বুধবার ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ছুটির দিনের অপেক্ষায় বাণিজ্যমেলার ব্যবসায়ীরা

  • এখনও জমে ওঠেনি

নিজস্ব সংবাদদাতা, রূপগঞ্জ ॥ বাণিজ্যমেলায় দিনেরবেলা দর্শনার্থী নেই বললেই চলে। এখনও ব্যবসায়ীরা তাদের পণ্যে ডিসকাউন্ট না দেয়ায় এমনটা হচ্ছে দাবি দর্শনার্থীদের। তাই, দিনেরবেলায় স্থানীয় লোকজন আর ব্যবসায়ী পক্ষ ছাড়া তেমন কাউকে দেখা যায়নি। ব্যবসায়ীদের দাবি, গত ১ সপ্তাহে ছুটির দিন ছাড়া খুব একটা জমেনি এ মেলায় বেচাকেনা। তাই সপ্তাহের ছুটির দিনের অপেক্ষায় তারা।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, মেলার ৬ষ্ঠ দিনেও এর প্রবেশপথ ও স্টল নির্মাণ কাজ অব্যাহত রয়েছে। তবে বেশিরভাগ স্টল পণ্যে পরিপূর্ণ। তাই ক্রেতা ও দর্শনার্থীও খুশি।

বৃহস্পতিবার মেলায় গিয়ে দেখা যায়, খাবার হোটেলগুলোতে রাখা হচ্ছে যা খুশি তাই মূল্য। যদিও মূল্য টাঙ্গিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের অধীনস্থ হোটেল অবকাশ। তবে তাদের খাবার হোটেলের সব খাবারের দাম সাধারণের হাতের নাগালের বাইরে। এমনটাই অভিযোগ করেন রূপগঞ্জের মধুখালীর বাসিন্দা তাহছিনা আক্তার।

মেলায় আসা কাঞ্চন পৌর এলাকার বাসিন্দা রূপা সিকদার বলেন, মেলায় প্রবেশের পর অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ ও ধুলাবালি দেখা গেছে। এতে দর্শনার্থীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। রাজধানীর বাড্ডা থেকে আসা দর্শনার্থী কাউছার আল হাবীব বলেন, বাণিজ্য মেলায় আসতে কুড়িল বিশ্বরোড থেকে কাঞ্চন ব্রিজ পর্যন্ত সড়কের বেহাল অবস্থা। সেই সঙ্গে প্রচ- ধুলা। তিনি ধুলা কমাতে বাণিজ্যমেলার এ সময়ে রাস্তায় পানি ছিটানোর দাবি জানান।

এদিকে, মেলার আজ ৬ষ্ঠ দিন হলেও এখনও মেলা জমেনি। এ নিয়ে যমুনা ইলেক্ট্রনিক্স ব্র্যান্ড ম্যানেজার শরিফুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ছুটির দিনে বাণিজ্যমেলা ভাল জমে। আশা করছি, শুক্রবার থেকে মেলা জমবে। এছাড়া মেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এখনও সেভাবে পণ্যে ডিসকাউন্ট দেয়া শুরু করেনি। আমরাই ডিসকাউন্ট দিয়ে ক্রেতা আকৃষ্ট করার চেষ্টা করছি। অন্যরাও বিভিন্ন পণ্যে ছাড় পেলে ক্রেতা আকৃষ্ট হবে বলে তিনি মনে করেন।

এদিকে করোনা মহামারী আবার ইউরোপসহ অন্যান্য দেশে নতুন রূপে ছড়িয়ে পড়ায় এবারের বাণিজ্যমেলায় দেশের পাশাপাশি বিদেশী প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণও কিছুটা কম।

এছাড়া দেশে গত কয়েকদিনে করোনা সংক্রমণের হার কিছুটা বাড়লেও মেলায় মাস্ক ব্যবহারে তেমন সচেতনতা দেখা যায়নি। মাস্ক না পরার এ বিষয়টি ঝুঁকিপূর্ণ বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
‘আন্তর্জাতিকভাবে রিফুয়েলিংয়ের জায়গা হবে কক্সবাজার’         ১৯৮২ সালের পর যুক্তরাজ্যে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি         লিড নিয়েছে বাংলাদেশ         রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ॥ চিকিৎসাধীন তিন জনের মৃত্যু         ‘নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার জন্য দায়ী আন্তর্জাতিক বাজার’         বাতাসে জলীয়বাষ্প বেশি থাকায় ভ্যাপসা গরম         বিদেশী মনোপলি ব্যবসা বন্ধ করে দেশীয় মালিকানাধীন তামাক শিল্প রক্ষা করুন         মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিক পাঁচ হাজার রানের মাইল ফলকে         ১ জুন ফের শুরু বাংলাদেশ-ভারত ট্রেন চলাচল         হাইকোর্টে সম্রাটের জামিন বাতিল         তেজগাঁওয়ে ৫০ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২         পরীমনির মামলায় নাসিরসহ ৩ জনের বিচার শুরু         বিভিন্ন উপজেলা পরিদর্শনে যাচ্ছেন সিইসি         আজ আন্তর্জাতিক জাদুঘর দিবস         লুটপাটে নিঃস্ব গ্রাহক ॥ পি কে হালদারের থাবা         অর্থ ব্যয়ে সাশ্রয়ী হোন অপচয় করা যাবে না         তামিমের সেঞ্চুরি- বাংলাদেশের দাপট         প্রকল্প কমিয়ে অর্থায়ন বাড়িয়ে উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন         জাতীয় সরকারের নামে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না         চুরি, ছিনতাই করতে কক্সবাজার থেকে ঢাকা আসত ওরা