শুক্রবার ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

গৃহহীনদের ঘর তৈরিতে দুর্নীতি হয়নি : প্রধানমন্ত্রী

গৃহহীনদের ঘর তৈরিতে দুর্নীতি হয়নি : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ গৃহহীনদের দেওয়া ঘর নিয়ে দুর্নীতি বা অনিয়মের তদন্ত দুর্নীতি দমন কমিশন কেন বন্ধ করেছে সেই প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমার প্রশ্ন দুর্নীতি দমন কমিশন তদন্ত বন্ধ করবে কেন। তাদের তো তদন্ত বন্ধ করার কথা না। তদন্ত চালু রাখতে হবে। দেখতে হবে এসব যারা ভাঙলো, তারা কারা; তাদের উদ্দেশ্য কী ছিল?

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদের ১৪তম অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বলতে গেলে ১৯৯৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত কম করে হলেও ১০ লাখ মানুষকে আমি ঘর তৈরি করে দিয়েছি। এবারের যে ঘটনাটি ঘটেছে এখানে এক সংসদ সদস্য প্রশ্ন তুলেছেন আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে। এটা আমরা তদন্ত করছি। দেখা হয়েছে ৯টি জায়গায় দুর্নীতি পেয়েছি আর দশ-বারোটি জায়গায় অতিবৃষ্টি হলো, সেই বৃষ্টির কারণে মাটি ধসে ঘর পড়ে গেছে। সেখানে কিন্তু আরও অনেক ঘর ছিল।

শেখ হাসিনা বলেন, ৩০০টি জায়গায় যেখানে প্রত্যেকটি ঘরের ছবি আমার কাছে আছে। পুরো তদন্ত করে দেখা গেছে, সেখানে দরজা-জানালার ওপর হাতুড়ির আঘাত। ফ্লোরগুলো খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তোলা হয়েছে।

আমি আগামীতে সংসদের ছবি দেখাবো। ইটের গাঁথুনির পিলার ভেঙে ফেলা হয়েছে। এটাতো দুর্নীতির জন্য হয়নি। এটা কারা করলো? তবে হ্যাঁ, কারা করেছে তদন্ত হচ্ছে। এর মধ্যে কিছু অ্যারেস্ট হয়েছে, অন্যদেরও করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আমার প্রশ্ন দুর্নীতি দমন কমিশন তদন্ত বন্ধ করবে কেন? তাদের তো তদন্ত বন্ধ করার কথা না। তাদেরকে তদন্ত চালু রাখতে হবে। তদন্ত করে দেখতে হবে সেখানে যারা ভাঙলো তারা কারা। তাদের উদ্দেশ্য কী ছিল, কেন ভাঙলো। সেটা যদি দুর্নীতি দমন কমিশন তদন্ত করে থাকে তাহলে তাদের তদন্ত করতে হবে।

একজন সংসদ সদস্য বললেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশন নাকি বলছে আমরা আর তদন্ত করবো কী, প্রধানমন্ত্রী একথা বলেছেন।’ কিন্তু যে ভেঙেছে তার নিশ্চয়ই কোনও উদ্দেশ্য ছিল।

এখানে দুর্নীতি দমন কমিশনের তো এই কথা বলার কথা না। এই কথা যে কর্মকর্তা বলেছে যদি আমি জানতে পারি তাহলে তার ব্যাপারেও খোঁজ নিতে হবে। আমি দুর্নীতি দমন কমিশনকে বলবো যে ৩০০টি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রত্যেকটা তদন্ত তাদের করতে হবে এবং রিপোর্ট দিতে হবে। এটাই আমার কথা।

তিনি বলেন, আমরা গরিবকে ঘর করে দেবো; সেখান থেকেও টাকা মেরে খাবে। এখন কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে ঘর করে দিচ্ছি যাতে সহজে কেউ ভাঙতে না পারে।

শীর্ষ সংবাদ:
রামেক হাসপাতালে করোনা উপসর্গে ২ জনের মৃত্যু         বিশ্বের ৩০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন         জনকন্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে বরাদ্দ আসছে         বিয়ের পিড়িতে দুই হাত হারানো ফাল্গুনী         রায়পুরায় অপহরণের ৬ দিন পর মিললো শিশু ইয়াছিনের লাশ         ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর রেকর্ডে আর্সেনালকে হারাল ইউনাইটেড         সমুদ্রবন্দরে ১ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত         ফটিকছড়িতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক         দিনাজপুরে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টায় কাজী কারাগারে, বরের জরিমানা         রাজধানীর শেওড়াপাড়ায় মোটরসাইকেল আরোহীকে গুলি করে আহত         আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে ফিরলেই নিজ খরচে কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক         মানুষকে আগামী বহু বছর ধরে কোভিডের টিকা নেবার প্রয়োজন হতে পারে ॥ ড. বুর্লা         মুন্সীগঞ্জে বিস্ফোরণে দগ্ধ ভাই-বোন নিহত ॥ মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বাবা-মা         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন ৭ হাজার ৪২ জন         ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ॥ আমিনবাজারে ছয় ছাত্র হত্যা         যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত         এইচএসসি পরীক্ষা শুরু, ১৪ লাখ পরীক্ষার্থী         ১৬ ডিসেম্বর শপথ করাবেন শেখ হাসিনা         আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা         প্রয়োজনে ফের বন্ধ হতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ॥ দীপু মনি