সোমবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নীলফামারীতে বন্যা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নতি

নীলফামারীতে বন্যা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নতি

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ নীলফামারীর ডিমলার ডালিয়া ব্যারাজ পয়েন্টে কমতে শুরু করেছে তিস্তা নদীর পানি। আজ বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকাল ৬টায় তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার ৩০ সেন্টিমিটার (৫২.৩০) ও সকাল ৯টায় আরও ১০ সেন্টিমিটার নেমে (৫২.২০) ৪০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা পরিস্থিতির সার্বিক উন্নতি হলেও তিস্তাপাড়ের জনজীবন লন্ডভন্ড হয়ে গেছে গত ১৮ ঘন্টায়। ক্ষয়ক্ষতির পরিমানে প্রায় শতকোটি টাকা বলে ধারনা করা হচ্ছে।

হঠাৎ করে উজানের ঢলে রুদ্ধমূর্তি ধারন করা তিস্তা নদী অববাহিকায় স্মরনকালের এমন বন্যা ও ভাঙ্গন এলাকাবাসীকে পথে বসিয়ে দিয়েছে। চারিদিকে ক্ষতিগ্রস্থদের শুধু আহাজারী আর আহাজারী । নারী পুরুষদের গগন বিদারক কান্না আকাশ বাতাস ভারী করে তুলেছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বাধের উপর ত্রিপলের ভেতর মানুষজন নির্ঘুম রাত কাটিয়েছে। বিশেষ করে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের কালিগঞ্জ জিরো পয়েন্টে ১২শত পরিবার পথে বসে গেছে। তাদের দ্রুত পুনঃবাসন করার দাবি করা হয়েছে। এদিকে তিস্তার বন্যায় নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ১২ টি চরের শতশত হেক্টরের ভুট্টা, উঠতি আমন ধান, শাক সবজী, পুকুরের মাছ, বসতঘর ও আসবাসপত্র ভেসে গেছে ও বিনস্ট হয় প্রায় আরও ৫০ কোটি টাকা। যা তিস্তার লন্ডভন্ডে প্রায় শত কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার।

গতকাল বুধবার উজানের ঢলের পর পরেই তিস্তার এই বন্যায় নীলফামারী জেলা প্রশাসক, উপজেলা প্রশাসন, ফায়ার সর্ভিস,বিজিবি দ্রুত ছুটে গিয়ে অসংখ্য পরিবারকে উদ্ধার কাজ পরিচালনা করে। জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান জানান, প্রাথমিক ভাবে ডিমলা উপজেলায় জিআর এর ৪০ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বন্যা ও ভাঙ্গন কবলিত পরিবারগুলোকে ডান তীর বাঁধ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় ও শুকনা খাবার বিতরন করা হচ্ছে।

ডিমলা উপজেলা ফায়ার সর্ভিসের ইনচার্জ এটি এম গোলাম মোস্তফা জানান, তিস্তার বন্যায় চর এলাকায় আটকা পড়া অসংখ্য পরিবারকে উদ্ধার করে নিরাপদে সরিয়ে আনার কারনে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

আজ বৃহস্পতিবার ডিমলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেজবাহুর রহমান বলেন আমরা বন্যা ও ভাঙ্গন কবলিত পরিবারগুলোর সার্বক্ষনিক তদারকি করছি। তাদের শুকনা খাবার দেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি চাল বিতরনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান তার এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত ১২শত পরিবারকে দ্রুত পুনঃবাসনের দাবি করেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নীলফামারীর ডালিয়ার বন্যা পুর্বাভাস ও সর্তকীকরন কেন্দ্রের কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় তিস্তার পানি বিপদসীমার (৫২.৬০) ৫৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। এর আগে সকাল ৬টায় ৫০ সেন্টিমিটার, ৯টায় ৬০ সেন্টিমিটার, দুপুর ১২টায় ৭০ সেন্টিমিটার বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত তিস্তার পানি বিপদসীমার ৪০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড ডালিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী আসফুদ্দৌলা বলেন,সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও তবে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে তিস্তাপাড়ের।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে         ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্লান বোলিং সাফল্য         মিল্কি ওয়ের প্রথম ‘পালক’         সরকারী কাস্টডিতে নেই খালেদা, তিনি মুক্ত         ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ৪ ডিসেম্বর শুরু         ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থায় সারাদেশ         সাদা পোশাকে দেশে সবার ওপরে মুশফিক         সাগরে জলদস্যুতায় যাবজ্জীবন দন্ড         গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ৪১ বছর পূর্তির আয়োজন         কুয়েতে পাপুলের সাত বছরের কারাদন্ড         পাকি প্রেম দূরে রাখুন         বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         ‘মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ’         তৃতীয় ধাপের সহিংসতাহীন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে দাবি ইসির         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩         করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সতর্কবার্তা         পরিবহন সেক্টর কার নিয়ন্ত্রণে : জি এম কাদের         সংসদে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন আনা হচ্ছে শিগগিরই ॥ আইনমন্ত্রী         বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদির ৩০ কোম্পানি         আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে নগর পরিবহন চালু সম্ভব নয় : মেয়র তাপস