ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে অপছন্দের ব্র্যান্ডের তালিকায় ফেসবুক-টুইটার-টিকটক

প্রকাশিত: ১২:৩২, ৬ জুন ২০২৩; আপডেট: ১২:৩২, ৬ জুন ২০২৩

যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে অপছন্দের ব্র্যান্ডের তালিকায় ফেসবুক-টুইটার-টিকটক

ফেসবুক-টুইটার-টিকটক

সম্প্রতিকালে '২০২৩ অ্যাক্সিওস হ্যারিস পোল' প্রকাশিত 'হানড্রেড রেপুটেশন র‌্যাংকিংয়ে' টুইটার, মেটা এবং টিকটক  এই ব্র্যান্ডগুলো যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে 'ঘৃণিত' ব্র্যান্ডের তালিকায়ও স্থান পেয়েছে।

ঘৃনিত ব্র্যান্ডের তালিকায় 'টিকটক' দেখে অনেকেই একটু অবাক হওয়ার কথা, কারণ যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক অত্যন্ত জনপ্রিয়। তবে এই জরিপের ফলাফলে স্পষ্ট হয়ে গেছে, কোটি কোটি মাসিক সক্রিয় গ্রাহক থাকলেই যে সেই ব্র্যান্ড বা প্রতিষ্ঠানকে সবাই ভালোবাসবে, এমনটা না-ও হতে পারে। সুনামের ভিন্ন ভিন্ন ৯টি ক্যাটাগরিতে যুক্তরাষ্ট্রের সেরা ১০০টি কোম্পানিকে বাঁছাই করতে অ্যাক্সিওস হ্যারিস জরিপে ১৬ হাজার মার্কিন নাগরিকের মতামত নেয়। 

'নৈতিকতা' ও 'সংস্কৃতি' ক্যাটাগরিতে সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে আছে মেটা ও টুইটার। উভয় প্রতিষ্ঠানই সম্প্রতিকালে শুধু ই-মেইলের মাধ্যমে হাজার হাজার কর্মী ছাঁটাই করে অনেকের সমালোচনার পাত্র হয়েছে।

এ ছাড়া গত বছরের অক্টোবরে ইলন মাস্ক টুইটার কেনার পর প্রতিষ্ঠানটিতে একের পর এক 'নাটক' লেগেই আছে। 

মার্কিন আইনপ্রণেতারা অনেক দিন ধরেই দেশটিতে টিকটক নিষিদ্ধের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। জরিপে টিকটকের খারাপ ফলাফলের পেছনে এর ভূমিকাও আছে। 

জরিপের ফলাফল অনুসারে, টুইটার, মেটা ও টিকটের বাইরেও যুক্তারষ্ট্রের আরও বড় বড় কোম্পানি দেশটির জনগণের ঘৃণিত ব্র্যান্ডের তালিকায় স্থান পেয়েছে।  শীর্ষ ৭টি ঘৃণিত ব্র্যান্ড যথাক্রমে-

দ্য ট্রাম্প অরগানাইজেশন
এফটিএক্স
ফক্স করপোরেশন
টুইটার
মেটা
স্পিরিট এয়ারলাইনস
টিকটক

সূত্র: সিএনবিসি

টিএস

×