ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ

প্রকাশিত: ১১:১৯, ৮ আগস্ট ২০২২

গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ

গম-ভুট্টা

আমদানি কমাতে ও অর্থনৈতিক সঙ্কট মোকাবেলায় কৃষি খাতকে গুরুত্ব দিয়ে উৎপাদন বাড়াতে সহায়তা করতে চায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এরই অংশ হিসেবে গম ও ভুট্টা চাষিদের জন্য ১ হাজার কোটি টাকার পুনর্অর্থায়ন স্কিম শিগগিরই ঘোষণা করা হবে। নতুন এ প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে কৃষক সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ সুদে ঋণ পাবেন। 

রবিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, দেশে এখনও গম ও ভুট্টা আমদানি করতে হয়। বর্তমানে ইউক্রেন ও রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে আমদানি ব্যাহত হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে দেশে এসব কৃষিপণ্য উৎপাদন বাড়াতে নতুন ১ হাজার কোটি টাকার পুনর্অর্থায়ন তহবিল ঘোষণা করা হবে। তিন বছর মেয়াদী এ তহবিল থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ সুদে অর্থ পাবে। ব্যাংকগুলো গ্রাহক পর্যায়ে সর্বোচ্চ ৪ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে। 

সিরাজুল ইসলাম জানান, সর্বশেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বোর্ড মিটিংয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে সার্কুলার জারি করা হবে। কোভিড পরবর্তী আর্থিক সঙ্কট মোকাবেলায় দেশের কৃষি খাতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। সে সময় কৃষি কর্মকাণ্ড অধিকতর গতিশীল করার লক্ষ্যে কৃষির বিভিন্ন খাত স্বল্প সুদে প্রয়োজনীয় ঋণ প্রবাহ নিশ্চিত করতে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে বাংলাদেশ ব্যাংকের বার্ষিক কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণের লক্ষ্য ঠিক করেছে ৩০ হাজার ৯১১ কোটি টাকা। যা গত অর্থবছরের চেয়ে ৮ দশমিক ৮৮ শতাংশ বেশি। গত অর্থবছরে কৃষি ঋণের লক্ষ্য ছিল ২৮ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা। 

এবার কৃষি ও পল্লী ঋণের চাহিদা বিবেচনায় চলতি অর্থবছরে মোট লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে রাষ্ট্র মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংকগুলো ১১ হাজার ৭৫৮ কোটি টাকা এবং বেসরকারি ও বিদেশি বাণিজ্যিক ব্যাংক ১৯ হাজার ১৫৩ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। গত ২০২১-২২ অর্থবছরে ব্যাংকগুলো মোট ২৮ হাজার ৮৩৪ কোটি টাকা কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ করেছে, যা অর্থবছরের মোট লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ দশমিক ৫৬ শতাংশ বেশি।

আরএস