ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ২৬ জুন ২০২৪, ১৩ আষাঢ় ১৪৩১

কবিতা

প্রকাশিত: ২২:৩৯, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

কবিতা

-

হয়তোবা ঠিক তা না

অদ্বৈত মারুত

কোথায় যেন দিচ্ছে কে আজ হানা
না, না, না, না, হয়তোবা ঠিক তা না।
অন্যরকম উন্মাদনা
অন্যরকম গানা,
কোকিল হয়ে মুগ্ধ করে
যাচ্ছে কাকের ছানা!
তার দেমাগে পুরো বাড়িই থানা
না, না, না, না, হয়তোবা ঠিক তা না।
অদ্ভুতুড়ে কাণ্ড ঘটে টানা
না, না, না, না, হয়তোবা ঠিক তা না।
যা ঘটে তা দেখারই ভুল
স্মৃতির ত্রুটি নানা,
সামনে পেয়ে বেঘোরে কেউ
খায় সকলের খানা।
আরও খাওয়ার কৌশলও ঠিক জানা
না, না, না, না, পেট ভরে খায়, তা না!
মানুষই তো! ভাসছে হয়ে পানা
না, না, না, না, হয়তোবা ঠিক তা না।
যতই উড়ুক খাবলে ধরুক
তার মোটে নেই ডানা।
এই কথা নয় মিথ্যে মোটে
সবারই তা জানা।
না, না, না, না, হয়তোবা ঠিক তা না!


** মাপজোক

তোফায়েল তফাজ্জল 

নিজের ভাগটা নেয় হয়ে লোভাতুর,
পাশেরটা কেড়ে নিতে করে কামড়াকামড়ি, 
এরাই হায়েনা বা কুকুর। 

লোকের সারাংশ পড়ে হারিয়েছি খেই, 
এরাও ওদের থেকে এক কাঠি হ্রস্বতর নয়, 
বরং ওপরে অনেকেই ।


** দিকচক্রবালে আলোর উন্মেষ

মোহাম্মদ ইকবাল

নিশুতির গাঢ় অন্ধকার,
নিস্তব্ধতার লোমহর্ষক রোমাঞ্চকর নান্দনিকতা,
ক্লান্তির অবসাদে নির্ঘুম চোখ,
অপেক্ষমাণ দগ্ধ তৃষিত হৃদয়,
কষ্টের অতলে নিভৃতে ডুবসাঁতার।
জানি এই বিশেষ সময়টাতে তুমি ভেসে উঠবেই কবিতার খাতায়।
চুল গ্রীবা কিংবা গ-ের সীমান্ত থেকে টুপটাপ গড়াবে সৌন্দর্যের কিরণ।
আগুন লেগে যাবে নিশুতির গাঢ় অন্ধকারে,
পুড়ে খাক হবে ক্লান্তির অবসাদে জড়িয়ে থাকা নির্ঘুম চোখ,
অপেক্ষমাণ দগ্ধ তৃষিত হৃদয়।
তোমার দ্যুতির স্পর্শেই দিকচক্রবালে আলোর উন্মেষ।
ব্যতিক্রমে কখনোই পৃথিবীতে ভোর হবে না...

×