ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

রাশফোর্ড ঝলক চলছেই কাতার বিশ্বকাপে

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২২:৫৩, ৩০ নভেম্বর ২০২২

রাশফোর্ড ঝলক চলছেই কাতার বিশ্বকাপে

ইংল্যান্ডের কৃতী ফরোয়ার্ড মার্কাস রাশফোর্ড

৫৬ বছর ধরে শিরোপা-খরায় ভুগছে ইংল্যান্ড। ১৯৬৬ সালের পর আর কখনোই বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট কাটতে পারেনি তারা। চার বছর আগে দারুণ ফেভারিট হিসেবে রাশিয়া বিশ্বকাপের মিশন শুরু করেছিল থ্রি-লায়ন্সরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেমিফাইনালেই জয়রথ থেমে যায় গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যদের। তথাপি সেবার সর্বোচ্চ গোলের পুরস্কার গোল্ডেন বুট জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন ইংল্যান্ডের তারকা স্ট্রাইকার হ্যারি কেন।

এবার কাতার বিশ্বকাপেও আলো ছড়াচ্ছেন আরেক ইংলিশ স্ট্রাইকার। গ্রুপ পর্বের প্রথম তিন ম্যাচেই তিন গোল করে নিজের জাত চেনালেন মার্কাস রাশফোর্ড। সেইসঙ্গে বুধবার পর্যন্ত এবারের আসরে যৌথভাবে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকার শীর্ষস্থানটাও নিজের করে নেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এই ইংলিশ স্ট্রাইকার।  
অথচ এক বছর আগে ইউরোতে ইতালির বিপক্ষে স্পট কিক মিস করে শিকার হয়েছিলে বর্ণ বৈষম্যের। বছর ঘুরতেই বিশ্বকাপের মতো বড় মঞ্চে আবির্ভাব হলেন নায়কের ভূমিকায়। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় আল রায়ানের আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে ‘লোকাল ডার্বি’ খেলতে নামে বৃহত্তর ব্রিটেনের দুই দেশ ইংল্যান্ড-ওয়েলস।

এই ম্যাচে রাশফোর্ডের জোড়া গোলের সৌজন্যেই ইংল্যান্ড ৩-০ ব্যবধানে পরাজিত করে ওয়েলসকে। ম্যাচে এদিন শুরু থেকেই আক্রমণের পর আক্রমণে ইংলিশরা বিপর্যস্ত করে দিয়েছিল ওয়েলসকে। কিন্তু গোলের দেখা পাচ্ছিল না তারা। অবশেষে রাশফোর্ডই প্রথম ইংলিশদের অপেক্ষার অবসান ঘটান। ৫০ মিনিটে অসাধারণ ফ্রিক কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। ডান পায়ের জোরালো শটে বাম কোনা দিয়ে ঢুকিয়ে দেন ওয়েলসের জালে।

হতভম্ব ওয়েলস গোলরক্ষকের তাকিয়ে থাকা ছাড়া অবশ্য আর কিছুই করার ছিল না।  
দ্বিতীয়ার্ধের ৬৮ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় আর দলের তৃতীয় গোল করেন রাশফোর্ড। সেইসঙ্গে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের গোলের সেঞ্চুরি পূর্ণ করার মাইলফলকও স্পর্শ করেন তিনি। ডান দিকে একাই ডি বক্সে ডুকে দুজনকে ফাঁকি দিয়ে নিখুঁত শটে ওয়েলসের জালে বল জড়ান ২৫ বছর বয়সী এই তারকা। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে অবশ্য রাশফোর্ডকে উঠিয়ে নেন গ্যারেথ সাউথগেট।

এরপর অবশ্য আর কোন গোলের দেখা পায়নি কেউ। তবে আসল কাজটা ইতোমধ্যেই করে যান রাশফোর্ড। যদিওবা ইংল্যান্ডের শেষ ষোলো প্রায় নিশ্চিতই ছিল। তবে রাশফোর্ডের দুই গোলে বড় জয় নিশ্চিত হলো তাদের। সেইসঙ্গে ২০০৬ বিশ্বকাপের পর এই প্রথম কোনো বিশ্বকাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিল থ্রি-লায়ন্সরা।
এবারের আসরে ‘বি’ গ্রুপের ৩ ম্যাচে ১০ গোল করেছে ইংল্যান্ড। তাদের হয়ে সর্বোচ্চ গোল রাশফোর্ডেরই। ইংলিশ স্ট্রাইকার ছাড়া কাতার বিশ্বকাপে তিনটি করে গোল করেছেন আর মাত্র তিনজন। ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপে, ইকুয়েডরের ইনার ভ্যালেন্সিয়া এবং হল্যান্ডের কোডি গাকপো। কাতার বিশ্বকাপে সবার আগে শেষ ষোলোর টিকিট নিশ্চিত করে ফ্রান্স। যার পেছনে নায়কের ভূমিকায় রয়েছেন এমবাপে।

রাশফোর্ডের মতো প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর এই তারকারও রয়েছে জোড়া গোল। ইংল্যান্ডের হয়ে এবারের বিশ্বকাপে জোড়া গোলের রেকর্ড গড়েছেন বুকায়ো সাকাও। ইরানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচেই দুই গোল করে নিজেকে দারুণভাবে মেলে ধরেছিলেন দেশটির তরুণ প্রতিভাবান এই স্ট্রাইকার।
এই আসরে জোড়া গোলের কীর্তি আছে রিচার্লিসনেরও। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়ার বিপক্ষে তার করা দুই গোলের সৌজন্যেই পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল। এভারটনের এই তারকা ফুটবলারের দ্বিতীয় গোলটি এবারের আসরে এখন পর্যন্ত সেরা। সেইসঙ্গে দারুণ আকর্ষণীয় গোলের তকমাও মাখানো। কাতার বিশ্বকাপের সেরা আকর্ষণ লিওনেল মেসির গোলসংখ্যাও দুটি।

বুধবার পোল্যান্ডের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে গোল পেলে সেই সংখ্যাটা অবশ্য এতক্ষণে বেড়ে গেছে। এছাড়াও দুটি করে গোলের দেখা পেয়েছেন পর্তুগালের ব্রুনো ফার্নান্দেজ। স্পেনের দুই তারকা ফেরান টোরেস এবং আলভারো মোরাতার গোলসংখ্যাও দুটি।

monarchmart
monarchmart