বৃহস্পতিবার ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৭ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গাজীপুরে কিশোরীকে খুনের ঘটনায় স্বামীর বিরুদ্ধে ১২ ঘন্টার মধ্যে চার্জশীট দাখিল

গাজীপুরে কিশোরীকে খুনের ঘটনায় স্বামীর বিরুদ্ধে ১২ ঘন্টার মধ্যে চার্জশীট দাখিল

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরের কাপাসিয়ায় এক কিশোরী বধূকে খুনের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ১২ ঘন্টার মধ্যে রহস্য উদঘাটন করে আদালতে চার্জশীট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী ইমনকে (১৯) গ্রেফতার করা হয়েছে। মিথ্যা অপবাদে বিতাড়িত হওয়ার পর শ্বশুরবাড়িতে পুনঃরায় ফিরে যেতে না চাইলে ওই কিশোরী স্ত্রী মারুফা আক্তারকে (১৪) গলাটিপে হত্যা করে তার স্বামী ইমন। সোমবার গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোঃ সানোয়ার হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতারকৃত ইমন (১৯) শ্রীপুর উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরকুল গ্রামের এমদাদুল হকের ছেলে।

কাপাসিয়া থানার ওসি এ এফ এম নাছিম জানান, কাপাসিয়ার সিংহশ্রী ইউনিয়নের বড়বেড় গ্রামের মাসুদ মিয়ার মেয়ে মারুফা আক্তার (১৪) শ্রীপুরের বরমী বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ছিল। সে শ্রীপুরের বরকুল গ্রামের নানার বাড়িতে থেকে ওই বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতো। মারুফার সঙ্গে ওই গ্রামের ইমনের (১৯) পরিচয় হয়।

পরিচয়ের সূত্রধরে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রায় বছর খানেক আগে তারা বিয়ে করে। ইমন কোনো কাজকর্ম না করায় তাদের মাঝে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকতো। সম্প্রতি ইমন মাওনা এলাকার একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী নেয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান, গত কয়েকদিন আগে শ্বশুর বাড়ীতে চুরি করার অপবাদ দিলে মারুফা রাগ করে প্রথমে নানীর বাড়ী এবং পরে বাবার বাড়ী চলে আসে। স্ত্রীকে পুনঃরায় ফিরিয়ে নিতে ইমন শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে তার শশুর বাড়ী বেড়াতে যায়।

এসময় মারুফাকে শ্বশুর বাড়ি ফিরে যেতে বললে সে অস্বীকার করে। এতে ক্ষুব্ধ হয় ইমন। এ ঘটনার পর রাতে বাড়ির সবাই খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে ঘুমন্ত স্ত্রী মারুফাকে গলা টিপে হত্যা কওে জানালা দিয়ে পালিয়ে যায় ইমন। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মারুফার লাশ খাটের উপর পড়ে থাকতে দেখেন বাড়ির লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহতের পরিবার জানায়, মারুফাকে গলা টিপে হত্যার কথা স্বীকার করে পরদিন শনিবার বেলা ১১টায় ঘাতক ইমন নিহতের বাবাকে মোবাইল ফোনে জানিয়েছে। এসময় সে জানায় স্ত্রী মারুফাকে হত্যার পর সে নিজেও ঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়ে পালিয়ে যায়।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা আরো জানান, এ ঘটনায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে জামাতা ইমনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঘাতক স্বামী ইমনকে শ্রীপুরের সাতখামাইর রেল স্টেশন এলাকা হতে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত ইমন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। এ খুনের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ১২ ঘন্টার মধ্যে ময়না তদন্ত রিপোর্ট সংগ্রহ ও রহস্য উদঘাটন এবং মামলার সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে আদালতে চার্জশীট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেছে পুলিশ।

শীর্ষ সংবাদ:
অবশেষে অনশন ভঙ্গ ॥ শাহজালালের ঘটনায় কিছুটা স্বস্তি         শিক্ষার্থীদের সব দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস শিক্ষামন্ত্রীর         দেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে         বিএনপি ৮ লবিস্ট নিয়োগ দিয়েছিল         ওমিক্রন মোকাবেলায় আসছে নতুন গাইডলাইন         রাজধানীসহ কোন কোন এলাকায় ভারি বৃষ্টি, জনদুর্ভোগ         অপরাধ দমনে কাজের স্বীকৃতি পেল পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট         অর্থ পাচার রোধে দক্ষিণ কোরিয়ার মতো কঠোর আইন প্রয়োজন         এগিয়ে চলাকে স্তব্ধ করতে নানা ষড়যন্ত্র চলছে         অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আরও তিন বছর লাগবে         তদন্ত এগোনোর পর এখনও এজাহার জটিলতার নেপথ্যে -         বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিক্সার ৫ যাত্রী নিহত         আসছে নতুন শিক্ষাক্রম, সময়মতো চালুর বিষয়ে শঙ্কা         নগ্ন ছবি, ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে টাকা দাবি         বাংলাদেশের গ্রামীণ হাসপাতাল পেল বিশ্ব সেরার স্বীকৃতি         ওমিক্রনরোধে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নতুন গাইডলাইন         শাবিপ্রবি সংকট : শিক্ষার্থীদের সব দাবি বাস্তবায়ন হবে ॥ শিক্ষামন্ত্রী         জামিন পেলেন শাবিপ্রবির সাবেক ৫ শিক্ষার্থী         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ১৭, শনাক্ত ১৫৫২৭         ‘শাবির ঘটনায় পুলিশের দায় থাকলে ব্যবস্থা’