ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

যে কারণে মক্কা-মদিনায় জুমার খুতবা সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশ

প্রকাশিত: ১৫:৫২, ২৩ জুন ২০২৪

যে কারণে মক্কা-মদিনায় জুমার খুতবা সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশ

মূলত মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে প্রচণ্ড গরমের মধ্যে মুসল্লিদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে সৌদি আরবে পবিত্র দুই মসজিদে জুমার খুতবা সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চলতি গ্রীষ্মের শেষ পর্যন্ত এই নির্দেশনা মেনে চলতে বলা হয়েছে।

এছাড়া এই নির্দেশনায় শুক্রবারের জুমার নামাজের প্রথম ও দ্বিতীয় আযানের মধ্যবর্তী সময়ও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। শনিবার (২২ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি আরবে ইসলামের দুটি পবিত্রতম মসজিদে জুমার নামাজের আগে নির্ধারিত খুতবা চলমান গ্রীষ্ম মৌসুমের শেষ পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত করে কয়েক মিনিটের মধ্যে শেষ করতে হবে। মূলত মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে প্রচণ্ড গরমের মধ্যে মুসল্লিদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাজকীয় নির্দেশের অধীনে ইসলামের পবিত্র দুই মসজিদে জুমার খুতবা এবং নামাজের সময়কাল ১৫ মিনিটে নামিয়ে আনা হবে বলে সৌদি আরবের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছেন। এই নির্দেশনা পালন শুক্রবার থেকেই শুরু হয়েছে এবং গ্রীষ্মের শেষ অবধি এটি অব্যাহত থাকবে।

দুই পবিত্র মসজিদের ধর্মীয় বিষয়ক প্রেসিডেন্সির প্রধান আবদুল রহমান আল সুদাইস বলেছেন, এই পদক্ষেপটি মুসল্লিদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা রক্ষায় সৌদি নেতাদের আগ্রহকেই তুলে ধরছে।

এছাড়া এই নির্দেশনাটি জুমার নামাজের জন্য প্রথম আযানকেও বিলম্বিত করবে। মূলত শুক্রবার দুপুরের এই সাপ্তাহিক জামাতের নামাজের জন্য প্রথম আযান এবং দ্বিতীয় আযানের মধ্যে সময়কাল ১০ মিনিটে কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। আগে জুমার খুতবা সাধারণত ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট স্থায়ী হতো।

এর আগে গত সপ্তাহে সারা বিশ্ব থেকে আসা ১৬ লাখ মুসল্লিসহ প্রায় ১৮ লাখ মুসলমান বার্ষিক হজযাত্রা সম্পন্ন করেন। এই বছর মক্কায় ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার সাথে প্রচণ্ড গরম ছিল এবং এর মধ্যেই খুতবা সংক্ষিপ্ত করার এই নির্দেশনাটি দেওয়া হলো।

অবশ্য হজের আগেই ইসলামের পবিত্র দুই মসজিদের ইমাম ও খতিবদের এ বছর প্রচণ্ড গরমে হজযাত্রীদের পরিস্থিতি বিবেচনায় হজের মৌসুমে জুমার খুতবা ও নামাজ সংক্ষিপ্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। মূলত লাখ লাখ হজযাত্রীর বিভিন্ন পবিত্র স্থান পরিদর্শন এবং মক্কা ও মদীনায় তীব্র গরমের কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সৌদি কর্তৃপক্ষ।

সৌদি ন্যাশনাল সেন্টার ফর মেটিওরোলজি (এনসিএম) শনিবার থেকে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত দেশটির বেশিরভাগ অংশে তাপমাত্রা বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছে। বলা হচ্ছে, এসময় তাপমাত্রা ৪৮-৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকবে।

মক্কা, মদিনা, পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ এবং রিয়াদে এই সপ্তাহে অত্যন্ত বেশি গরম আবহাওয়া অব্যাহত থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।

ঐতিহ্যগতভাবে, মক্কা এবং এর আশপাশে হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করার পরে অনেক হজযাত্রী ইসলামের দ্বিতীয় পবিত্রতম মসজিদ মসজিদে নববীতে নামাজ আদায় করতে পবিত্র শহর মদিনায় ছুটে যান। এই মসজিদে আল রাওদা আল শরিফা রয়েছে, যেখানে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) শায়িত আছেন।

এমন অবস্থায় সৌদি কর্তৃপক্ষ বারবার হজযাত্রীদের হাইড্রেটেড থাকার এবং হিট স্ট্রোক এড়ানোর পরামর্শ দিয়েছে। এছাড়া মুসল্লিদের পর্যাপ্ত পরিমাণে তরল পান করার, সূর্যের সরাসরি তাপ এড়িয়ে চলার, ছাতা ব্যবহার এবং ছায়াযুক্ত স্থানে নামাজ পড়ার পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।

তাসমিম

×