ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯

ঘটনা শাহজালালে ঘটেনি ॥ দাবি বিমানের

সাফজয়ী ফুটবলারদের টাকা ও জিনিসপত্র চুরি নিয়ে তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:৩৪, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

সাফজয়ী ফুটবলারদের টাকা ও জিনিসপত্র চুরি নিয়ে তোলপাড়

মাহফুজা আক্তার কিরণ। পাশে বাফুফের সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ

সাফজয়ী বাংলাদেশের নারী ফুটবলারদের লাগেজের তালা ভেঙ্গে টাকা ও জিনিসপত্র চুরির অভিযোগ নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এ ঘটনার পর চোর ধরতে মাঠে নেমেছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। এদিকে নারী দলের ফুটবলারদের লাগেজের তালা ভেঙ্গে চুরির ঘটনা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ঘটেনি বলে জানিয়েছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে বাফুফে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, সিভিল এভিয়েশনকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়েছি। এছাড়া মতিঝিল থানা ও এয়ারপোর্ট থানায় জিডি করেছেন তারা।
সূত্র জানায়, বুধবার দেশে ফেরা সাফজয়ী নারী ফুটবল দলের সদস্য কৃষ্ণা রানী সরকারের লাগেজের তালা ভেঙ্গে ৯০০ মার্কিন ডলার ও ৫০ হাজার টাকা শামসুন্নাহার সিনিয়রের লাগেজ কেটে নিয়েছে ৪০০ মার্কিন ডলার। এর পাশাপাশি কিছু মূল্যবান জিনিসপত্র খোয়া গেছে তাদের। এ ঘটনার পরই তদন্ত শুরু করেছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা।
এ ব্যাপারে র‌্যাবের লিগ্যাল এ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, নেপালে সাফ মিশন শেষ করে বুধবার দুপুরে দেশে ফেরে নারী ফুটবল দল। ফেরার পরপরই জয়ী দলের সদস্যের অর্থ চুরির ঘটনা দুঃখজনক। এ ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত। তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। এরই মধ্যে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছে।
র‌্যাবের মুখপাত্র জানান, ইতোমধ্যে বিমানবন্দর থেকে বাফুফে পর্যন্ত ও এর আশপাশের এলাকার একাধিক সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করা হচ্ছে। ডিএমপির উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম জনকণ্ঠকে জানান, চুরির ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন লিখিত কিংবা মৌখিক অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে আমরা বিমানবন্দর এলাকার একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করছি। গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোঃ আকরামুল হোসেন জানান, চোর ধরতে ডিবির একাধিক ইউনিট কাজ শুরু করেছে।
অক্ষত লাগেজই বুঝে নিয়েছে বাফুফে ॥ বিমানবন্দরে সাফ জয়ী নারী দলের ফুটবলারদের লাগেজের তালা ভেঙ্গে টাকা ও জিনিসপত্র চুরির অভিযোগের সত্যতা মেলেনি বলে জানিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ওই অভিযোগ নিয়ে তোলপাড় চলার পর দুপুরে আলাদা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের বক্তব্য জানানো হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম জানান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) প্রটোকল প্রতিনিধি ও দুজন টিম অফিসিয়াল লাগেজ ট্যাগ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সম্পূর্ণ অক্ষত এবং তালাবদ্ধ অবস্থায় বুঝে নিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করেছেন। পাঁচটি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে লাগেজ ভাঙ্গা, চুরি এসবের কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বাফুফে কর্মকর্তা অক্ষত অবস্থায় লাগেজ বুঝে নিয়েছেন।
তিনি জানান, বিমানের ল্যান্ডিং এরিয়া, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ায় ট্রলির আগমন, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ার প্রথম লাগেজ ড্রপ, বেল্ট নম্বর ৮-এ লাগেজ আসা, ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ায় সর্বশেষ লাগেজ আসা এই পাঁচটি এরিয়ার সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করা হয়েছে বলে জানান গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ-২০২২ এর বিজয়ী বাংলাদেশ ফুটবল দল গত ২১ সেপ্টেম্বর দুপুর পৌনে ২টা নাগাদ বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-৩৭২ ফ্লাইটে কাঠমান্ডু থেকে ঢাকায় অবতরণ করে। পরে বাফুফের প্রটোকল প্রতিনিধি ইমরান, মিডিয়া এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফুটবল দলের ২ জন নারী সদস্যের ব্যাগ (হোল্ড ব্যাগেজ) থেকে অর্থ (ডলার এবং টাকা) চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত হয়েছে।
আর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) প্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট খেলোয়াড়গণ লাগেজগুলো সঠিক অবস্থায় বুঝে নেন। লাগেজগুলো বুঝে নেয়ার সময় লাগেজ থেকে কোন কিছু খোয়া যাওয়ার বিষয়ে কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। বাফুফের প্রতিনিধিগণ লাগেজগুলো দুটি কভার্ড ভ্যানে উত্তোলনপূর্বক এয়ারপোর্ট এরিয়া ত্যাগ করেন।

এয়ারপোর্টে বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে এয়ারপোর্টে বর্ণিত অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি। উল্লিখিত বিষয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার না করার জন্য সকলকে অনুরোধ করা হল।  বিমানের উপ-ব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) দুলাল চন্দ্র দেব জানান, বুধবার কাঠমান্ডু-ঢাকা রুটের বিজি-৩৭২ ফ্লাইটটি দুপুর ১টা ৪২ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। ফ্লাইটটির ব্যাগেজসমূহ ৮ নম্বর ব্যাগেজ বেল্টের মাধ্যমে ২টা ১০ মিনিটে অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে সার্বক্ষণিক তদারকির মাধ্যমে ডেলিভারি দেয়া হয়।

তিনি জানান, সে সময় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) প্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট খেলোয়াড়রা লাগেজগুলো সঠিক অবস্থায় বুঝে নেন। বুঝে নেয়ার সময় লাগেজ থেকে কোন কিছু খোয়া যাওয়ার বিষয়ে অভিযোগ পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার এয়ারপোর্টের বিভিন্ন এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ পরীক্ষা করে টাকা চুরির অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি।
সাফজয়ী নারীদের ডলার-টাকা চুরি প্রসঙ্গে যা বললেন বাফুফে ॥ শুধু মতিঝিল থানায়ই নয়, বিমানবন্দর থানায়ও সাধারণ ডায়েরি করার প্রক্রিয়া চলছে বলে বাফুফে ভবনে বৃহস্পতিবার দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন সেক্রেটারি আবু নাইম সোহাগ। তিনি জানিয়েছেন, আমরা ইতোমধ্যে মতিঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছি এবং বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরি করার প্রক্রিয়া চলছে। সেখানে বাফুফে লিগ্যাল ডিপার্টমেন্টের লোকেরা কাজ করছে।

ব্রিফিংয়ে উপস্থিত নারী ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেন, ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরে ডলার চুরি ঘটনার যদি কোন প্রমাণ না পাওয়া যায়, তাহলে আমরা নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সঙ্গে যোগাযোগ করব। ঘটনাটা সেখানে ঘটেছে কি না তা খতিয়ে দেখার জন্য তাদের অনুরোধ জানাব। বাংলাদেশ দল কাঠমান্ডু থেকে রওনা হয়ে এসেছে বাংলাদেশে। কৃষ্ণা ও শামসুন্নাহারের অর্থ বাংলাদেশ বিমানবন্দরেই হারিয়েছে বিষয়টি নিশ্চিত নয় বাফুফে, কাঠমান্ডু থেকে আমরা রওনা হয়েছি। কাঠমান্ডু-ঢাকা বিমানবন্দরসহ অনেক জায়গায় মুভ করা হয়েছে।

এমনকি বাফুফে ভবনের ফুটেজও দেখা হবে প্রয়োজনে। সেই তদন্তে যদি চুরি শনাক্ত না হয় সেক্ষেত্রে নারীদের এই অর্থ ক্ষতি কি হবে এই সম্পর্কে নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান বলেন, যদি দুই ফুটবলারের খোয়া যাওয়া ডলার উদ্ধার করা না যায়, তাহলে আমরা সমপরিমাণ অর্থ বাফুফের ফান্ড থেকে তাদের দিয়ে দেব।
সাফজয়ী কৃষ্ণাদের ব্যাগ থেকে প্রায় দুই লাখ টাকা চুরি ॥ সাফ চ্যাম্পিয়ন নারী ফুটবল দলের ২ খেলোয়াড়ের ব্যাগ থেকে ডলার চুরির অভিযোগ উঠেছে। বিমানবন্দর থেকে বাফুফে ভবনে এসে ব্যাগ খুলে তারা ডলার পাননি। বাংলাদেশী মুদ্রায় যা প্রায় দুই লাখ টাকার সমান। বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন জানান, কৃষ্ণা ও শামসুন্নাহার তাদের ডলার চুরি হয়েছে বলে জানিয়েছে। কৃষ্ণার ৯০০ ডলার ও বাংলাদেশী ৫০ হাজার টাকা এবং শামসুন্নাহারের ৪০০ ডলার পাওয়া যায়নি
তদন্ত করছে এপিবিএন ॥ সাফজয়ী দুই ফুটবলারের লাগেজ থেকে ডলার, কাপড়চোপড় ও অন্য আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র খোয়া যাওয়ার ঘটনায় তদন্ত করছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। বিমানবন্দরে দায়িত্বরত এপিবিএন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক জানান, আমরা সংবাদ পাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি।
বুধবার দুপুরে বিমানবন্দরে সাফজয়ী ফুটবলাররা নামার পর চরম বিশৃঙ্খল অবস্থার সৃষ্টি হয়। সকাল থেকেই বিমানবন্দরের বাইরে অপেক্ষায় ছিল অসংখ্য মানুষ। বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে কয়েকশ’ সাংবাদিকের ভিড় ছিল। ইমিগ্রেশন শেষ করে নারী ফুটবলারদের যে পথে আসার কথা ছিল, ওই পথে ছিল অসংখ্য সাংবাদিকের ভিড়। যে কারণে সংবাদ সম্মেলনও বাতিল করা হয়।

মেয়েরা উঠে পড়েন ছাদখোলা বাসে বিমানবন্দরের লাগেজ বেল্টের এক পাশে পড়ে ছিল সাবিনা, কৃষ্ণাদের লাগেজগুলো। সেখানে থাকা কয়েক কর্মকর্তা কাল বলছিলেন, এই লাগেজগুলো কাদের? কেউ নিচ্ছে না কেন? এরপর বাফুফের পক্ষ থেকে মেয়েদের লাগেজগুলো সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু বাফুফে ভবনে গিয়ে খেলোয়াড়দের কয়েকজন নিজেদের লাগেজের তালা ভাঙ্গা পান।
বুধবার রাতে বাফুফে ভবনে লাগেজ আসার পর চুরির ঘটনা দৃষ্টিগোচর হয়েছে ফুটবলারদের। কৃষ্ণা রানী সরকার ফাইনালে নেপালের বিপক্ষে জোড়া গোল করে বাংলাদেশকে চ্যাম্পিয়ন করতে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন। শামসুন্নাহার প্রতি ম্যাচেই একাদশে খেলেছেন।