াল। ক্যারিয়ারে আরও অনেকবারের মতো এবারও দলকে উদ্ধার করেন মডরিচ। স্বাভাবিকভাবেই জয়ের কৃতিত্ব পুরোপুরিই মডরিচকে দিয়েছেন রিয়াল কোচ আনচেলোত্তি। ম্যাচ শেষে রিয়াল কোচ বলেন, অসাধারণ গোল করেছে মডরিচ। যা আমাদের তিনটি মহামূল্যবান পয়েন্ট এনে দিয়েছে। সবাইকে সে দেখিয়ে দিয়েছে, তাকে একাদশের বাইরে বেঞ্চে বসিয়ে রাখা আমার জন্য কতটা কঠিন। এটা শুধু তার এই গোলের জন্যই নয়। যেভাবে সে অনুশীলন করে, সেটাও বড় কারণ। মডরিচ এখনো তরতাজা; বোঝাই যায় না বয়স হয়ে গেছে ৩৮ বছর। পুরো স্কোয়াডের জন্যই সে উজ্জ্বল এক উদাহরণ। তাকে বেঞ্চে বসিয়ে রাখা খুব কঠিন।

এমন তারকার সেরা একাদশে না থাকা প্রসঙ্গে আনচেলোত্তি বলেন, খেলার সুযোগ নিয়মিত না পেয়ে মডরিচ যদি কিছুটা হতাশ হয়েই থাকে সেটা খুব স্বাভাবিক। সবারই ধারণা সে ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে আছে। তবে আমার মনে হয়, সে নিজে এটার সঙ্গে একমত নয়। তাকে এখনো খুবই ভালো তরতাজা মনে হচ্ছে। পায়ের জোর এখনো আছে। তাকে দেখে বোঝা যায় না এতটা বয়স হয়ে গেছে।

×