ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

এপ্রিলে সংসদের পঞ্চাশ বছর পূর্তিতে বসবে বিশেষ অধিবেশন

সংসদ রিপোর্টার 

প্রকাশিত: ১৯:৩১, ৫ জানুয়ারি ২০২৩

এপ্রিলে সংসদের পঞ্চাশ বছর পূর্তিতে বসবে বিশেষ অধিবেশন

জাতীয় সংসদ ভবন। ফাইল ছবি। 

একাদশ জাতীয় সংসদের ২১তম অধিবেশন শুরু হয়েছে। কার্যোপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ অধিবেশনটি আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

এছাড়া আগামী ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে বিশেষ আলোচনা এবং এপ্রিলে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে সংসদের বিশেষ অধিবেশন অনুষ্ঠানেরও সিদ্ধান্ত এসেছে বৈঠক থেকে।

 স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকেল সাড়ে ৪টায় সংসদ অধিবেশন শুরু হয়। বছরের প্রথম অধিবেশন হওয়ায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংসদে ভাষণ দেন। 

শুরুর আগে স্পীকারের সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে সংসদের কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

বৈঠকে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ, আমির হোসেন আমু, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, ওবায়দুল কাদের, রাশেদ খান মেনন, হাসানুল হক ইনু, ডেপুটি স্পীাকর শামসুল হক টুকু, আনিসুল হক, গোলাম মোহাম্মদ কাদের, আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী অংশ নেন। সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আবদুস সালাম বৈঠকটি সঞ্চালনা করেন। 

পরে অধিবেশনের শুরুতে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী নতুন বছরের প্রথম অধিবেশনে সংসদ সদস্যদের স্বাগত জানান। এরপর স্পীকার ও ডেপুটি স্পীকারের অনুপস্থিতিতে সংসদ অধিবেশন পরিচালনার জন্য সভাপতিমন্ডলীর নাম ঘোষণা করেন। সভাপতিমন্ডলীর সদস্যরা হলেন- রমেশ চন্দ্র সেন, এস এম শাহজাহান কামাল, ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, কাজী ফিরোজ রশীদ ও সালমা ইসলাম। 

এরপর স্পীকার সংসদে শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন এবং সর্বসম্মতিক্রমে তা সংসদে গ্রহণ করা হয়। এ সময় শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নিরাবতা পালন শেষে মোনাজাত করা হয়। 

মোনাজাত পরিচালনা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। করোন সংক্রমণ কমলেও এবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংসদ অধিবেশন পরিচালিত হচ্ছে। আগেই সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট সকলের করোনা পরীক্ষা করা হয়। বছরের প্রথম অধিবেশনের শুরুর দিনে সংসদ ভবনে আগমনে বরাবরের মতো ফুল দিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। 

এদিকে  বিএনপির ৭ জন সংসদ সদস্যের পদত্যাগের বিষয়টি জাতীয় সংসদকে অবহিত করেছেন স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।  বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) ২১তম অধিবেশন শুরুর পর বিএনপির সংসদ সদস্যদের পদত্যাগ এবং তাদের পদত্যাপত্র গ্রহণ করা হয়েছে বলে জাতীয় সংসদকে অবহিত করেন স্পীকার।

বিএনপির সদস্যদের পদত্যাগ করা আসনগুলো হলো-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩, বগুড়া-৪, বগুড়া-৬, ঠাকুরগাঁও-৩ এবং ব্রা²ণবাড়িয়া-২। পদত্যাগী সংসদ সদস্যরা হলেন, আব্দুস সাত্তার, হারুন-অর রশীদ, জি এম সিরাজ, আমিনুল ইসলাম, জাহিদুর রহমান, মোশাররফ হোসেন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনের রুমিন ফারহানা।  

গত ১১ ডিসেম্বর স্পীকারের কাছে বিএনপির সংসদ সদস্যরা পদত্যাগপত্র জমা দেন। সাত সংসদ সদস্যের মধ্যে ৫ জন সশরীরে উপস্থিত হয়ে এবং বাকি ২ জন ই-মেইলের মাধ্যমে তাদের পদত্যাগ পত্র জমা দেন।  এর আগে রাজধানীর গোলাপবাগে ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তাঁরা।

সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহীত 

একজন সাবেক মন্ত্রী, দুইজন সাবেক প্রতিমন্ত্রী, একজন সাবেক বিরোধীদলীয় হুইপ ও চারজন সাবেক সংসদ সদস্যের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদে বৃহস্পতিবার সর্বসম্মতিক্রমে একটি শোক প্রস্তাব গৃহিত হয়েছে। স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী একাদশ জাতীয় সংসদের ২১তম ও ২০২৩ সালের প্রথম অধিবেশনের প্রথম কার্যদিবসে এ শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন। 

যাঁদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে তাঁরা হলেন- সাবেক জ্বালানি ও প্রাকৃতিক সম্পদ মন্ত্রী এ.বি.এম. গোলাম মোস্তফা, ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেক, সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শাহ মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, সাবেক পরিবেশ ও বন প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ড. আলাউদ্দীন আহাম্মদ, সাবেক বিরোধীদলীয় হুইপ ও  ঝিনাইদহ-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মো. মসিউর রহমান, বগুড়া-৯ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এস এম ফারুক, পটুয়াখালী-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মো. শাহজাহান খান। এছাড়া, জাতীয় সংসদ সচিবালয়ে কর্মরত অফিস সহায়ক কাম চাবি রক্ষক মো. মাহবুব আলম প্রধানের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে।

শোক প্রস্তাবে সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাসের মা গীতা রাণী দাস, সংসদ সদস্য নাদিরা ইয়াসমিন জলির পিতা মোশারেফ হোসেন (কালু), সংসদ সদস্য মো. শাহে আলমের মাতা মোসাম্মৎ রিজিয়া বেগম, চীনের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াং জেমিন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মা হীরাবেন মোদি, ব্রাজিলের কিংবদন্তী ফুটবলার এডসন আরান্তেস দো নাসিমেস্তো (পেলে), মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও রৌমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুল হক সরকার, পীরগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হাইফুজ্জামান ফুল, স্কয়ার গ্রæপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত স্যামসন এইচ চৌধুরীরর স্ত্রী অনিতা চৌধুরীর মৃত্যুতে সংসদ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছে।

এ ছাড়া দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় হতাহতদের স্মরণে জাতীয় সংসদ গভীর শোক প্রকাশ, সকল বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেছে। মৃত্যুবরণকারীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও তাদের আত্মার শান্তি কামনা করে সংসদে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান।
 

 

এমএম

সম্পর্কিত বিষয়:

×