রবিবার ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিল ভোমরা থেকে রক্তদহ ও ফকির বিদ্রোহ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজলোর সদর ইউনিয়নে কিছু অংশ, সান্তাহার ইউনিয়ন এবং নওগাঁর রানীনগর উপজেলার কিছু এলাকা নিয়ে রয়েছে এক সময়ের মৎস্য ভান্ডার ‘রক্তদহ’ বিল। মূল বিলটি ১১০ হেক্টরের মতো। কিন্তু এটির ব্যাপ্তি প্রায় অর্ধ শ’ কিলোমিটারজুড়ে। সান্তাহার পৌরসভা ও আদমদীঘি সদর ইউনিয়নে থাকা দুটি শাখা খাল দিয়ে এর যাত্রা শুরু করে মিলিত হয়েছে আত্রাই নদীতে।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পতিসর ‘কুটিবাড়ী এই রক্তদহ বিলের একটি শাখা খালের তীরে অবস্থিত। সে সময় বজরায় চরে কবিগুরু এই রক্তদহ বিলে দীর্ঘসময় বিচরণ করেতেন। এ সময় তিনি ‘আমি কান পেতে রই’ এবং ‘বিধি ডাগর আঁখি যদি দিয়েছিলসহ বিভিন্ন গান, কবিতা ও ছড়া এখানে রচনা করেছেন বলে ইতিহাস থেকে জানা যায়। এক সময় রক্তদহ বিলের রূপ চেহারা ছিল ভয়ঙ্কর। নৌকাডুবির ঘটনা ছিল নিত্যনৈমিত্তিক। অর্ধ শ’ বছর আগে তার রূপ-চেহারায় পড়েছে ভাটা। বর্তমানে নাব্য নেই বললেই চলে। ব্যাপ্তি নেই বললেই চলে। সর্বক্ষণিক অথৈই জলে ভরা বিল ভরাট হয়ে সঙ্কুচিত হয়ে মৎস্য শূন্য হয়ে পড়েছে। ইতিহাসে বলা আছে পূর্বে এই বিল এই বিস্তীর্ণ ও গভীর ছিল যে ছোট স্টিমার ও গয়নার নৌকা চলাচল করত। অর্ধ শ’ বছর আগে গ্রামাঞ্চলের কৃষক ও ব্যবসায়ীদের শস্য পরিবহন ও নানা রঙের পালতোলা নৌকায় রক্তদহ বিল পরিপূর্ণ থাকলেও এখন জেলে নৌকাও তেমন চোখে পড়ে না। তবে অতীতের মতো গত দুই/তিন বছর ধরে বিলে বিলুপ্তপ্রায় পদ্ম, লাল পদ্ম এবং সবুজ ও লাল শাপলাসহ অসংখ্য জলজ উদ্ভিদ বিলের শোভা বর্ধন করছে। এর ফলে কিছু পরিমাণ মুক্ত জলাশয়ের শোল, বোয়াল আইড়, পাবদা ট্যাংড়া ও বিলুপ্তপ্রায় ভেদাসহ নানা দেশীয় মাছ মিলছে। এক সময় মৎস্য ভান্ডার হিসাবে পরিচিত হলেও বর্তমানে সার ও কীটনাশকের প্রভাবে কিছু প্রজাতির মাছ বিল থেকে বিলুপ্তপ্রায়। মাঝে কিছু সময় বিল অতিথি পাখি শূন্য থাকলেও বর্তমানে নানা প্রজাতির কিছু অতিথি পাখি আসলেও শিকারিদের কারণে ভয়ে বেশি দিন থাকে না। ঠিক কত শতাব্দীতে এ বিলের সৃষ্টি তা জানা না গেলেও, এর নাম করণের ইতিহাস এলাকার মানুষের মুখে মুখে। পলাশীর প্রান্তরে নবাব সিরাজ উদ-দৌলার পতনের পর যে কিছু সমষ্টিগত শক্তি তখন ইংরেজ বা জমিদারদের বিরুদ্ধে মাথা উঁচু করেছিল, তার মধ্যে ফকির বিদ্রোহের নেতা ফকির মজনু শাহ্ মাস্তানা’ অন্যতম। তিনি আদমদীঘির কুন্দুগ্রামের কড়ই ও চাঁপাপুরের ঝাঁকইড়ের অত্যাচারী হিন্দু জমিদারদের অত্যাচারের কথা শুনে বগুড়ার তার আস্তানা থেকে প্রায় অর্ধশত অনুগত ফকির সন্ন্যাসী নিয়ে এই এলাকায় আসেন। তার ভয়ে ভীত হয়ে কড়াইয়ের জমিদার কৃষ্ণ রায় চৌধুরী ও ঝাঁকইড়ের জমিদার চন্দ্র শেখর আচার্য্য এক রাতে খাল খনন করে নাগর নদী হয়ে ময়মনসিংহের গৌরিপুর ও মুক্তগাছায় পলায়ন করে। এই সংবাদ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানিতে পৌঁছার পর ফকির মজনু শাহ মাস্তানাকে দমন করতে সৈন্য বাহিনী পাঠায় বিল ভোমরা এলাকায়। ১৭৮৬ সালের মাঝামাঝি (সম্ভবত আগস্ট মাসে) সাবেক বিল ভোমরা বর্তমান মূল রক্তদহ এলাকায় ইংরেজ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট আইন স্লাইনের সঙ্গে ফকির মজনু শাহের নেতৃত্বাধীন ফকির-সন্ন্যাাসীদের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ হয়। এই যুদ্ধে বিপুল সংখ্যক ফকির-সন্ন্যাসী ও ইংরেজ সৈন্য নিহত হয়। নিহতদের রক্তে রঞ্জিত হয় বিল ভোমরার বিস্তীর্ণ এলাকার অথৈই পানি।

মোঃ হারেজুজ্জামান হারেজ, সান্তাহার

শীর্ষ সংবাদ:
দুশ্চিন্তায় কৃষক ॥ বোরো ধান কাটতে তীব্র শ্রমিক সঙ্কট         সিলেটে ৩৩২ কিমি সড়ক এখনও পানির নিচে         বিদ্যুত ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগ আত্মঘাতী         দখল দূষণে কর্ণফুলীর আরও বিপর্যয়         টিকটক হৃদয়সহ ৭ বাংলাদেশীর যাবজ্জীবন         গাজীপুরে ট্রেন পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ৩         এবার ডিমের বাজারও বেপরোয়া         হজযাত্রীদের বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষা         সড়ক দুর্ঘটনায় এসআইসহ নিহত ৭         কালবৈশাখী ঝড় ও বজ্রপাতে পাঁচজনের মৃত্যু         রাজশাহীর বাজারে এসেছে সুমিষ্ট গোপালভোগ         পূর্বাঞ্চলীয় রেলের ৪৮২ একর জমি বেদখল         তিস্তা কমান্ড এলাকায় ৭০ হাজার হেক্টরে বোরোর বাম্পার ফলন         চট্টগ্রামে ৩ ঘণ্টা বৃষ্টিতে জলজট, দুর্ভোগ         এনটিআরসিএতে আসছে বড় পরিবর্তন         সংকট নিরসনে শ্রীলংকা ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মডেল’ অনুসরণ করতে পারে         করোনা : এক মাস পর মৃত্যু এক, শনাক্ত ১৬         ইইউর জোর বাংলাদেশের অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে         ‘শেখ হাসিনার কারণেই দেশের চেহারা পাল্টে গেছে’         মাদক ও অপসংস্কৃতি থেকে তরুণ সমাজকে দূরে রাখতে ক্রীড়াই অন্যতম শক্তি : প্রাণিসম্পদমন্ত্রী