ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

নরেন্দ্র মোদি প্রকৃত দেশপ্রেমিক: পুতিন

প্রকাশিত: ১৬:১৩, ২৯ অক্টোবর ২০২২

নরেন্দ্র মোদি প্রকৃত দেশপ্রেমিক: পুতিন

পুতিন ও মোদি

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন।  তিনি বলেছেন, নরেন্দ্র মোদি প্রকৃত দেশপ্রেমিক। তার পররাষ্ট্রনীতি স্বাধীন এবং মোদির নেতৃত্বে ভারতের ভূমিকা বিশ্ব রাজনীতিতে ক্রমশই বাড়ছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) মস্কোতে ভালদাই ডিসকাশন ক্লাবের বৈঠকে এসব কথা বলেন পুতিন।

যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমের বিভিন্ন দেশ যখন পুতিনের কঠোর নিন্দায় মুখর, তখন পুতিনের এ মোদি-বন্দনাকে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই জাতিসংঘে আনা রাশিয়া-বিরোধী সব প্রস্তাবেই ভোট দেওয়া থেকে বিরত থেকেছে মোদি সরকার। তবে ভারত সহিংসতার পথ থেকে সরে দ্রুত সংলাপ ও কূটনীতিতে ফেরার কথা বলেছে। সম্প্রতি এসসিও সম্মেলনের পার্শ্ব-বৈঠকে পুতিনকে মোদি বলেছেন, এসময় যুদ্ধ নয়, বরং জ্বালানি, খাদ্য এবং সারের প্রয়োজন।

কূটনৈতিকরা বলছেন, কোনো রাষ্ট্রকে তার আগ্রাসনের জন্য নাম না নিয়ে সংলাপে ফেরার অনুরোধ করা এক বিষয়। সে দেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক নিন্দা প্রস্তাবে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়িয়ে ভোট দেওয়া অন্য বিষয়। ভারত ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ানোর কাজটি কখনোই করেনি। সে কারণেই হয়ত মোদির প্রশংসা করে তাকে কৃতজ্ঞতা জানালেন পুতিন। শুধু তাই নয়, পুতিন মনে করিয়ে দিয়েছেন, ভারতের কৃষির জন্য তিনি এ বছর আগের তুলনায় ৭.৬ গুণ সার বেশি সরবরাহ করেছেন।

মস্কোয় একটি আলোচনাসভায় ভারত-রাশিয়া প্রসঙ্গে পুতিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী মোদি মহান দেশপ্রেমিক। নরেন্দ্র মোদি বিশ্বের সেই নেতাদের মধ্যে একজন, যিনি তার নিজের দেশ এবং জনগণের স্বার্থে স্বাধীন পররাষ্ট্রনীতি অনুসরণ করতে পেরেছেন। আমি নিশ্চিত, ভারতের ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জ্বল।.... এই পথে তাকে থামানোর চেষ্টা হয়েছে। তবে তিনি তার লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে চলেছেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের কোনো বকেয়া সমস্যা নেই। আমরা সবসময় পরস্পরকে সমর্থন করেছি। আমি আশাবাদী যে ভবিষ্যতেও তা হবে।

দু’দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে বলতে গিয়ে পুতিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী মোদি আমাকে সারের সরবরাহ বাড়াতে বলেছেন। ভারতীয় কৃষির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেটা। এই আবহে আমরা সার সরবরাহ ৭.৬ গুণ বৃদ্ধি করেছি।

তিনি বলেন, ভারত যেভাবে ব্রিটিশ কলোনি থেকে একটি স্বাধীন দেশ হয়ে উঠেছে, তা সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে এবং একে সম্মান করা উচিত। বিগত কয়েক বছরে মোদির নেতৃত্বে ভারত অনেকটা এগিয়ে গেছে। তার মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্প গুরুত্বপূর্ণ।

টিএস

সম্পর্কিত বিষয়:

×