বৃহস্পতিবার ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৭ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সমিতি সংগঠন খুলে ফায়দা লুটে নিচ্ছে বিশেষ শ্রেণী

  • বঞ্চিত প্রকৃত নৃ-গোষ্ঠী

সমুদ্র হক, বগুড়া অফিস ॥ নৃ-গোষ্ঠী জনগণের সরকারী সুবিধা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি শ্রেণী। যারা নৃ-গোষ্ঠী নয় তারা বিভিন্ন নামে কৌশলে সংগঠন ও সমিতি খুলে অর্থ সুবিধাসহ অন্যান্য সুবিধা নিচ্ছে। ফলে বঞ্চিত হচ্ছে প্রকৃত নৃ-গোষ্ঠী।

সরকার নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়কে অধিকতর সুযোগ-সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান আইনের তফসিল যুগোপযোগী করার পর একটি শ্রেণী অবৈধ কাজ শুরু করেছে। তারা নৃ-গোষ্ঠী না হয়েও সমিতি খুলে সরকারী অর্থসহ নানা সুবিধা নিচ্ছে। বিষয়টি প্রকৃত নৃ-গোষ্ঠীর নেতাদের দৃষ্টিতে আসার পর অচলায়তন দূর করতে সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। সারাদেশে গেজেটভুক্ত ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জাত ৫০টি, যাদের সংখ্যা প্রায় ৩০ লাখ। এদের মধ্যে সমতল ভূমির নৃ-গোষ্ঠী ২০ লাখ, যাদের বেশিরভাগ হিন্দু ও খ্রীস্টান সম্প্রদায়ের। পাহাড়ী নৃ-গোষ্ঠী ১০ লাখ, যাদের বেশিরভাগ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের।

বগুড়া জেলা আদিবাসী ফোরামের আহ্বায়ক দেব বাগদী জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী অবহেলিত অবস্থা কাটিয়ে উঠতে শুরু করে। দেশে প্রথম ২০১০ সালের ২৩ নম্বর আইনে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সাংস্কৃতিক আইন প্রতিষ্ঠার পর গেজেট প্রকাশিত হয়। এরপর মাঠপর্যায়ে নৃ-গোষ্ঠীর অধিকার বাস্তবায়নে আইনে আরও কিছু সংযোজনের প্রয়োজন হয়। দু’বছর আগে নতুন কিছু তফসিল প্রতিস্থাপিত হয়। এই প্রতিস্থাপনে দেশে মোট ৫০টি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নাম সংযোজিত হয়। তারা হলো- ওরাওঁ কোচ, কোল, খাসিয়া, খিয়াং, খুমি, গারো, চাক, চাকমা, ডালু, তঞ্চঙ্গা, ত্রিপুরা, পাংখোয়া, বম, বর্মণ, মণিপুরী, মারমা, কন্দ, কড়া, গঞ্জু, গড়াইত, গুর্খা, তেলী, তুরী, পাত্র, বাগদী, বানাই, হো, ভিল পাহাড়ী/মালপাহাড়ী, মু-া, ম্রো, রাখাইন, লুসাই, সাঁওতাল, হাজং, মাহাতো/কুর্মিমাহাতো/ বেদিয়া মাহাতো, হুদি, বড়াইক, বেদিয়া, ভূমিজ, ভূঁইমালী, মালো/ঘাসিমালো, মাহালী, মুসহর, রাজোয়ার, লোহার, শবর, খাড়িয়া, খারওয়ার।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বগুড়া অঞ্চলের নেতা জানান, বিভিন্ন উপজেলায় কিছু ব্যক্তি ও গোষ্ঠী নৃ-গোষ্ঠীর নাম ব্যবহার করে ভুল তথ্য দিয়ে সংগঠন ও সমিতি দাঁড় করিয়েছে। তারা সমাজ কল্যাণ বিভাগ থেকে নিবন্ধন নিয়ে নৃ-গোষ্ঠীর বরাদ্দের সরকারী অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। কেউ আদিবাসী সেজে সমিতির রেজিস্ট্রেশন করিয়ে সাইন বোর্ড টাঙ্গিয়ে নৃ-গোষ্ঠীর সরকারী সূযোগ-সুবিধা নিচ্ছে। তারা অনেকই সরকারী তালিকার নৃ-গোষ্ঠী নয়। গেজেটে তাদের নৃ-গোষ্ঠীর পরিচয় নেই।

উদাহারণ দিয়ে জানান, বগুড়ার ধুনট, গাবতলি ও সারিয়াকান্দিতে ৬টি সংগঠন (যাতের কোন বৈধতা নেই) নৃ-গোষ্ঠীর বরাদ্দকৃত অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। সরকারী নৃ-গোষ্ঠী নামের তালিকায় রবিদাস, কোনাই, হাওলাদার নেই। অথচ এরাই নৃ-গোষ্ঠীর অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। হাওলাদার সম্প্রদায় মূলত জেলে। সরকার জেলেদের জন্য আলাদা বরাদ্দ দিয়েছে। এই বরাদ্দে নদী তীরের ও চরগ্রামের প্রতিটি এলাকার জেলে নিজেদের জীবনমান উন্নত করছে। এই জেলেদের কেউ নিজেদের নৃ-গোষ্ঠী সাজিয়ে সরকারের বাড়তি দুটি সুবিধা নিচ্ছে। যারা রবিদাস (মুচি নামে অধিক পরিচিত) তারা সমাজ কল্যাণ থেকে সরকারী বরাদ্দ পেয়ে জীবনমান উন্নীত করছে। সরকারের নৃ-গোষ্ঠীর নামের তালিকায় রবিদাস নেই। তারাও নিজেদের আদিবাসী ও নৃ-গোষ্ঠীর নামের সমিতি খুলে সরকারী সুবিধা নিচ্ছে। কোনাই সম্প্রদায়সহ সরকারী তালিকার নাম বহির্ভূত অনেকে নৃ-গোষ্ঠীর জন্য বরাদ্দের সরকারী সহায়তা নিচ্ছে। ফলে বঞ্চিত হচ্ছে প্রকৃত নৃ-গোষ্ঠী।

নৃ-গোষ্ঠীর দেব রায় বাগদী জানালেন, বগুড়ার ১২ উপজেলায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সংখ্যা প্রায় দুই লাখ। এদের মধ্যে আছে কোচ, খাসিয়া, বর্মণ, মাহাতো, তেলী, তুরি, ভূঁইমালী, মালো, মাহালী, রাজোয়াড়, লোহার। সরকার নৃ-গোষ্ঠীর সন্তানদের শিক্ষা, চিকিৎসা, বাসস্থান বাড়িঘর নির্মাণের খরচ দিচ্ছে। যাদের সন্তান উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেছে তার শিক্ষায় এককালীন ২৫ হাজার টাকা ও অন্যান্য শিক্ষা সহায়তা দিচ্ছে। বাড়িঘরে সুপেয় পানির জন্য টিউবওয়েল-স্যানিটেশন ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। সমতল ও পাহাড়ী এলাকার নৃ-গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের সরকার সকল সূযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। যারা নৃ-গোষ্ঠী নয়, তারা নানা ছদ্মাবরণে ছলচাতুরি করে নৃ-গোষ্ঠীর সুবিধা নিচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
গাইবান্ধায় ইভিএম এর মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে ॥ কবিতা খানম         এস কে সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ এপ্রিল         শেরপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক তালাপতুফ হোসেন মঞ্জু আর নেই         সমালোচনা বন্ধ করতে হলে মার্শাল ল দিতে হবে ॥ সিইসি         সার্চ কমিটিতে থাকবেন নারী         ৫ বছরে ২২৮ এনজিওর নিবন্ধন বাতিল         রাজশাহীতে করোনায় নারীর মৃত্যু ॥ শনাক্তের হার ৬০.৩৯ ভাগ         এক রেখায় দৃশ্যমান হলো স্বপ্নের মেট্রোরেল         ইসি গঠন আইন পাস         দক্ষ জনবলের অভাবে এনআইডিতে ভুল-ভ্রান্তি ॥ আইনমন্ত্রী         ইউক্রেনে সেনা সদস্যের গুলিতে পাঁচজন নিহত         অসংখ্য স্প্লিন্টার দেহে নিয়ে বেঁচে আছেন আব্দুল্লাহ সরদার         হবিগঞ্জে বৈদ্যের বাজার ট্র্যাজেডির ১৭ বছর         ‘সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে মানুষের হৃদয়ে পৌঁছানো যায়’         ‘বাংলাদেশের চলমান ঘটনা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ইইউ’         আফ্রিকান নেশন্স কাপে মিসর কোয়ার্টার ফাইনালে         অনৈতিক কার্যকলাপ ॥ হাইকমিশনের প্রথম সচিব ঢাকায় ফেরত         গত ২৪ ঘন্টায় মমেক হাসপাতালে করোনায় ৪ জনের মৃত্যু         ইসি গঠন আইন পাসের কার্যক্রম শুরু         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ১০ হাজার ২২১ জন