ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ২১:২১, ৩০ ডিসেম্বর ২০২০

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ২৯ ডিসেম্বর ॥ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) বঙ্গবন্ধু পরিষদ জেলা শাখা। ‘জাতির পিতার সম্মান রাখবো মোরা অম্লান’ এ স্লোগান সামনে রেখে মঙ্গলবার সকালে শহরের চৌরাস্তায় এ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। বিএডিসি শিবগঞ্জের উপ-পরিচালক আজিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কন্টাক গ্রোয়ার্স কলেজপাড়া ঠাকুরগাঁওয়ের উপ-পরিচালক (টিসি) উজ্জল কুমার সাহা, উপ-পরিচালক শাহরুখ হোসেন, উপ-পরিচালক আমানুর রহমান, সিনিয়র সহকারী পরিচালক বিএডিসি কলেজপাড়া আফশানা শারমিন, বিএডিসি মাদারগঞ্জ- এর উপ-সহকারী পরিচালক আখতারুল ইসলাম প্রমুখ। কুষ্টিয়া নিজস্ব সংবাদদাতা কুষ্টিয়া থেকে জানান, কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসি। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে ভাংচুর করা বঙ্গবন্ধুর শেখ ভাস্কর্যের পাদদেশে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা এই ভাংচুরকে ইতিহাসের লজ্জাজনক অধ্যায় বলে উল্লেখ করে তীব্র নিন্দা জানান। পাশাপাশি এই ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান। এ সময় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের অস্তিত্বের জায়গা। বঙ্গবন্ধুকে আঘাত করা মানে বাংলাদেশকে আঘাত করা। শুধু বাংলাদেশ না, দেশের বাইরেও যখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধা সম্মানের সঙ্গে স্মরণ করা হচ্ছে, তখন এই মুজিববর্ষে এরকম ঘটনা ঘটেছে। বিএডিসিতে কর্মরত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। কুষ্টিয়ায় কর্মরতা বিএডিসির যুগ্ম পরিচালক (সার) ও বঙ্গবন্ধু পরিষদ কুষ্টিয়া অঞ্চলের আহ্বায়ক সেলিম হায়দার বলেন, ‘আমরা বাঙালী হিসেবে খুব লজ্জিত, শোকাহত। কারণ আমাদের বিজয়ের মাসে যখন আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে যাচ্ছি, ঠিক সেই সময়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের ঘটনা কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। বরং একাত্তরের স্বাধীনতা বিরোধীদের কর্মকাণ্ড। মানববন্ধনে বিএডিসি মুজিবনগর প্রকল্পের পিডি নুরুল ইসলাম, কুষ্টিয়া বিএডিসির উপপরিচালক (পাট বীজ) গোলক নাথ, উপপরিচালক (আলু বীজ) আশরাফুল ইসলাম, উপপরিচালক (বীজ বিপণন) আবু জাফর মোঃ নিয়ামত উল্লাহ, আমলা খামারের উপপরিচালক মোর্শেদুল ইসলাম ও কুষ্টিয়া উদ্যানের উপপরিচালক মনিরা খাতুনসহ বিএডিসির সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন।