শনিবার ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ইমরুল কায়েসের আক্ষেপ!

ইমরুল কায়েসের আক্ষেপ!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে দীর্ঘ সময় ধরে খেলেছেন ইমরুল কায়েস। তিনি তা নিয়ে গর্ব করেন। আবার ইমরুয়ের কাছে নিজেকে দুর্ভাগাও মনে হয়েছে। তিনি যে দলে নিয়মিত হতে পারেননি। আসা-যাওয়ার মধ্যেই থাকেন।

এ নিয়ে ইমরুল বলেছেন, ‘বাংলাদেশ দলে খেলাটাকে আমি সবসময় খুব সৌভাগ্যের মনে করি; খুব গর্বের একটা কাজ মনে করি। আমার কাছে মনে হয়, খেললে আমি হিরো হয়ে যাচ্ছি, নাকি কোন্ অবস্থানে যাচ্ছি, এটা বেশি গুরুত্ব দিই না। যখন জাতীয় দলের জার্সি পরে মাঠে নামি তখন মনে হয় আমি আমার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করছি। একটা খেলোয়াড়ের কাছে এরচেয়ে বড় চাওয়া আর কিছু হতে পারে না।’

২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় ইমরুলের। গত প্রায় ১২ বছর বাংলাদেশ দলের সঙ্গে আছেন তিনি। কিন্তু ধারাবাহিক দলে জায়গা হয়নি তার। কয়েক সিরিজ পরেই বাদ পড়েন আবার দেলে ফেরেন-এভাবেই একযুগ কাটিয়ে দিয়েছেন ইমরুল। এতদিন ধরে খেললেও তাই এখনও ২০০টা আন্তর্জাতিক ম্যাচও খেলা হয়নি। তারকাখ্যাতিও তাই নেই ইমরুলের।

তারকাখ্যাতি না পাওয়ার ব্যাপারে ইমরুল মনে করেন, সবাই একরকম হতে পারে না। ভারতীয় দুই খ্যাতনামা ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকর ও বিরাট কোহলির উদাহরণ দিয়ে এই কথাটা ব্যাখা করেন তিনি। নিজের ভাগ্যও এভাবে মেনে নিয়েছেন এই ব্যাটসম্যান। ইমরুল বলেন, ‘হ্যাঁ, এখান থেকে অনেক খেলোয়াড় ভাল খেলে অনেক নাম করছে। কিন্তু দেখেন সারাবিশ্বে কত খেলোয়াড় খেলছে, তারা সবাই বড় সুপারস্টার হয় না। সবাই তো আর বিরাট কোহলি, শচীন হয় না। কিন্তু তারা সবাই জাতীয় দলে খেলে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে।’

ক্রীড়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘পাওয়ার প্লে কমিউনিকেশন্সের’ সঙ্গে সরাসরি আড্ডায় কথাগুলো বলেন এই বামহাতি ওপেনার। এই সময় একটু মন খারাপ করা কথাও বলেন ইমরুল। নিজেকে দুর্ভাগাও মনে করেন। জানান, ‘আমার হয়তো এই সময়ে ২০০ ম্যাচ হয়ে যেতে পারত, এদিক থেকে আমি একটু দুর্ভাগা।

শীর্ষ সংবাদ:
এখন অপার সম্ভাবনা ॥ এক সময়ের অবহেলিত, বঞ্চিত দক্ষিণাঞ্চল         রায়ার ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী         পেঁয়াজ আতঙ্ক কেটে গেছে, কেনার হিড়িক নেই         এটিএম জালিয়াতি কমেছে         পাত্র চাই বিজ্ঞাপন দিয়ে এক নারী হাতিয়েছে ৩০ কোটি টাকা         করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে, বেড়েছে সুস্থতা         করোনা শনাক্তে এ্যান্টিজেন ও এ্যান্টিবডি টেস্ট চালুর পরামর্শ         টিকা থেকে মাস্ক বেশি কার্যকর ॥ সিডিসি         ভারি বৃষ্টি উজানের ঢল- ধরলার পানি বিপদসীমার ওপরে         করোনা উপসর্গে ঝালকাঠিতে গৃহবধূর মৃত্যু         অপ্রতিরোধ্য গতিতে বাড়ছে মাদক পাচার, সেবন         আল্লামা আহমদ শফী আর নেই         পেঁয়াজ ভর্তি ট্রলার ভিড়েছে টেকনাফে         অর্থনৈতিক উন্নয়ন বেগবানে ৩৪ হাজার কোটি টাকার ফান্ড ঘোষণা এডিবির         করোনা ভাইরাসে আরও ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪১         করোনা ভাইরাস ॥ বিশ্বব্যাপী মৃত্যু ছাড়াল সাড়ে ৯ লাখ, আক্রান্ত ৩ কোটির বেশি         অ্যাটর্নি জেনারেলের অবস্থার অবনতি, আইসিউতে স্থানান্তর         করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় কারিগরি কমিটির ৭ পরামর্শ         বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের নয় তিনি সারা বিশ্বের সম্পদ ॥ খাদ্যমন্ত্রী         ভিডিও কলে কথা বলে কিশোরীর ইচ্ছা পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী