সোমবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিক্ষোভকারীদের গুলি ছোড়ার ভিডিও দিল উত্তর প্রদেশের পুলিশ

বিক্ষোভকারীদের গুলি ছোড়ার ভিডিও দিল উত্তর প্রদেশের পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক ॥ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনবিরোধী উত্তাল বিক্ষোভের মধ্যে ভারতের মীরাটে দুই ব্যক্তির পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ার ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করেছে উত্তর প্রদেশের পুলিশ।

শুক্রবার সিএএবিরোধী বিক্ষোভ থেকেই এ গুলি ছোড়া হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

ভিডিওর একটিতে নীল জ্যাকেট ও মুখোশ পরিহিত এক ব্যক্তিকে বন্দুক হাতে হাঁটাহাঁটি করতে দেখা গেছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

উত্তর প্রদেশের পুলিশ বলছে, ১৯-২১ ডিসেম্বর রাজ্যজুড়ে যে বিক্ষোভ হয়েছে, তাতে এমনই সহিংসতা প্রতিবাদকারীদের মোকাবেলা করতে হয়েছে তাদের। বাধ্য হয়ে নিতে হয়েছে পাল্টা ব্যবস্থা।

উত্তরাঞ্চলীয় এ রাজ্যটিতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-সহিংসতায় অন্তত ১৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে; নিহতদের মধ্যে ৬ জনই মীরাটের বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

নিহতদের বেশিরভাগের শরীরে গুলির চিহ্ন থাকলেও পুলিশ বলছে বিজনৌর ছাড়া তারা আর কোথাও তাজা গুলি ছোড়েনি; বিক্ষোভকারীদের থামাতে কেবল প্লাস্টিকের ছররা গুলি ও রাবার বুলেট ব্যবহার করা হয়েছে।

বিজনৌরে সংঘর্ষে ২০ বছর বয়সী এক যুবক নিহত হয়।

উত্তর প্রদেশের উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

“২১ জেলায় ছড়িয়ে পড়া সহিংসতায় ২৮৮ পুলিশ আহত হয়েছে, এদের মধ্যে ৬২ জনের জখম আগ্নেয়াস্ত্র সংক্রান্ত,” কয়েকদিন আগের এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন তিনি।

বিক্ষোভ-সহিংসতার স্থানগুলো থেকে পুলিশ নিষিদ্ধ আগ্নেয়াস্ত্রের ৫০০টি কার্তুজ উদ্ধার করেছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

সিএএবিরোধী বিক্ষোভে সরকারি সম্পত্তি বিনষ্টের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

“উত্তর প্রদেশে যারা সহিংসতা চালিয়েছে, তাদেরকে অনুরোধ করছি, আপনারা বাসায় বসে নিজেকেই প্রশ্ন করুন, ঠিক কি ভুল কাজ করেছেন। তারা (বিক্ষোভকারী) বাস এবং সরকারি সম্পদ ধ্বংস করেছে, যাতে ভবিষ্যৎ প্রজন্মেরও অধিকার আছে,” লখনৌতে অটল বিহারি বাজপেয়ী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বলেন এ বিজেপি শীর্ষ নেতা।

মোদী উত্তর প্রদেশে বিক্ষোভ দমনে ‘চমৎকার কাজ’ করায় রাজ্যটির পুলিশের প্রশংসাও করেছেন।

ভারতের নতুন এ নাগরিকত্ব আইনে প্রথমবারের মতো ধর্মকে মানদণ্ড হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার বলছে, প্রতিবেশী মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ তিন দেশ বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে নিপীড়নের শিকার হয়ে পালিয়ে ভারত চলে আসা অমুসলিমদের সুরক্ষা দিতে এ আইন ভূমিকা রাখবে।

অন্যদিকে আইনটির সমালোচকরা বলছেন, ভারতের সংখ্যালঘু মুসলমানদের কোণঠাসা করা এবং বিজেপির ‘হিন্দুত্ববাদী এজেন্ডা’ বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যেই এ আইন হয়েছে। এটি ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ সংবিধানের মূলনীতিরও লংঘন, বলছেন তারা।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে         ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্লান বোলিং সাফল্য         মিল্কি ওয়ের প্রথম ‘পালক’         সরকারী কাস্টডিতে নেই খালেদা, তিনি মুক্ত         ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ৪ ডিসেম্বর শুরু         ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থায় সারাদেশ         সাদা পোশাকে দেশে সবার ওপরে মুশফিক         সাগরে জলদস্যুতায় যাবজ্জীবন দন্ড         গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ৪১ বছর পূর্তির আয়োজন         কুয়েতে পাপুলের সাত বছরের কারাদন্ড         পাকি প্রেম দূরে রাখুন         বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         ‘মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ’         তৃতীয় ধাপের সহিংসতাহীন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে দাবি ইসির         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩         করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সতর্কবার্তা         পরিবহন সেক্টর কার নিয়ন্ত্রণে : জি এম কাদের         সংসদে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন আনা হচ্ছে শিগগিরই ॥ আইনমন্ত্রী         বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদির ৩০ কোম্পানি         আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে নগর পরিবহন চালু সম্ভব নয় : মেয়র তাপস