বুধবার ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ০৪ আগস্ট ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বেবিচকের নির্বাহী প্রকৌশলী বরখাস্ত

বেবিচকের নির্বাহী প্রকৌশলী বরখাস্ত

অনলাইন রিপোর্টার ॥গত বছরের ডিসেম্বরে ২১ দিনের ছুটি নিয়ে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলী (ডিজাইন) মো. শহীদুজ্জামান গিয়েছেন আমেরিকায়। ছুটি শেষ হওয়ার পরও কাজে না ফেরায় তার সঙ্গে যোগাযোগ করে বেবিচক।

ই-মেইলে জবাবে, এ কর্মকর্তা নিজেকে অসুস্থ দাবি করেন। সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের ছুটি চেয়েছেন তিনি। তবে তার এই কর্মকাণ্ড ‘অসদাচরণ’ ও ‘পলায়ন’ আখ্যা দিয়ে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে বেবিচক।

সূত্র জানায়, আমেরিকায় আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে দেখা করার জন্য ২১ দিনের ছুটি নিয়ে ২০২০ সালের ২৭ ডিসেম্বর আমেরিকায় যান নির্বাহী প্রকৌশলী (ডিজাইন) মো. শহীদুজ্জামান। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় থেকেও নিয়েছিলেন অনুমোদন। তার ২১ দিনের ছুটি শেষে ১৭ জানুয়ারিতে কাজে ফেরার কথা ছিল। তবে ছুটির মেয়াদ শেষ হলেও কাজে যোগদান করেননি মো. শহীদুজ্জামান।

পরবর্তীতে তিনি শারীরিক সমস্যার কথা উল্লেখ করে প্রধান প্রকৌশলীকে ই-মেইল করেন। একইসঙ্গে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হওয়ার সাপেক্ষে ফিরবেন জানিয়ে অনির্দিষ্টকালের ছুটির আবেদন করেন।

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, মো. শহীদুজ্জামান নির্বাহী প্রকৌশলী (ডিজাইন) হিসেবে কর্মরত ছিলেন বেবিচক।

আগেও তিনি ছুটি নিয়ে যথাসময়ে কাজে ফেরেননি। অনুমোদনহীন ভাবে আমেরিকায় অবস্থানের কারণে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাও হয়েছিল। পরবর্তীতে বিভাগীয় মামলার শুনানিতে শহীদুজ্জামান ক্ষমা চাইলে তাকে সতর্ক করা হয় এবং অনুমোদনহীন ভাবে অনুপস্থিতির দিনগুলোকে বিনা বেতনে ছুটি হিসেবে মঞ্জুর করা হয়।

সূত্র জানায়, মো. শহীদুজ্জামানের আচরণে ক্ষুব্ধ বেবিচক কর্তৃপক্ষ। ছুটি নিয়ে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাবার সময়ও তিনি কোনও ধরনের অসুস্থতার কথা বলে যাননি। এমনকি এ বিষয়ে বেবিচকেও কোনও যোগাযোগ করেননি তিনি। মো. শহীদুজ্জামানের আচরণকে চাকরি-বিধি লঙ্ঘন হিসেবেই দেখছে কর্তৃপক্ষ।

অনুমতি ছাড়া ৬০ দিনের অধিক সময় বিদেশ অবস্থান করায় কর্তৃপক্ষের কর্মচারী প্রবিধানমালার ৪৯(খ) ও (গ) প্রবিধি মোতাবেক ‘অসাদাচরণ’ ও ‘পলায়ন’ সংজ্ঞায়িত অপরাধ আখ্যায়িত করে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় ১৩ এপ্রিল। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলাও করা হয়।

বেবিচকের প্রশাসন বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, চাকরি প্রবিধানমালা অনুসারে কেউ অনুমোদন ছাড়া ছাড়া ৬০ দিনের অধিক সময় কর্মস্থলে না থাকলে পলায়ন হিসেবে ধরা হয়।

সেক্ষেত্রে অভিযুক্তকে সশরীরের এসে ব্যাখ্যা দিতে হবে। মো. শহীদুজ্জামান ৬০ দিনের অধিক সময় অনুমোদন ছাড়া কর্মস্থলে আসেননি, এজন্য তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে, সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থাও নেওয়া হবে চাকরি প্রবিধানমালা অনুসারেই। তিনি কর্মস্থলে এসে যৌক্তিক ব্যাখা না দিতে পারলে, শাস্তির মুখোমুখি হবেন, স্থায়ীভাবে বরখাস্তও হতে পারেন।

শীর্ষ সংবাদ:
শেখ মুজিবের বাংলাদেশে সবার জীবন হবে উন্নত         অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক টি২০ জয়         এ্যাস্ট্রাজেনেকার আরও ছয় লাখ ডোজ টিকা এসেছে         বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সম্মানহানির অপচেষ্টা         প্রথম টি-২০তে অস্ট্রেলিয়াকে হতাশায় ফেলে বাংলাদেশের দারুণ জয়         করোনা ভাইরাসে আরও ২৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৭৭৬         লকডাউন ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ল         ‘জাতির পিতার এই দেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না’         ১১ আগস্ট থেকে দোকানপাট খোলা হবে         হাসপাতালে জায়গা নেই, হোটেল খুঁজছি ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী         লকডাউনের দ্বাদশ দিনে ৩৫৪ জনকে গ্রেফতার         ডেঙ্গু ॥ হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে         জাপান থেকে এলো আরও ৬ লাখ ১৭ হাজার টিকা         ভ্যাকসিন জনগণের কাছে পৌঁছে যাবে, দৌড়াতে হবে না         টিকা ছাড়া রাস্তায় বের হলেই শাস্তি         ১৪ দিনের রিমান্ডে হেলেনা জাহাঙ্গীর         খুলনা বিভাগে করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু         আধুনিক ফ্ল্যাট পেলেন বস্তির ৩০০ পরিবার         ভারতীয় টিকা 'কোভ্যাক্সিন' ॥ বাংলাদেশে ট্রায়ালের অনুমোদন         শেষ হবার আগেই ‘শেষ’ কঠোর বিধিনিষেধ