শনিবার ১৬ মাঘ ১৪২৮, ২৯ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ : টানা বর্ষণে বাগেরহাটের কৃষিখাতে ব্যাপক ক্ষতি

ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ : টানা বর্ষণে বাগেরহাটের কৃষিখাতে ব্যাপক ক্ষতি

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ বাগেরহাটে ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ এর প্রভাবে টানা বৃষ্টিতে পাকা ধান, ধান-গমের বীজতলা, রবি শস্য ও শীতকালীন সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। মাঠে জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে ধান ঝড়ে পড়েছে।

পানিতে পচেছে বোরো ধানের বীজতলা। হঠাৎ বৃষ্টিতে বিপুল পরিমান শীতকালীন সবজির গোড়া পচে গেছে। ৩ দিনের টানা বৃষ্টির ফলে অনাকঙ্খিত ক্ষতিতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন স্থানীয় কৃষকরা।

বাগেরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, টানা দুই দিনের বৃষ্টিতে বাগেরহাট জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ১৫০ হেক্টর পাকা আমন ধান আক্রান্ত হয়েছে। এছাড়া ২০৭ হেক্টর বোরোর বীজতলা, গমের বীজতলা ১৭ হেক্টর, ১৩৭ হেক্টর সরিষা ক্ষেত, ১৬১ হেক্টর খেসারি, ৩০ হেক্টর মসুর ডাল, ৩৫ হেক্টর শীতকালীন সবজি ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে টাকার অংকে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে, তা জানাতে পারেনি কৃষি বিভাগ। তবে স্থানীয় কৃষকদের দাবি এই ক্ষতির পরিমান দিগুনের থেকেও বেশি।

শরণখোলা উপজেলার আমড়াগাছিয়া গ্রামের বাদশা খলিফা বলেন, আমরা যারা কৃষক, আমাদের সব শেষ। মোটাধান কেটে মাঠে রেখে দিছিলাম। চারদিনের বর্ষায় সব শেষ হয়ে গেল।

একই উপজেলার বাদশা খলিফা, ইয়াকুবসহ আরও অনেকে বলেন, ইয়াসের ধাক্কায় আমনের বীজতলা নষ্ট করে দিল। খুব কষ্টে বীজ যোগার করে, ধান রোপন করেছিলাম। এখন বৃষ্টির কারণে পাকা ধান মাটিতে নুয়ে পড়েছে। আবার কারও কারও কাটা ধানও রয়েছে জমিতে। এদেরতো একেবারে মাথায় হাত।

সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকার মহিবুল্লাহ বলেন, আমাদের বাৎসরিক আয়ের একটা বড় শীতকালীন সবজি। কয়েকদিন পরেই লাল শাক, বেগুন, মূলা, পাতা কফি, ফুল কপি ও ওল কপির বিক্রি করতে পারতাম। কিন্তু টানা বৃষ্টিতে শিকর পচে গেছে। রোদ পেলে বেশিরভাগ সবজি ঢলে পড়বে। খুব বড় ক্ষতি হয়ে গলে আমাদের।

কুচয়া উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের বোরো চাষী হেমায়েত মোল্লা বলেন, বীজতলায় কেবলমাত্র ধানের চারা এসেছিল। টানা বৃষ্টিতে আমাদের বোরো ধানের চারাগুলো পচে গেছে। এখন আবার ধান কিনতে হবে, প্রক্রিয়াজাত করে আবার বুনতে হবে। অনেকদিন পিছিয়ে গেলাম আমরা। শুধু হেমায়েত নয়, বাগেরহাট সদর, কচুয়া, চিতলমারী, মোল্লাহাট, মোরেলগঞ্জ, ফকিরহাট উপজেলার বেশকিছু বোরো ধানের বীজতলা নষ্ট হয়েছে এবারের বৃষ্টিতে।

বাগেরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, টান বর্ষণে পাকা ধান, ধানের বীজতলা, গমের বীজতলা, শীতকালীণ সবজি ও বেশকিছু রবি শস্যের ক্ষেত আক্রন্ত হয়েছে। মূলত টাকার অংকে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে, কত কৃষকের ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন, সে বিষয়টি এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে মাঠ পর্যায়ে ক্ষয়ক্ষতির তালিকা তৈরীর কাজ চলছে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনায় প্রাণ গেলো আরও ২১ জনের         বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দামে বড় দরপতন, কমেছে রূপা ও প্লাটিনামের দামও         ভর্তুকি বাড়লেও সারের দাম বাড়বে না ॥ কৃষিমন্ত্রী         করোনার অজুহাতে যেন স্কুল শিক্ষা কার্যক্রমে ছেদ না পড়ে ॥ ইউনিসেফ         আইপি টিভির বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা : জসীম উদ্দিন         এক বছরে ঢামেকে টিকা পেয়েছেন ৫ লাখ মানুষ         ভূমধ্যসাগরে মারা যাওয়া ৭ জনের নৌকায় ২৮৭ জনের মধ্যে ২৭৩ জনই বাংলাদেশি         ডেঙ্গু : গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়নি কোনো রোগী         করোনা ভাইরাস ॥ ভারতে একদিনে ৮৭১ জনের মৃত্যু         নীলফামারীর অরক্ষিত লেভেলক্রসিং গুলোতে দুর্ঘটনায় প্রাণহানি বাড়ছে         ষষ্ঠ ধাপের ইউপি নির্বাচন ॥ মনিটরিং সেল গঠন         মানিকগঞ্জে বাস-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ ॥ নিহত ৩         বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যা বেড়েছে         শৈত্যপ্রবাহ থাকবে আরও দু-তিন দিন         রাজশাহীতে আজ রাত ৮টার পর বন্ধ থাকবে দোকানপাট         রাতে একাদশে ভর্তির ফল         করোনা ভাইরাস ॥ রাশিয়ায় মৃত্যু ৭ লাখ ছাড়াল