সোমবার ৪ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

নেত্রকোনায় অপহরণের সময় স্কুলছাত্রী উদ্ধার, এক অপহরণকারী আটক

নেত্রকোনায় অপহরণের সময় স্কুলছাত্রী উদ্ধার, এক অপহরণকারী আটক

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা ॥ জেলার মদন উপজেলায় এক পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ করে পালানোর সময় জনতা তাকে (ছাত্রীকে) উদ্ধার ও এক অপহরণকারীকে হাতেনাতে আটক করেছে। আটক অপহরণকারীর নাম হৃদয় মিয়া (১৭)। সে মদন উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নের রূপাশ্রম গ্রামের টিটু মিয়ার ছেলে। এ সময় রাজন মিয়া (১৮) নামে তার অপর এক সহযোগী পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় রাত ১১টার দিকে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের হয়।

থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মদন উপজেলার আরগিলা গ্রামের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওই কিশোরী রবিবার সন্ধ্যায় তার মায়ের সঙ্গে মদন বাজারে যাচ্ছিল। কিছুদূর যাওয়ার পর হঠাৎ হৃদয় মিয়া ও রাজন মিয়া নামের দুই বখাটে তরুণ একটি মোটরসাইকেলযোগে এসে ওই ছাত্রীকে জোর করে তুলে নিয়ে মোটরসাইকেলের গতি বাড়িয়ে দেয়।

এ সময় মেয়েটির মা তাকে রক্ষা করতে চাইলে অপহরণকারীরা তাকে ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। পিছন থেকে স্থানীয় কয়েক গ্রামবাসী এবং কয়েক মোটরসাইকেল আরোহী ঘটনাটি দেখতে পেয়ে অপহরণকারীদের ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে তারা মদন উপজেলা সদরের মহিউদ্দিন মার্কেটের সামনে গিয়ে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার এবং মোটরসাইকেলসহ হৃদয় মিয়াকে আটক করতে সক্ষম হন। তবে রাজন মিয়া পালিয়ে যায়। রাজন মিয়ার বাড়িও নায়েকপুর ইউনিয়নের রূপাশ্রম গ্রামে। আটকের পর জনতা হদয় মিয়াকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। একই দিন রাত ১১টার দিকে মেয়েটির মা মদন থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলায় হৃদয় ও রাজন ছাড়াও আরও এক তরুণকে আসামী করা হয়।

মদন থানার উপ-পরিদর্শক দেবাশীষ দত্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রাজন মিয়াকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। উদ্ধার হওয়া মেয়েটিকে তার পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে নিয়ে গেছেন।

শীর্ষ সংবাদ: