সোমবার ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৩০ নভেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর কমিটি অনুমোদন

  • স্থান পেয়েছেন একঝাঁক তরুণ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ পূর্ণাঙ্গ কমিটির জন্য অপেক্ষা শেষ হচ্ছে আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর। সারাদেশে সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে সম্মেলনের প্রায় ১১ মাস পর সহযোগী সংগঠনের অধিকাংশেরই পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। সোমবার একযোগে পাঁচটি সহযোগী সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। একঝাঁক তরুণ ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা স্থান পেয়েছেন এসব সহযোগী সংগঠনে। বাদ দেয়া হয়েছে বিগত দিনে সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী এবং সুযোগসন্ধানী সাবেক নেতাদের পাশাপাশি অনুপ্রবেশকারীদের।

সম্মেলনের ১১ মাস পর সোমবার শ্রমিক লীগ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা শ্রমিক লীগ, মৎস্যজীবী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী দু’একদিনের মধ্যে বাকি আওয়ামী যুবলীগসহ বাকি সংগঠনগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে। এই সংগঠনগুলোর সম্মেলনও প্রায় এক বছর আগে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের রবিবার এক অনুষ্ঠানে বলেন, সম্মেলন হওয়া সহযোগী সংগঠনগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা পড়েছে। করোনার জন্য অনেকদিন ধরে সাংগঠনিক কার্যক্রম না চলায় এসব কমিটি করতে সময় লেগেছে। কিন্তু এখন সব সংগঠনই পূর্ণাঙ্গ কমিটি কেন্দ্রে জমা দিয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় পর্যায়ক্রমে সহযোগী সংগঠনগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।

দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর সহযোগী সংগঠনগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার উদ্যোগে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে দলটির শীর্ষ নেতারা। তাঁদের মতে, করোনার কারণে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকায় সারাদেশে তাঁরা এতদিন সাংগঠনিক কার্যক্রম চালাতে পারেননি। পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হলেই নতুন উদ্যোমে তাঁরা সারাদেশে সাংগঠনিক সফরের মাধ্যমে সংগঠনকে চাঙ্গা করে গড়ে তুলবেন, নতুন উদ্দীপনায় কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়া নেতারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে এবং বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে সংগঠনকে শক্তিশালী করে গড়ে তুলবেন।

শ্রমিক লীগ ॥ সম্মেলনের ১১ মাস পর দুটি পদ ফাঁকা রেখে ৩৩ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেছে জাতীয় শ্রমিক লীগ। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার অনুমোদন নিয়ে সোমবার এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে বলে সংগঠনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। দুটি সহসভাপতি পদ খালি রাখা হয়েছে।

গতবছর নবেম্বরে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে ফজলুল হক মন্টুকে সভাপতি এবং কেএম আযম খসরুকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সহসভাপতি হয়েছেন- কুতুব আল মান্নান (রাজশাহী), কামরুজ্জামান চুন্ন (পাটকল, যশোর), হুমায়ুন কবীর (রেল), তোফায়েল আহমেদ (মিরপুর), গফর আলী (চট্টগ্রাম), সাহাব উদ্দিন (আদমজী), মোঃ মুশিকুর রহমান (বিমান), মহসীন ভূইয়া (বিআইডব্লিউটিএ) ও আসকার ইবনে শায়েখ খাজা (ওয়াসা)। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- খান সিরাজুল ইসলাম (স্টিল), সুলতান আহমেদ (পাউবো) ও বিএম জাফর (খুলনা)।

কমিটিতে আরও রয়েছেন- সাংগঠনিক সম্পাদক কাউছার আহমেদ পলাশ (নারায়ণগঞ্জ) ও আনিছুর রহমান (জনতা ব্যাংক), প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মেহেদী হাসান (রেল), দফতর সম্পাদক এটিএম ফজলুল হক (বন শিল্প), অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ (রূপালী ব্যাংক), আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোতালেব হাওলাদার (তিতাস), শিল্প ও সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক শহীদ ডাকুয়া (বিদ্যুত), মহিলা বিষয়ক সম্পাদক প্রমীলা পোদ্দার, আইন ও দরকষাকষি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ কাজিম উদ্দিন (তিতাস), শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ লুৎফর রহমান (সোনালী ব্যাংক), ট্রেড ইউনিয়ন সমন্বয় বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ হুসাইন (জনতা ব্যাংক), তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক গাজী আজিজুর রহমান (বিদ্যুত), ক্রাফট ফেডারেশন বিষয়ক সম্পাদক বখতিয়ার উদ্দিন খান এবং ক্রীড়া ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক শেখ আলাউদ্দিন আল আজাদ মিলন (খুলনা)। এছাড়া কার্যনির্বাহী সদস্য পদে রয়েছেন- আবদুস সালাম খান, আমজাদ হোসেন (ডাক বিভাগ), নাজমুল আলম রুমেল (সিলেট), মজিবুর রহমান (ডিপিডিসি) ও সেলিম আনছারী (বীমা)।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ ॥ গত নবেম্বরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে নির্মল রঞ্জন গুহকে সভাপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা একেএম আফজালুর রহমান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়। সোমবার ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতাদের গুরুত্বপূর্ণ পদে দেখা গেছে।

এতে সহসভাপতি হয়েছেনÑগাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, ম. আবদুর রাজ্জাক, প্রকৌশলী তানভির শাকিল জয়, নির্মল চ্যাটার্জি, কাজী শহিদ্দুল্লাহ লিটন, মজিবর রহমান স্বপন, শামীম শাহরিয়ার, দেবাশীষ বিশ্বাস, সুব্রত পুরকায়স্ত, আবদুল আলীম ব্যাপারী, সালেহ মোহাম্মদ টুটুল, মোঃ নাসির, ফারুক আমজাদ খান, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন, কাজি সাহানারা ইয়াসমিন, মাহফুজা বেগম সাইদা, আবদুস সালাম, মালিক ঘোষ ও ডাঃ আসাদুজ্জামান খান রিন্টু। দুটি সহসভাপতি পদ ফাঁকা রাখা হয়েছে।

চারটি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদের একটি ফাঁকা রাখা হয়েছে। বাকি তিনজন হলেন- মোবাশ্বের চৌধুরী, একেএম আজিম ও খায়রুল হাসান জুয়েল। ৯ সাংগঠনিক সম্পাদক এসেছেন- নাফিউল করিম নাফা, আবদুল্লাহ আল সায়েম, আ ফ ম মাহবুবুল হাসান, আরিফুর রহমান টিটু, ফরিদুর রহমান ইরান, মোঃ শাহজালাল মুকুল, নুরুল ইসলাম রাজা, মেহেদী হাসান মোল্লা, আবিদ আল হাসান। প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বিটু, আজিজুল হক আজিজ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক কেএম মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল, অর্থ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম আবুল, আইন সম্পাদক ড. ওয়াহিদুজ্জামান টিপু, শিক্ষা সম্পাদক ড. মোঃ বদরুজ্জামান ভুইয়া, আন্তর্জাতিক সম্পাদক আকতার হোসেন ভুইয়া মিরন, স্বাস্থ্য সম্পাদক আলী আবরার, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ হাওলাদার, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এসএম সিহাবুজ্জামান, ত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, বন ও পরিবেশ সম্পাদক আহাম্মদ উল্লাহ জুয়েল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক কোবাদ হোসেন, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক হাসান মতিউর রহমান, কৃষি বিষয়ক সারোয়ার মোর্শেদ আকন্দ জাস্টিজ, মহিলা বিষয়ক এ্যাডভোকেট ছালমা হাই টুনি, ধর্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান ছিন্টু, ডিজিটাল আর্কাইভ সম্পাদক এমএ হান্নান, প্রশিক্ষণ ও কর্মশালা সম্পাদক সুমন জাহিদ, মানবাধিকার সম্পাদক শাহিনুর ইসলাম, শিশু ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বিটু, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা সম্পাদক ওবায়দুল হক খান, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক ফয়সল আহসান উল্লাহ, মানবসম্পদ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ, জনশক্তি ও কর্মসংস্থান সম্পাদক ইকবাল হোসেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় সম্পাদক মোস্তফা কামাল মনি, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সাকিল আহমেদ জুয়েল, প্রতিবন্ধী বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার পারভেজ টিংকু, শিল্প সম্পাদক নজিবুর রহমান নিপু, বাণিজ্য সম্পাদক আনোয়ারুল আজিম সাদেক, শ্রম সম্পাদক ইফতেখার হোসেন পলাশ, পাট ও বস্ত্র বিষয়ক সম্পাদক আশিষ কুমার সিংহ, মৎস্য ও প্রাণী সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান হেলাল, পানি সম্পদ সম্পাদক রাহুল বড়ুয়া, প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন কবির, উপপ্রচার সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব, উপদফতর সম্পাদক মনির হোসেন ও রাহুল দাস, উপগ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক খন্দকার তৌহিদুল ইসলাম সোহাগ, উপআইন সম্পাদক এ্যাডভোকেট জিসান মাহমুদ ও ব্যারিস্টার জুনায়েদ আহম্মেদ হাসিব, উপআন্তর্জাতিক সম্পাদক বরদা ভূষণ লিটন, উপস্বাস্থ্য সম্পাদক ডাঃ জয় হাজরা, উপ সমাজকল্যাণ সম্পাদক মোখলেচুর রহমান সুমন, উপত্রাণ ও দুর্যোগ সম্পাদক মুর্তুজা হায়দার শরীফ, উপবন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রাজিব মজুমদার রাজু, উপকৃষি সম্পাদক আফসারুজ্জামান, উপমহিলা বিষয়ক সম্পাদক উর্মি ঢালী, উপ ধর্মবিষয়ক সম্পাদক শ্যামল গোস্বামী, উপমুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এসএম মনিরুল ইসলাম মনি, উপ প্রশিক্ষণ সম্পাদক ওয়াহেদুল ইসলাম সজিব, উপমানবাধিকার সম্পাদক আমিনুর রহমান সোহেল, উপশিশু ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক মেহেদী শিকদার, উপগণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা সম্পাদক তানভির আকতার শিপার, উপযুব ও ক্রীড়া সম্পাদক জসিম উদ্দিন মাদবর, উপমানব সম্পদ সম্পাদক ফারুক হোসেন মুন্না, উপ স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন সম্পাদক আবদুল্লাহ হেল কাফি, উপ প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সম্পাদক ডাঃ উম্মে সালমা মুনমুন, উপ পাট ও বস্ত্র সম্পাদক তারেক মাহমুদ চৌধুরী পাপ্পু, উপ মৎস্য ও প্রাণী সম্পাদক আফরোজ হাবিব, উপ পানি সম্পদ সম্পাদক জামিল আহমেদ, উপ প্রবাসী কল্যাণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন এবং উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক শাহ আলম সিকদার জয়।

সদস্য পদে যারা স্থান পেয়েছেন তারা হলেন- সুখেন্দ্র বৈদ্য, ডাঃ আবদুস সালাম, মুর্তুজা রাশেদ, গোলাম রাব্বানী, মোদাব্বের হোসেন শাহিন, মঞ্জু মোল্লা, জাকির হোসাইন কিরন, জহুরা পারভীন জয়া, তপু গোপাল ঘোষ, হুমায়ুন পাটোয়ারি, দিপ্তিস হালদার, মশিউর রহমান, কাজী শরিফুল ইসলাম, জাহেদুল আলম জাহিদ, কামাল হোসেন, আব্দুল বাসেত গালিব, রফিকুল হায়দার চৌধুরী, আসিফ মোহাম্মদ জলি, মফিজুল ইসলাম ঢালী, নাসির উদ্দিন শিশির, জাহাঙ্গীর হোসেন বাবর, আয়মুল হাসান সুমন, রাজিবুল হাসান, ইসতিয়াক আহমেদ লিন, এনায়েত বাতেন রাসেল, দেলোয়ার হোসেন, আসগর আলী, আবুল কালাম শিকদার, আদনান সুমন, নাবিলা নুহাত চৈতী, তৈহিদুর রহমান সেলিম, শামসুদ্দিন আল মাসুদ বাবু, শাহাবুদ্দিন চঞ্চল, আবু জাফর, ডাঃ রাজিব সাহা, শাহাবুদ্দিন চঞ্চল, জেসমিন আকতার, মাশরুল আলম মিলন, জাভেদ মাসুদ, মির্জা সাফায়েত জাহান পলাশ, তাহেরুল ইসলাম তাহের, মোহাম্মদ ফয়সল, মনির হোসেন, আরিফুর রহমান আরিফ, মিজানুর রহমান, বোখারি আজম, শাহিন আহমেদ চৌধুরী, নজরুল ইসলাম মুন্সি, শহীদুল হক সুমন।

এছাড়াও ১৫ সদস্যের উপদেষ্টা কমিটির মধ্যে ১১ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। উপদেষ্টা পরিষদে যারা রয়েছেন তাঁরা হলেন- সৈয়দ নুরুল ইসলাম, গোলাম সারোয়ার, তাপস পালন, নজরুল ইসলাম মহসিন, এনাম ই খোদা জুলু, মোঃ আবু তাহের, অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম, এ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম, আশীষ কুমার মজুমদার, মোঃ নুরুজ্জামান ও মোঃ টুলু বিশ্বাস।

কৃষক লীগ ॥ সম্মেলনের ১১ মাস পর ১১১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি পেল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন কৃষক লীগ। সংগঠনের সাংগঠনিক নেত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার অনুমোদন নিয়ে সোমবার কৃষক লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত বছরের ৬ নবেম্বর কৃষক লীগের সম্মেলনে কৃষিবিদ সমীর চন্দকে সভাপতি ও উম্মে কুলসুম স্মৃতিকে সাধারণ সম্পাদক করে সংগঠনের কমিটি দেওয়া হয়েছিল। পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর সভাপতি সমীর চন্দ বলেন, ত্যাগী, পরীক্ষিত এবং নবীন-প্রবীণ সমন্বয়ে এই কমিটি করা হয়েছে।

ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা আছেন-সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি। সহসভাপতি- শরীফ আশরাফ আলী, মহাবুল-উল আলম (শাস্তি), শেখ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, আশা লতা বৈদ্য, এসএম আকবর আলী চৌধুরী, হোসনে আরা, মিয়া আবদুল ওয়াদুদ, আবদুল লতিফ তারিন, মোস্তফা কামাল চৌধুরী, ডাঃ নজরুল ইসলাম, ডিএম জয়নুল আবেদনী, এম এ মালেক, আবুল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন সুইট, এএফএম রেজাউল করিম হিরণ, মাকসুদুর রহমান।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক- বিশ্বনাথ সরকার বিটু, এ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়া, একেএম আজম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জসীম উদ্দিন, আসাদুজ্জামান বিপ্লব, ড. হাবিবুর রহমান, সৈয়দ সাগিরুজ্জামান শাকীক, নূরে আলম সিদ্দিকী হক, অধ্যাপক মো নাজমুল হক পানু ও যোগীমোঃ হিজবুল বাহার রানা। অর্থ সম্পাদক যোগীমোঃ নাজির মিয়া, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক যোগীমোঃ জিয়াউর হক নাছির, আইন বিষয়ক সম্পাদক যোগীমোঃ জহির উদ্দিন লিমন, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক শেখ ফারুক আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক যোগীমোঃ রেজাউল করিম রেজা, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শামীমা সুলতানা, সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আহসান হাবীব, কুটির শিল্প বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শাহিনুর রহমান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ. মোঃ মজিবুর রহমান মিয়াজী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শামসুদ্দিন আল আজাদ, কৃষি ও পণ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আজমল হোসেন, কৃষিঋণ পুনবার্সন বিষয়ক সম্পাদক তারিফ আনাম, পানি সেচ ও বিদ্যুত বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আব্দুর রাশেদ খান, ভূমি বিষয়ক সম্পাদক এফতেখার হোসেন দুলু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, কৃষি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম খান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রুমানা আলী টুসি, স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট উম্মে হাবিবা, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আমিরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মোসাঃ হালিমা রহমান, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মোশারেফ হোসেন আলমগীর, বেসরকারী সংস্থা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আমিরুল ইসলাম, মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলফাজ উদ্দিন, ক্ষেতমজুর বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইসাহাক আলী সরকার, সহ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক রেজাউল হক রাসেল, সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আরমান চৌধুরী, সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট রাবেয়া বেগম, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক নুরুল ইসলাম বাদশা, সহ দফতর বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ শওকত হোসেন সানু, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রাশিদা চৌধুরী, ধর্ম বিষয়ক সহ-সম্পাদক নিউ নিউ খেইন, সহ-সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক খান মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম লিটু, সহস্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক সামিউল বাসিক বিন হোসেন, সহস্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক শেখ জামাল হোসেন।

এছাড়া ৪৯ জন কার্যকরী কমিটির সদস্যে পদে যারা এসেছেন তারা হলেন- এ্যাডভোকেট মিসেস ফিরোজা চৌধুরী, কামাল উদ্দিন মোল্লা, মিয়া আবদুর রহিম, সৈয়দ কবিরুল আলম, মোশারফ হোসেন, শাহ নিজাম উদ্দিন, রেজাউল করিম, নির্মল পাল, কেশব রঞ্জন সরকার, একেএম করম আলী, সরকার আলাউদ্দিন, সৈয়দ মোখলেচুর রহমান, আবদুস সালাম বাবু, মহসীন মাখন, একেএম জাহাঙ্গীর, প্রান কৃষ্ণ দত্ত, সেরনিয়াবাত মঈন উদ্দিন আবদুল্লাহ, মোহাম্মদ দেলেয়ার হোসেন দিলু, জাহিদ হোসেন, শাহজাহান আলী, রবিউল আলম বাবু, ডা. কমল কান্তি মজুমদার, তৌফিকুর আলম তৌফিক, মাহফুজা সুলতানা, শাহজাহান মুন্সি, আলমাস খান, পার্থ সারথী দত্ত, মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা, সিরাজুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম, আরমানুল হক, আবুল খায়ের নাঈম, লুৎফুল বারী আল ওসমানি, আসাদুজ্জামান আসাদ, আতিকুর রহমান লিটন, সান্তনা চাকমা, মশিউর রহমান ইলিয়াস শরীফ, আখতারুজ্জামান শিপন, জাফর জাকির উদ্দিন আহমদ রিন্টু, এমএম মমিন ম-ল, তাহমিনা তাহেরিন মুমু, তসলিমা সিকদার, ইকবাল হোসেন, শ্যামল রায়, মিজানুর রহমান সিকদার, হুমায়ুন কবির রেজা, নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও মুহম্মদ আতিকুর রহমান চৌধুরী।

মৎস্যজীবী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ॥ মৎসজীবী লীগের সম্মেলনে সভাপতি সাইদুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয় শেখ আজগর নস্কর। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা আছেন- কার্যকরী সভাপতি মোঃ সাইফুল আলম, সহ-সভাপতি মোঃ আবুল বাশার, আব্দুল গফুর চৌকদার, মুহাম্মদ আলম, গিয়াস উদ্দিন খান, মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম, আনোয়ারুল ইসলাম, মোহাম্মদ ইউনুছ, এসএম নাছির উদ্দিন মানিক, মঞ্জুর কাদের মোহন, মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর মোছা. মমতাজ খানম, আতিকুর রহমান খান নান্নু, এহসাননুল হক চৌধুরী মিলন, নাসরিন আকতার, আব্দুল বাতেন অশ্রু।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল আলীম, রফিকুল ইসলাম খা, ফিরোজ আম্মেদ তালুকদার। অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নাছির উল্লাহ নাছির, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক কাজী মোঃ শফিউল আলম শফিক, দফতর সম্পাদক এমএইচ এনামুল হক রাজু, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক প্রফেসর মোঃ আব্দুল মতিন সরকার, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সাঈদ মজুমদার, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ তাইফুর রহমান, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার, প্রশিক্ষণ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ড. শংকর তালুকদার, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সুকমার বর্মন সৌরভ, জনশক্তি ও কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল হায়দার ভূইয়া, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. প্রভাস চন্দ্র রায়, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ বদিউল আলম বাচ্চু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মাসুদ করিম মিঠু, ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক খান মোঃ হাবীব, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট নিথিল চন্দ্র দত্ত, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সাজেদুল রহমান খান, স্বাস্থ্য ও জসনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ রুহুল আমিন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক, সমবায় ও কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আয়াতুল্লাহ, মৎস্য ও প্রানী সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শ্রী-ফনী ভূষণ মালো, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক খাদিজা পারভীন, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মোক্তার হোসেন। সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম সিদ্দিকী মামুন, মোঃ সেলিম জাহান ভূইয়া, একেএম আজিজুল হক চৌধুরী, মোঃ মাসুদুর চৌধুরী, মোঃ রাইসুল কবির দিপু, নাজমুল হক, এবি এম রসুল সিদ্দিকী রিপন, মোহাম্মদ আব্দুল গফফার কুতুবী, মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, রেজুয়ান আলী খান অর্নিক, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইউসুফ আলী বাচ্চু, উপ-দফতর সম্পাদক মোঃ গোলাম সাব্বির, উপ-মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ তাজুল ইসলাম।

২১ সহ-সম্পাদক পদে এসেছেন- অজয় তালুকদার, একেএম খলিলুর রহমান, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, দুলাল মৃধা, মাহবুব আহমেদ, মজিবর রহমান, আফজাল হোসেন ডিপটি, জেড হাসান মোহাম্মদ জিবলু, নূরে এ আলম সরকার, আবু হানিফ খোকন, শফিকুল ইসলাম জুম্মান, কনক রায়, সেগুফতা সালাম, আইয়ুব আলী খান, সৈয়দ নুরুল আমিন, মোঃ মিজানুর রহমান, আমিনুর রহমান, মমিন হোসেন মোল্লা, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মোকলেছুর রহমান।

এছাড়া ৩৫ কার্যনির্বাহী সদস্য পদে যারা এসেছেন তারা হলেন- জাকির হোসেন, শাহজাহান হালদার, নাছির আহম্মেদ, আহছান উল্লাহ, শেখ মোঃ ইমরান, নজরুল ইসলাম শামীম, উদয়ন বড়ুয়া, আবুল হোসেন সরকার, আমিনুল হক বাবলু সরকার, আইয়ুব আলী, রাজিব মুন্সি, রুবেল বাদশা, মোতালেব তালুকদার, মোল্লা শাহছুর রহমান শাহীন, এসএম লোকমান হোসেন, মোঃ ইসলাম আলী, ইএইচএসএম সরোয়ার মোর্শেদ, ইসমাইল হোসেন, মোশারফ হোসেন, আবদুস সালাম, ফজলে হোসেন ভুইয়া বিপু, কাজী মাহিদুল ইসলাম, জানে আলম সেলিম, জয়দেব বর্মণ, মিজানুর রহমান, রেজাউল মাঝি, মাজাহারুল ইসলাম মেহেদী, আবদুর রাজ্জাক শাকিল, জয়নাল আবেদীন খান, শাহাদাত হোসাইন, মাহমুদা শিউলী, নাসরিন আকতার, মঞ্জুর আলম নাহিদ, তৌহিদ হোসেন বাবু ও এস এম ইকবাল কবির।

মহিলা শ্রমিক লীগের কমিটি ॥ মহিলা শ্রমিক লীগের সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন যথাক্রমে সুরাইয়া আক্তার ও কাজী রহিমা আক্তার সাথী। ঢাকার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সম্মেলন উদ্বোধন করেছিলেন। প্রায় এক বছর তাদের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।

পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কার্যকরী সভাপতি রয়েছেন শামসুন নাহার, সহ-সভাপতি হিসেবে রয়েছেন ১১জন। তারা হলেন- সুলতানা আনোয়ারা, সৈয়দা খালেদা বেগম, খালেদা আফরোজ বিউটি, আফরোজা ফাতেমা, হেলেনা করিম, রোজিনা পারভীন, এ্যাডভোকেট নাজমা বেগম, মেহেরুন্নেসা (বিউটি), পুষ্প আক্তার (মায়া), নাসরিন আক্তার। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রয়েছেন ৩ জন। তারা হলেন- সৈয়দা খায়রুন নাহার (তামরিন), জিনাত রেহানা নাসরিন, সৈয়দা রোকেয়া আফরোজা শিখা। সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিনা আক্তার, শাহনাজ বেগম শেফালী, সৈয়দা নাসিমা আক্তার। প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোসাঃ আজরা জেবিন, দফতর সম্পাদক নুরুন নাহার বেগম, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক সোগরা খাতুন, আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক রোকসানা পারভীন রুবা, শিক্ষা, সাহিত্য ও গবেষণা সম্পাদক ফাতেমা তুজ জোহরা, আইন ও দরকষাকষি বিষয়ক সম্পাদক প্রমিলা পোদ্দার, শ্রমিক কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সাবিনা সুলতানা, ট্রেড ইউনিয়ন সমন্বয় বিষয়ক সম্পাদক সোহেলী আফরোজ, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক লুবনা নাজনিন সুলতানা, ত্রাণ ও বাসন বিষয়ক সম্পাদক সাবিনা নূর, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক তাসলিমা আকন্দ (সীমা), কার্যকরী সদস্য যথাক্রমে রুমা বেগম, মাকসুদা বেগম, ইসমত আরা খানম লিপি, সামসুন্নাহার ও নাসরিন চৌধুরী।

শীর্ষ সংবাদ:
আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় বাড়ল         ৯৯৯-এ ফোন করে মিথ্যা তথ্য দিলে শাস্তি         অক্সফোর্ডের ৩ কোটি ভ্যাকসিন বিনামূল্যে দেবে সরকার         করোনা ভাইরাসে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, ১২ সপ্তাহের মধ্যে সর্বাধিক শনাক্ত         ডিআরইউয়ের সভাপতি নোমানী, সাধারণ সম্পাদক মসিউর         মাস্ক পরাতে জরিমানায় কাজ না হলে জেলও হতে পারে         ডোপ টেস্ট ॥ চাকরি হারালেন ৮ পুলিশ সদস্য         ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ॥ দ্বি-রাষ্ট্র তত্ত্বের পক্ষেই বাংলাদেশ         ‘ভাস্কর্য নিয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য দিতে থাকলে সরকার বসে থাকবে না’         পাঠ্যক্রম থেকে ‘ইসলাম শিক্ষা’ বাদ দেয়ার তথ্য ভিত্তিহীন, গুজব         এক দশকে করদাতার সংখ্যা বেড়েছে ৩৫৭ শতাংশ         স্বীকৃতির দাবিতে আন্দোলনে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা         জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য ৬ হাজার লেকচার অনলাইনে আপলোড         সাম্প্রদায়িক অপশক্তির ধৃষ্টতাপূর্ণ হুমকির প্রতিবাদে স্বাধীনতা চত্বরে ৬০ সংগঠনের সমাবেশের ডাক         জামিন পেলেন কারাগারে বিয়ে করা ফেনীর সেই যুবক         নুরদের লালবাগের মামলার প্রতিবেদন ২০ ডিসেম্বর         সাংসদ হাজী সেলিমের স্ত্রী মারা গেছেন         করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন সিপিবি সভাপতি সেলিম         জেএমআই চেয়ারম্যানের জামিন কেন বাতিল নয়, হাইকোর্টের রুল         করোনার দ্বিতীয় ধাক্কার মধ্যেই নিউইয়র্কে খুলছে স্কুল!