ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

তামিম ফিরলেই খুশি এ অধিনায়ক

বিশ্বকাপে বেশি প্রত্যাশা করতে বারণ শান্তর

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৪০, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

বিশ্বকাপে বেশি প্রত্যাশা করতে বারণ শান্তর

নাজমুল হোসেন শান্ত

আর মাত্র দেড় মাস, এরপরই আরেকটি ক্রিকেট বিশ্বকাপ। জুনের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে যৌথভাবে মাঠে গড়াবে টি২০ বিশ্বকাপ। ‘ডি’ গ্রুপে দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্র সময় অনুসারে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৭ জুন (বাংলাদেশ সময় ৮ জুন সকাল) নিজেদের প্রথম ম্যাচে নামবে নাজমুল হোসেন শান্তর দল। এই বিশ্বকাপে দলকে নিয়ে খুব বেশি প্রত্যাশা না করার আহ্বান জানিয়েছেন অধিনায়ক শান্ত।

কারণ বিশ্বকাপ নিয়ে মাতামাতি ব্যক্তিগতভাবে পছন্দ করেন না তিনি। তবে অধিনায়ক নিশ্চয়তা দিয়েছেন প্রত্যেকটা ম্যাচ জেতার জন্যই খেলবে বাংলাদেশ এবং সেজন্য ১২০ ভাগ উজার করে দেবে। মঙ্গলবার একটি প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ার অনুষ্ঠানে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় বাঁহাতি অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবালের ফেরার প্রশ্নে তিনি জানান, যে কোনো ফরম্যাটে তাকে পেলেই খুশি হবেন শান্ত। একদিন আগে তামিমের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে অবশ্য পরিষ্কার করে কিছু বলেননি তিনি।
গত বছর ভারতের মাটিতে ওয়ানডে বিশ^কাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই আসরে দুর্দান্ত কিছু করার প্রত্যাশা ব্যক্ত করে বাংলাদেশ দল। দেশের ক্রিকেটপ্রেমী মানুষেরও বড় আকাক্সক্ষা ছিল বড় কিছুই করবে বাংলাদেশ। কিন্তু বাস্তবে সেটি হয়নি। বাজে পারফর্ম্যান্সে ও নানাবিধ বিতর্ক নিয়ে দেশে ফিরেছে দল। সেই বিশ্বকাপ ব্যর্থতা নিয়ে আলোচনার রেশ এখনো থামেনি। এর মধ্যেই টি২০ বিশ্বকাপের আলোচনা শুরু হয়েছে।

এবার অবশ্য দারুণ সতর্ক অধিনায়ক শান্ত। তিনি মঙ্গলবার এ নিয়ে বলেছেন, ‘প্রতি বছরই আমি দেখি, বিশ্বকাপের আগে এসব নিয়ে অনেক কথা হয়। প্রত্যাশা... এটা করব, সেটা করব। আমার একটা অনুরোধ থাকবে আপনাদের কাছে, প্রত্যাশাটা খুব একটা করার দরকার নেই। প্রত্যাশাটা সবার মনের ভেতরেই থাক। আপনারাও জানেন, বাংলাদেশ দল কী চায়। আমরা ক্রিকেটাররাও জানি, আমরা দলকে কত দূর নিয়ে যেতে চাই। সবাই চায় যে, আমরা অনেক বড় কিছু করি।

তবে এটা নিয়ে যখন অনেক বেশি মাতামাতি হয় তখন আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে ভালো লাগে না। আসলে দরকার নেই। ফল যখন হবে, তখন এমনিই বোঝা যাবে। আমি একটা জিনিস বলতে পারি, এই দলটা যে খেলবে, এরা প্রত্যেকটা ম্যাচে জেতার জন্য ১২০ শতাংশ দেবে। এই নিশ্চয়তা আমি দিতে পারি এবং প্রত্যেকটা ম্যাচ জেতার জন্যই খেলবে।’
বিশ^কাপের আগে দুটি সিরিজ দুর্বলতর জিম্বাবুয়ে ও যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে। উভয় সিরিজে খুব ভালো উইকেটে খেলতে চান শান্ত। এ বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমরা যদি সবশেষ ৬-৭টা সিরিজ দেখি, এই দলটা বেশিরভাগ সিরিজ জিতেছে। যেটা বললাম, দলটা ভালো অবস্থায় আছে। অবশ্যই ভালো উইকেটে খেলার ইচ্ছা আছে। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আমরা যে সিরিজটা খেললাম, এ ধরনের উইকেট প্রত্যাশা করছি।

আমার মনে হয়, প্রথমত আমরা দল হিসেবে খেলছি টি২০ ক্রিকেটে এবং আমাদের দলে কোনো বিশেষজ্ঞ কোনো ক্রিকেটার নেই। আমরা যখনই দল হিসেবে খেলি, সবার অবদান যখন থাকে, তখনই আমরা বেশি জিতি।’ চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) সোমবার সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক তামিমের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা করেছেন তিনি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের সঙ্গেও আলোচনা করেছেন তামিম।

এছাড়া ২২ এপ্রিল প্রধান কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহে ফেরার পরও আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। তাই বিষয়টি নিয়ে শান্ত বলেছেন, ‘সুন্দরভাবে বসে আড্ডা দেওয়া হয়েছে। ক্রিকেট নিয়ে কথা হয়েছে। কী অবস্থায় উনি আছেন। আমরা বা আমি অধিনায়ক হিসেবে কীভাবে চিন্তা করছি, এসব নিয়ে কথা হয়েছে। এই মুহূর্তে আপনাদের পরিষ্কারভাবে বলা মুশকিল। কারণ সময়ের ব্যাপার। উনিও একটু সময় চেয়েছেন।

একটু চিন্তা-ভাবনা করবেন হয়তো।’ টি২০ থেকে অবসর নিয়েছেন তামিম। ফিটনেসের কারণে টেস্টেও ফিরতে চান না। চলতি বছর ডিসেম্বরের আগে বাংলাদেশের কোন ওয়ানডে সিরিজ নেই। কিন্তু তামিম খেলার মতো অবস্থায় থাকলে যে কোনো সংস্করণেই তাকে চাইবেন শান্ত। তিনি বলেছেন, ‘আমিতো চাইব, উনি যদি ফিট থাকেন, টি২০ যদিও অবসর নিয়েছেন, যদি উনি ফিট থাকেন, যে কোনো ফরম্যাটে এলেই আমরা খুশি হব। আমার মনে হয় আমি না শুধু, দেশের প্রত্যেকটা মানুষ, ক্রিকেটারই খুশি হবে। তবে সবার আগে উনার চাইতে হবে। তারপর বাকি প্রক্রিয়া।’

×