সোমবার ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ জুন ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আশার আলো- বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু কমছে, বাড়ছে আক্রান্ত

আশার আলো- বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু কমছে, বাড়ছে আক্রান্ত
  • যুক্তরাষ্ট্রে মানবদেহে প্রথম ভ্যাকসিন প্রয়োগ

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের কারণে মৃত্যুর সংখ্যা কমতে থাকলেও বেড়েই চলছে আক্রান্তের সংখ্যা। তবে সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের অক্লান্ত পরিশ্রমে দেশে দেশে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন। ফলে ক্রমেই স্বাভাবিক হচ্ছে জীবন ও জীবিকা। এরই মধ্যে ভাল খবর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। করোনা রোধে মানুষের ওপর ভ্যাকসিনের প্রয়োগ করল দেশটি। এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এ রোগে বিশ্বব্যাপী মারা গেছেন ৩ লাখ ২২ হাজার ৯৪৮ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯ লাখ ৫১ হাজার ৭৫২। আর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৯ লাখ ৩৭ হাজার ৪৯০ জন। খবর সিএনএন, ফক্সনিউজ, এএফপি, বিবিসি, গার্ডিয়ান, রয়টার্স, এনডিটিভি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, সৌদি গেজেট ও মিডল ইস্ট মনিটরের।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম করোনা পরীক্ষা ॥ যুক্তরাষ্ট্রে মানুষের ওপর প্রয়োগ করা প্রথম করোনাভাইরাস প্রতিষেধকের ফল আশা জাগাচ্ছে এবং মানুষের শরীর প্রত্যাশা মতো সাড়া দিচ্ছে বলে জানালেন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মডার্না। গত মার্চে আমেরিকার আট ব্যক্তির ওপর ওই প্রতিষেধকের দুটি করে ডোজ প্রয়োগ করা হয়। ওই ফলের ওপর ভিত্তি করে আশাবাদী হয়ে উঠছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রতিষেধক দেয়ায় তাদের শরীরে যে এ্যান্টিবডি তৈরি হয় তা পরীক্ষাগারে মানব কোষের ওপর পরীক্ষা করা হয়। গবেষণা ঠিকঠাক মতো হলে আগামী জানুয়ারিতে সবার হাতের নাগালে চলে যাবে এই প্রতিষেধক। মডার্নার প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ট্যাল জ্যাকস বলেছেন, ‘এটা খুবই আনন্দের সংবাদ এবং দীর্ঘ সময় ধরে এমন সংবাদের জন্য অনেকে অপেক্ষা করছে বলে আমরা মনে করি।’ এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৯১ হাজার। আর আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৫০ হাজার ৫৩৯ জন।

মহামারী বন্ধে চীনের সম্ভাব্য ওষুধ ॥ সারা বিশ্ব বর্তমানে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন উদ্ভাবনে কাজ করছে। বিভিন্ন দেশে সম্ভাব্য অনেক ওষুধের কথাও শোনা যাচ্ছে। সেগুলোর কোন কোনটা গবেষণাগারে পরীক্ষার পর্যায়ে, কোনটা এরই মধ্যে মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়েছে। এরই মধ্যে সম্ভাব্য নতুন একটি ওষুধ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা মহামারীর অবসান ঘটাতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেছে চীনের একটি গবেষণাগার। রবিবার বিজ্ঞান বিষয়ক আন্তর্জাতিক জার্নাল ‘সেল’ সম্ভাব্য নতুন এ ওষুধ বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে। গবেষকদের দাবির বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, চীনের পিকিং ইউনিভার্সিটিতে একদল বিজ্ঞানী করোনার সম্ভাব্য একটি ওষুধ উদ্ভাবনে কাজ করছেন। এটি করোনা আক্রান্তদের সেরে ওঠার সময়কাল কমানো ও শরীরে স্বল্পমেয়াদী প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলবে বলে মনে করা হচ্ছে। গবেষকদলের অন্যতম পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বেজিং এ্যাডভান্সড ইনোভেশন সেন্টার ফর জেনোমিকস’ বিভাগের পরিচালক সানে জি জানান, এরই মধ্যে প্রাণীদেহের ওপর করোনার সম্ভাব্য এ ওষুধ প্রয়োগে সাফল্য এসেছে। শীঘ্রই মানবদেহে এর প্রয়োগ শুরু করার পরিকল্পনা চলছে।

ভারতে আক্রান্ত ১ লাখ ছাড়াল ॥ দেশটিতে করোনাভাইরাসে শনাক্তের সংখ্যা এক লাখের ঘর ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে আরও ৪ হাজার ৯৭০ জনের করোনা শনাক্ত হয়। সরকারী হিসাবে মৃত্যু হয় ১৩৪ জনের। এনিয়ে এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ভারতে মৃতের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৩ হাজার ১৬৩ জনে। মঙ্গলবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানায়।

কাতার ও কুয়েতে মাস্ক না পরলে কারাদণ্ড ॥ মাস্ক না পরে ঘর থেকে বের হলে কঠোর শাস্তির ঘোষণা দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশ কাতার ও কুয়েত। এই আইন অমান্যকারীদের জেল-জরিমানার ঘোষণা দিয়েছে দেশ দুটির কর্তৃপক্ষ। কাতারে এই আইন অমান্যকারীদের তিন বছরের কারাদণ্ড দেয়া হতে পারে। আর কুয়েতে সর্বোচ্চ শাস্তি হিসেবে তিন মাসের কারাদণ্ডের কথা বলা হয়েছে। কাতারে আইন অমান্যকারীদের জন্য ৫৫ হাজার ডলার জরিমানা করা হয়েছে। আর কুয়েতে জরিমানার পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ হাজার ২০০ ডলার।

আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাজ্যকে ছাড়াল ব্রাজিল ॥ ব্রাজিলে আড়াই লাখের বেশি মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এতে যুক্তরাজ্যের মোট আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাড়াল দেশটিতে। ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নতুন করে ৬৭৪ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে, মোট মৃত্যু ১৬ হাজার ৮৫৩ জন। এ পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ১৪০ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত করেছে তারা। মোট ২ লাখ ৫৪ হাজার ২২০ জন আক্রান্ত নিয়ে তারা যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পরে।

ঘরেই ঈদের নামাজ আদায় করুন- সৌদি গ্র্যান্ড মুফতি ॥ বিশ্বের নানা প্রান্তে বসবাসকারী মুসলমানদের ঘরে ঈদের নামাজ আদায়ের আহ্বান জানিয়েছেন সৌদি আরবের গ্র্যান্ড মুফতি ও দেশটির বৈজ্ঞানিক গবেষণা কাউন্সিলের প্রধান শেখ আবদুল আজিজ আল শেখ। ব্যতিক্রমী ও জরুরী পরিস্থিতিতে ঈদের নামাজ বাড়িতে পড়া জায়েজ উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, অন্যান্য নামাজ যেমন একাই ঘরে আদায় সম্ভব, ঈদের নামাজও তেমনই আদায় করা যাবে। গ্র্যান্ড মুফতি বলেছেন, পৃথিবীর জন্য মারাত্মক এক সঙ্কটের সময় চলছে। কঠিন পরিস্থিতিতে ঘরেই ঈদ-উল ফিতরের নামাজ আদায় করা উত্তম হবে।

মসজিদে ঈদের নামাজ নিষিদ্ধ করল সিরিয়া, মিসর ও আলজিরিয়া ॥ মসজিদে গিয়ে জামাতে পবিত্র ঈদ-উল ফিতরের নামাজ আদায়ের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিরিয়ার সরকার। বাসায় বসে আত্মীয়-স্বজনদের নিয়ে আদায় করতে বলা হয়েছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ১৮ মে ধর্ম মন্ত্রণালয় এই ঘোষণা দেয়।

সাধারণ সর্দি-কাশি হলেই কোয়ারেন্টাইন ॥ দেশে একজনও করোনা রোগী নেই বলে এতদিন জোর গলায় দাবি করে আসছিল উত্তর কোরিয়া। তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা দারিদ্র্যপীড়িত দেশটি সম্ভবত সংক্রমণ শনাক্ত করতে পারছে না। আর সেখানে প্রাদুর্ভাব শুরু হলে তা ভয়াবহ প্রাণঘাতী হতে পারে। অবশেষে করোনা মোকাবেলায় উদ্যোগ নিয়েছে কিম জং উনের দেশ। হাঁপানি ও সাধারণ সর্দি-কাশির লক্ষণযুক্ত ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

শীর্ষ সংবাদ:
মাস্ক না পরে বেরুলে ৬ মাস জেল জরিমানা         মানব পাচারকারীদের গ্রেফতারে সিআইডি তদন্তে নেমেছে         ছেলেদের পেছনে ফেলে এবারও মেয়েদের জয়জয়কার         বেলজিয়ামের যুবরাজ করোনা আক্রান্ত         আকাশচুম্বী সাফল্য ॥ এসএসসির সব সূচকেই ভাল ফল         গণপরিবহন চলাচল শুরু         বাস ভাড়া শেষ পর্যন্ত ৬০ ভাগ বাড়ল         একদিনে করোনায় রেকর্ড মৃত্যু ৪০ জন, আক্রান্ত ২৫৪৫         ঝুঁকি আর শঙ্কার মধ্যেই খুলল সব অফিস         যুক্তরাষ্ট্রের ২৫ শহরে কার্ফু         তিন হাজার ২৩ প্রতিষ্ঠানের সবাই পাস, সবাই ফেল ১০৪ টিতে         বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোনেম গ্রুপের চেয়ারম্যান মোনেম খানের ইন্তেকাল         অনলাইনে ধ্রুমেলের বর্ষপূর্তির পরিবেশনা শুরু আজ         যাত্রীদের প্রায় দ্বিগুণ ভাড়া গুনতে হচ্ছে         বিদ্যুতের ভুল বিলের দায় গ্রাহকের কাঁধে         ৬ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ বৈঠকে বসছে ইসি         করোনা আক্রান্তের খবর শুনে গৃহবধূর পলায়ন         মার্কেট শপিংমল চালু হলো আতঙ্ক নিয়ে         আগামীকাল চট্টগ্রাম সিটি ও চারটি সংসদীয় আসনের ভোট বিষয়ে সিদ্ধান্ত         করোনা : স্বাস্থ্যবিধির ব্যত্যয় ঘটলে ব্যবস্থা নেয়া হবে : নৌ প্রতিমন্ত্রী        
//--BID Records