মঙ্গলবার ৩০ চৈত্র ১৪২৭, ১৩ এপ্রিল ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আঘাত এসেছে, এবার প্রতিঘাত করতে হবে

  • হেফাজতের তা-বে ক্ষতিগ্রস্ত স্থাপনা বাড়িঘর পরিদর্শন আওয়ামী লীগ নেতাদের

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ হেফাজতে ইসলামের সহিংস তা-ব ও অগ্নিসন্ত্রাসে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন স্থাপনা ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বাড়িঘর পরিদর্শন করলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। উগ্র সাম্প্রদায়িক এই অপশক্তির টার্গেটই যে ছিল আওয়ামী লীগ নেতাদের জীবনের ওপর আঘাত, তাঁদের ঘর-বাড়ি, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করা তা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রত্যক্ষ করেন কেন্দ্রীয় নেতারা।

উগ্র সাম্প্রদায়িক এই অপশক্তির এমন নৃশংসা তা-বে ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের নেতা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, আঘাত এসেছে, এবার প্রতিঘাত করতে হবে। কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে নির্দেশ দিচ্ছি- সরকারের পাশে থেকে সন্ত্রাসী কর্মকা- কঠোরভাবে দমনে প্রশাসনকে সাহায্য করতে। বুধবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামী লীগ অফিস, যুবলীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বাড়িঘর পরিদর্শন শেষে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে উপস্থিত বিপুলসংখ্যক স্থানীয় নেতাকর্মীর সামনে এবং পরে স্থানীয় একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে মাহবুব উল আলম হানিফ এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ধর্মের নামে বিএনপি-জামায়াত ও হেফাজত মিলে সারাদেশে জ্বালাও-পোড়াও-ভাংচুরের মাধ্যমে সন্ত্রাসী কর্মকা- চালাচ্ছে। এসব আর মুখ বুঝে সহ্য করা হবে না। হেফাজতে ইসলাম ধর্মের নামে কোথাও কোন অরাজকতা করার অপচেষ্টা করলে সেখানেই তাদের প্রতিরোধ করতে হবে।

এর আগে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা হেফাজতের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের মোগড়াপাড়া চৌরাস্তার প্রধান কার্যালয়, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নুর ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বাড়ি ও তাঁর শ্বশুরবাড়ি, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সোহাগ রবির বাড়ি পরিদর্শন করেন।

আলম হানিফ এমপির নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলে ছিলেন- কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্ত দাস এমপি, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ছাড়াও একেএম শামীম ওসমান এমপি, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সাবেক এমপি আবদুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সামসুল হক ভুঁইয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থপেডিক্স বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডাঃ আবু জাফর চৌধুরী বিরু, ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

পরে দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ করে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, ধর্মের নামে হেফাজত অধর্মের কাজ করছে। রিসোর্টে নারী নিয়ে ধরা পড়েছে হেফাজতের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হক। মামুনুল হককে রিসোর্ট থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে হেফাজতের নেতাকর্মীরা যেভাবে আওয়ামী লীগ অফিস এবং যুবলীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বাড়িঘরে ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ করেছে আমি তার তীব্র নিন্দা জানাই।

ক্ষতিগ্রস্ত নেতাকর্মীদের জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ দিয়ে আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, হেফাজত-বিএনপি ও জামায়াতের যেসব সন্ত্রাসী এসব ভাংচুর, জ্বালাও-পোড়াও করেছে তাদের সুনির্দিষ্ট নাম-ঠিকানা সংগ্রহ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, পরিবারের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে আসামি করে আলাদা আলাদা মামলা করুন।

তিনি আরও বলেন, যেসব ধর্ম ব্যবসায়ী ধর্মের নামে দেশে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে, তাদের প্রত্যেককে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। এসব ধর্ম ব্যবসায়ী ধর্মের নাম করে অধর্মের কাজ করছে। এদের হাত থেকে পবিত্র ধর্ম ইসলামকে রক্ষা করতে হবে। ধর্ম ব্যবসার দোহাই দিয়ে যারা ভাংচুর-জ্বালাও-পোড়াও করেছে তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগ অফিসে হামলা করা মানে সব নেতাকর্মীর বাড়িঘরে হামলা করা, তাই যারা এই কাজ করেছে কাউকে রেহাই দেয়া হবে না। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনাকালীন দুর্যোগের সময় মাস্ক পরে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দলের নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন।

তিনি বলেন, আমরা চাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ এবং উন্নয়ন-অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকুক। কিন্তু ধর্মের নাম করে অধর্মের কাজ করা, ভাংচুর করা বরদাস্ত করা হবে না। এই ঘটনায় জড়িত প্রত্যেককেই আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। আর যারা ধর্মের নামে অধর্মের কাজ করবে, তাদের হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করব। ধর্মের নামে যারাই সহিংসতা চালাবে তাদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ওরা (হেফাজত) দানবীয় অপকর্ম শুরু করেছে। এদের টার্গেট হচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী। আসলে এরা বাংলাদেশ বিরোধ, স্বাধীনতাবিরোধী। এদের বিরুদ্ধে শুধু আওয়ামী লীগ নয়, সাংবাদিক, নাগরিক সমাজ, বুদ্ধিজীবী সকলে সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। আমরা কোনভাবেই এই অপশক্তির হাতে আমার প্রিয় বাংলাদেশকে ছাড়ব না।

মামুনুলকে প্রধান আসামি করে তিনটি মামলা ॥ নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, হেফাজত কর্মী-সমর্থকদের হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় মামুনুল হককে একটি মামলায় প্রধান আসামিসহ ৪২ জনকে এজাহারভুক্ত এবং ৩ শতাধিক নামোল্লেখসহ আরও ৪ শতাধিককে অজ্ঞাতনামা আসামি করে সোনারগাঁ থানায় ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) তবিদুর রহমান। তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার রাতে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়।

শীর্ষ সংবাদ:
বিশ্ব শান্তি নিশ্চিত করা এখন চ্যালেঞ্জিং         যাক পুরাতন স্মৃতি, যাক ভুলে যাওয়া গীতি         সব অফিস বন্ধ ॥ কাল থেকে ৮ দিনের কঠোর লকডাউন         শ্রমিকদের যাতায়াতের ব্যবস্থা শিল্পকারখানাই করবে         লকডাউনে বন্ধ থাকবে ব্যাংক শেয়ারবাজার         আতিকউল্লাহ খান মাসুদের মৃত্যুতে শোক অব্যাহত         আল্লামা শফী হত্যা মামলায় ৪৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট         এলপিজি সিলিন্ডারের দাম নির্ধারণ         খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা ভাল, পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে         করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৮৩ জনের মৃত্যু         রায় পুনর্বিবেচনার আবেদনের শীঘ্রই শুনানি         লকডাউনে গরিব মানুষকে সহায়তা বড় চ্যালেঞ্জ         লকডাউনে পণ্যবাহী যান যেন যাত্রীবাহীতে রূপান্তরিত না হয়         পাহাড়ে সীমিত পরিসরে বৈসাবি উৎসব, সাংগ্রাই বাতিল         তারাবি নামাজে স্বাস্থ্যবিধি মানতে কঠোর নির্দেশনা         লকডাউনে কর্মহীন পরিবার পাবে ৫০০ টাকা         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৮৩, নতুন শনাক্ত ৭২০১         করোনা : সাতদিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক         রমজানে প্রয়োজনীয় ৬ পণ্যের দাম নির্ধারণ         এবারও হচ্ছে না মঙ্গল শোভাযাত্রা