ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

জাতীয়

এফবিসিসিআইয়ের মতবিনিময় সভা

কারসাজি বন্ধে বাজারে বাজারে মনিটরিং সেল গঠনের তাগিদ

প্রকাশিত: ২৩:২৫, ২০ মে ২০২২

কারসাজি বন্ধে বাজারে বাজারে মনিটরিং সেল গঠনের তাগিদ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অসাধু ব্যবসায়ীদের কারসাজি বন্ধে দেশের প্রতিটি বাজারে মনিটরিং সেল গঠনের তাগিদ দিয়েছে ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। সংগঠনটি মনে করছে, গুটি কয়েক অসাধু ব্যবসায়ীর কারণে পুরো ব্যবসায়ী সমাজ নিন্দিত। এ অবস্থা উত্তরণে সৎ ব্যবসায়ীদের এগিয়ে আসতে হবে। তাদের নিয়ে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি বাজারে নিজস্ব মনিটরিং সেল গঠন করা প্রয়োজন। বৃহস্পতিবার নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর মজুদ, আমদানি, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি বিষয়ে কাওরান বাজার ও নিউ মার্কেটে দুটি মতবিনিময় সভায় এমন পরামর্শ দেয়া হয়। দ্রব্যমূল্যের চলমান অস্থিতিশীল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) উদ্যোগে এ দুটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও এফবিসিসিআইয়ের বাজার মনিটরিং কমিটির আহ্বায়ক মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু। তিনি বলেন, সারাদেশের মানুষ এখন ব্যবসায়ীদের ওপর ক্ষুব্ধ। কিন্তু গুটিকয়েক অসাধু ব্যবসায়ী ও মজুদদারের জন্য এ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। যদিও বাজারের অধিকাংশ ব্যবসায়ী সৎ। ফলে সবাই মিলে প্রতিটি বাজারে মনিটরিং সেল গঠন করুন। তিনি বলেন, সপ্তাহে দু’দিন সেল দেখবে, প্রতিটি দোকানে মূল্য তালিকা রয়েছে কি না। সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রি হচ্ছে কি না। কেউ আইনের অতিরিক্ত পণ্য মজুদ করেছে কি না। তিনি আরও বলেন, ঈদের আগে থেকে ভোজ্যতেল নিয়ে অস্থিরতা। ঈদের পর বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে অবৈধ মজুদের তেল পাওয়া গেল। তাতে সব ব্যবসায়ীর সুনাম ক্ষুণœœ হয়েছে। কিন্তু গুটিকয়েক মজুদদারের কারণে এ গ্লানি সবাই কেন বহন করবে? তিনি ব্যবসায়ীদের সতর্ক করে বলেন, আমরা আপনাদের বোঝাতে এসেছি। পাশাপাশি সতর্ক করছি। আইন হয়েছে, লাইসেন্স না থাকলে এক টনের বেশি পণ্য রাখতে পারবেন না দোকানে। আর লাইসেন্সধারীরা কে কতটুকু পণ্য মজুদ রাখতে পারবেন সেটা জানুন। আমরা সেটা আপনাদের সমিতির কাছে আইনের কপি দিয়েছি। দুটি মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি আমিন হেলালী ও হাবিব উল্লাহ ডন। এফবিসিসিআই বাজার মনিটরিং কমিটি জানায়, এখন থেকে নিয়মিত বিভিন্ন বাজারে এমন মতবিনিময় সভা করা হবে। আগামী সপ্তাহে ফের রাজধানীর দুটি বাজারে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, গত এপ্রিল মাসের শুরুতে এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবুকে প্রধান করে ৪৬ সদস্যের একটি বাজার কমিটি করা হয়েছে। ওই সময় জানানো হয়, সরকারের পাশাপাশি বাজার মনিটর করার জন্য এ কমিটি কাজ করবে। সে সময় এফবিসিসিআই সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন জানিয়েছিলেন, সরকার কর কমিয়ে মানুষকে সহনীয় দামে পণ্য দিতে চায়। সরকারের সঙ্গে যে প্রতিজ্ঞা ব্যবসায়ীরা করেছেন, যেমন- ভোজ্যতেল, চিনি, চালের মতো পণ্যের দাম সহনীয় থাকবে, সেটি রক্ষা করা উচিত। উৎসব এলে দাম না বাড়িয়ে কমানো উচিত, ব্যবসায়ীরা কেন তা করতে পারে না।