শনিবার ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ০৪ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বন্যার পদধ্বনি

বন্যার পদধ্বনি
  • উত্তরাঞ্চলে ইতোমধ্যেই ডুবে গেছে নিচু এলাকা

সমুদ্র হক, বগুড়া অফিস ॥ উত্তরাঞ্চলে মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা- বন্যার পদধ্বনী শোনা যায়। করোনার থাবার সঙ্গে বন্যার থাবা যোগ হয়ে কী পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে এ নিয়ে ভাবনা সকলের। গত বছর জুলাইয়ের মধ্যভাগে উত্তরাঞ্চলে বড় বন্যা আঘাত করেছিল। চলতি বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই বৃষ্টির পানি ও উজানী ঢলে নদনদীর পানি বেড়ে নদীতীর ও চরগ্রামের মানুষকে শঙ্কিত করে তুলেছে। ইতোমধ্যে যমুনার নিচু এলাকার আউশ ও পাট ফসল ডুবে গেছে। লোকজন এখনই শুকনো ভূমি দেখে রাখছে। বগুড়ার যমুনা ও বাঙালী নদী তীরবর্তী সারিয়াকান্দি, ধুনট ও সোনাতলা এলাকায় নদীর পানি বাড়ছে। প্রতিদিন বৃষ্টি হচ্ছে। কখনও ভারি কখনও মাঝারি। পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জানিয়েছে যমুনা ও বাঙালী নদীর পানি এখনও বিপদসীমা অতিক্রম করেনি। তবে টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে জুনের শেষে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। আবহাওয়া বিভাগও একই সময়ে ভারি বর্ষণের আভাস দিয়েছে। পানি প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ জানিয়েছেন, উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি নির্ভর করে উজানের পাহাড়ী ঢল এবং ভারতের সেভেনসিস্টার পরিচিতি পাওয়া রাজ্যগুলোতে ভারি বর্ষণের প্রভাবে। জুনের দ্বিতীয় ভাগে ভারতের আসম মেঘালয়, সিকিম, জলপাইগুড়িতে প্রবল বৃষ্টিপাত হয়েছে। যা এখনও অব্যাহত আছে। উজানের ¯্রােতের এই ধারা প্রথমে আঘাত করছে উত্তরাঞ্চলের নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটের তিস্তায়। ইতোমধ্যে তিস্তার পানি একদফা বিপদসীমা অতিক্রম করে কমতে শুরু করেছে। পুনরায় ভারি বর্ষণে ফের বিপদসীমা অতিক্রম করবে। জল প্রবাহের এই ধারায় ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার সবগুলো এবং গঙ্গা-পদ্মা অববাহিকার নদীগুলোর পনি বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে। তবে এই বন্যা বড় না মাঝারি হবে তা এই মুহূর্তে বলা যায় না। এদিকে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, ব্রহ্মপুত্র যমুনা এবং পদ্মা অববাহিকায় নদনদীর পানি বাড়ছে। ২৬ জুন পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকবে। বর্তমানে নদীগুলোর ১০১টি পর্যবেক্ষণ পয়েন্টের মধ্যে ৬৮টিতেই পানি বেড়েছে। যে পয়েন্টগুলোর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছে। তাদের পূর্বাভাস-জুনের শেষেই রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের কয়েকটি জেলা এবং মধ্যাঞ্চলে যমুনা নদী এলাকায় বন্যা ধাক্কা দিতে পারে। যমুনার কিছু এলাকায় এখনই বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে গাইবান্ধা, বগুড়া, সিরাজগঞ্জের যমুনা তীরের এলাকা ও চরগ্রাম। এই এলাকার মাটির বাঁধগুলোও হুমকির মুখে আছে। বগুড়ার সারিয়াকান্দির কাজলার চর ধারাবর্ষা চর গ্রামের নিচু এলাকায় পানি বেড়ে ফসল ডুবেছে। ধুনটের ভা-ারবাড়ি ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে সদ্য রোপিত পাট ও আউশের আবাদ তলিয়ে গেছে। কৃষকরা বলছেন বৃষ্টির পানি কমে গিয়ে বন্যা না হলে আবাদের তেমন ক্ষতি হবে না। বড় বন্যা হলে আবাদের ক্ষতি হবে।

গলাচিপা

স্টাফ রিপোর্টার গলাচিপা থেকে জানান, পটুয়াখালী জেলার বিভিন্ন এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়িবাঁধে ব্যাপক ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে ঘূর্ণিঝড় আমফান পরবর্তী ভাঙ্গন তীব্র আকার নিয়েছে। ভাঙ্গনকবলিত এলাকা দিয়ে হু হু করে নদী ও সাগরের পানি লোকালয়ে ঢুকছে। এর ফলে কয়েকটি এলাকায় ইতোমধ্যে রবিশস্য ও আউশের যথেষ্ট ক্ষতি হয়েছে। রোপা আমনের চাষ নিয়েও আশঙ্কা বাড়ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনার মধ্যে বন্যা মোকাবেলায় মানুষ হিমশিম         পাটকল শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা পরিশোধ করা হবে         অসাধু ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে চালের দাম বাড়ছে         করোনা মোকাবেলায় এখন নজর চীনা ভ্যাকসিনে         করোনা মোকাবেলায় বহুপাক্ষিক উদ্যোগ জোরদারে গুরুত্বারোপ         ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার রায় আগস্টে         আগামী মাসে করোনা টিকা বাজারে আনবে ভারত         আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলে ভারত নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াল         দক্ষিণ সুদানে ‘বাংলাদেশ রোড’ ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছে         মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসা থামছেই না         এবার রাজধানীর ওয়ারী লকডাউন         করোনার নকল সুরক্ষা পণ্যে বাজার সয়লাব!         সুন্দরবনে বিষ প্রয়োগকারী দস্যুদের বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান শুরু         কাল থেকে ওয়ারী ‘লকডাউন’         প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ‘ডেল্টা গভর্ন্যান্স কাউন্সিল’ গঠন         সোমবার থাইল্যান্ডে নেওয়া হচ্ছে সাহারা খাতুনকে         এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে শনিবার থেকে ফের চিরুনি অভিযান ॥ আতিকুল         করোনা ভাইরাসে একদিনে আরও ৪২ মৃত্যু, শনাক্ত ৩১১৪         নিম্ন আদালতের ৪০ বিচারক সহ ২২১ জন করোনায় আক্রান্ত         সৌদি থেকে ফিরলেন ৪১৫ জন, মিসর গেলেন ১৪০ বাংলাদেশি        
//--BID Records