ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মমতার সময় শেষ হয়ে এসেছে

প্রকাশিত: ১২:০১, ১৫ মে ২০২৪

মমতার সময় শেষ হয়ে এসেছে

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

ভারতে চলমান লোকসভা নির্বাচনে ইতোমধ্যে চতুর্থ দফায় ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এর মধ্যে ভালো ফল নিয়ে ক্ষমতাসীন বিজেপি শিবিরে আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে। ৩৮০টি আসনের মধ্যে বিজেপি কত আসন পেতে যাচ্ছে? যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চর্চা চলছে।

এরমধ্যে পঞ্চম ও শেষ ধাপে ভোটের আগে মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গে প্রচারে যান দলটির শীর্ষ নেতা ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের সমর্থনে প্রচার সভায় বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি।

আরও পড়ুন : দুবাইয়ে ১০ কোটি গাছ লাগানোর প্রকল্প

শাহ বলেন, ‘মমতা দিদি, আপনার সময় শেষ হয়ে এসেছে। ৩০টি আসন আসলেই আপনার সময় শেষ হয়ে যাবে। এখানেও মোদীজির নেতৃত্বে বিজেপির সরকার গঠন হতে চলেছে।’

অমিত শাহর দাবি, ইতোমধ্যে সরকার গড়ার লক্ষ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন পেয়ে গেছে বিজেপি। 

অমিত শাহ বলেন, ‘এ পর্যন্ত ৩৮০টি লোকসভা আসনে ভোট হয়েছে। বিজেপি ২৭০ আসনে জয়ী হয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে চলেছেন মোদী।’

পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও গুজরাট, উত্তরপ্রদেশের একাধিক আসন, তেলেঙ্গানা, মধ্যপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র-সহ একাধিক রাজ্যে ভোট সম্পন্ন হয়েছে। গো-বলয়ের একটি বিরাট অংশে ইতোমধ্যে নির্বাচন সম্পন্ন। সব আসনের মধ্যে ইতোমধ্যেই সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় আসন ঢুকে পড়েছে বিজেপির ঝুলিতে বলে দাবি তার। 

বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের প্রচারে গিয়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিশেষ বার্তা দেন শাহ। তিনি জানান, বাংলায় ৩০টি আসনে জয়ের লক্ষ্যে শান্তনু ঠাকুরকে জেতালে তিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে মতুয়াদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যবস্থা করবেন। 

অমিত শাহ বলেন, ‘মমতাদিদি আপনার সময় সমাপ্ত হয়ে এসেছে। মতুয়ারা নাগরিকত্ব পাবেনই। কেউ আটকাতে পারবেন না।’ 

মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যের অনুপ্রবেশকারী ইস্যু নিয়ে শাহ বলেন, ‘মমতাদিদি যদি বাংলার জন্য কিছু করে থাকেন, সেটা হলো অনুপ্রবেশকারী এবং দুর্নীতিবাজদের মদত।’

তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের সমালোচনায় সরব শাহ বলেন, ‘পুরো বাংলায় দারিদ্রতা বেড়েছে। মোদীজির নেতৃত্বে পুরো ভারত এগিয়ে গিয়েছে। এত কিছু সত্ত্বেও বাংলা পেছনে পড়ে গেছে।’ 

এবার বনগাঁ লোকসভা আসন থেকে বিজেপির টিকিটে লড়ছেন গতবারের জয়ী সাংসদ শান্তনু ঠাকুর। নাগরিকত্ব সংশোধিত আইন চালু হওয়ার পর থেকেই মতুয়া অধ্যুষিত এই লোকসভা কেন্দ্রের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বিজেপি নেতৃত্ব।

এবি 

সম্পর্কিত বিষয়:

×