ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯

সব উপনির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

প্রকাশিত: ০০:১৮, ৩০ আগস্ট ২০২০

সব উপনির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদের শূন্য হওয়া সব সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি। শনিবার রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে আজ রবিবার থেকে পাবনা-৪ আসনের উপনির্বাচনের জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করবে দলটি। নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করা হবে বলে স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী ২৬ সেপ্টেম্বর পাবনা-৪ আসনের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রবিবার বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে পাবনা-৪ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে সোমবার দুপুর ২টার মধ্যে জমা দিতে হবে। এছাড়া একই দিন সোমবার বিকেল ৫টা থেকে বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার অনুষ্ঠিত হবে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে স্কাইপিতে লন্ডন থেকে অংশ নেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এছাড়া নিজ নিজ বাসা থেকে অংশ নেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। খালেদার সঙ্গে ব্যারিস্টার খোকনের সাক্ষাত ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন তার আইনজীবী ও দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন। শনিবার রাতে খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসা ফিরোজায় গিয়ে তিনি সাক্ষাত করেন। সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে খোকন বলেন, আশা করছি সরকার খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধি করবে এবং তিনি বিদেশে গিয়ে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ পাবেন। এর আগে দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের কাছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, খালেদা জিয়ার স্বজনরা মঙ্গলবার তাঁর মুক্তির জন্য একটি আবেদন করেছে। এটি এখন আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার তাঁর মুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে লিখিত আবেদন করে।