শনিবার ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

মিঠা পানি সংরক্ষণ না করলে ফসলের আবাদ ভেস্তে যাবে

মিঠা পানি সংরক্ষণ না করলে ফসলের আবাদ ভেস্তে যাবে

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, পটুয়াখালী ॥ সবজির গ্রামখ্যাত কুমিরমারা, এলেমপুর, মজিদপুরসহ পাঁচটি গ্রামের চাষীদের মিঠাপানি সংরক্ষণের একমাত্র পাখিমারা খালটি। নীলগঞ্জের এখালের সঙ্গে সংযোগ রয়েছে যুগীর স্লুইসের। দুই ভেন্টের এ স্লুইসটির অগ্রভাগে এখন কৃষকরা লোনা পানির প্রবেশ ঠেকাতে মাটির বাঁধ দিচ্ছেন। প্রাকৃতিকভাবে উপকূলীয় কলাপাড়ার জনপদের সাগর নদীর পানি লবনাক্ত হয়ে ওঠে। যে কারণে লোনা পানির প্রবেশ ঠেকাতে স্লুইস গেটের সামনে বাঁধ দিতে হয়। ফলে অভ্যন্তরের খালের মিঠা পানি সংরক্ষণ করা সম্ভব হয়। এ পানি কৃষকরা শীতকালীন সবজি ছাড়াও বোরো ধানের আবাদ করে থাকে। কুমিরমারা গ্রামের কৃষক সুলতান গাজী জানান, কার্তিক মাসে পানি লোনা হয়, থাকে আষাঢ় মাস পর্যন্ত। এরপরে আবার পানি মিঠা হয়ে যায়। এ কৃষক জানান, প্রতি বছরের মতো এবছরও তাদের নিজকাটা, নবীপুর ও টুঙ্গিবাড়িয়ার স্লূইসের সামনে বাঁধ দেয়া লাগবে। তারা চাঁদা তুলে বাঁধ দিয়ে আসছেন। তবে ইউএনও মো. মুনিবুর রহমান তাদের কিছু টাকা দিয়ে সহায়তা করেছেন। বালিয়াতলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবিএম হুমায়ুন কবির জানান, অন্ততপক্ষে তার এলাকার আমতলীর স্লুইস, পক্ষিয়াপাড়া ও উত্তর পক্ষিয়াপাড়ার স্লুইসখালের অগ্রভাগে বাঁধ দেয়া প্রয়োজন। লতাচাপলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, তিনি নিজের অর্থায়নে কৃষকের স্বার্থে পাঁচটি স্ল্ইুসখালের অগ্রভাগে বাঁধ দিয়েছেন। এখনও খাজুরা, মাইটভাঙ্গা ও লক্ষ্মীর স্লুইস খালের অগ্রভাগে লোনা পানির প্রবেশ ঠেকাতে বাঁধ দেয়া প্রয়োজন। এভাবে দুইটি পৌরসভাসহ ১২ টি ইউনিয়নের অন্তত ৫০টি স্লুইস সংযুক্ত খালের অগ্রভাগে বাঁধ দিয়ে লোনা পানির প্রবেশ ঠেকানো জরুরি প্রয়োজন। নইলে রবিশস্য আবাদসহ বোরোর আবাদ ভেস্তে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান জানান, কৃষকের স্বার্থে যেসব স্লুইস সংযুক্ত খালে মিঠা পানির সংরক্ষণ করা দরকার তার একটি তালিকা চুড়ান্ত করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মুনিবুর রহমান জানান, কৃষকের স্বার্থে মিঠা পানি সংরক্ষণে সকল ধরনের সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। এ সংক্রান্ত একটি কমিটি গঠণ করা হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী খান মোঃ ওয়ালিউজ্জামান জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ড শুধুমাত্র স্লুইস রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করে। এছাড়া বেড়িবাঁধ রক্ষণাবেক্ষনের কাজ করে আসছে। বাঁধ দেয়ার সুযোগ নেই।

শীর্ষ সংবাদ:
হাওড়ে মরণ ফাঁদ ॥ অরক্ষিত নৌ পরিবহন ব্যবস্থা         বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী আজ         অশুভ চক্র গুজব রটনা ও অপপ্রচারে লিপ্ত ॥ কাদের         সিনহা হত্যায় জড়িত কেউই ছাড় পাবে না ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         দেশে করোনা আক্রান্ত আড়াই লাখ ছাড়িয়েছে         যুক্তরাষ্ট্রে ফের রেকর্ড মৃত্যুর ঘটনা         সিনহাকে হত্যার কারণ এখনও অনুদ্ঘাটিত         রাজধানীতে গাড়ির ধাক্কায় পর্বতারোহী রেশমার মৃত্যু         বৃষ্টি ও জোয়ারে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি         করোনায় চবি শিক্ষকের মৃত্যু ॥ নতুন আক্রান্ত ১২৮         কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌপথে ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি         ই-কমার্স কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক কর্মকান্ড গতিশীল করেছে         মুজিব-বর্ষে বঙ্গবন্ধুর খুনীদের আরও একজনকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের সম্মুখীন করব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         সিনহা নিহতের ঘটনায় কাউকেই ছাড় নয় ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে দ্রুত         চার নাইজেরিয়ানসহ প্রতারক চক্রের ৫ সদস্য আটক         রাজধানীতে প্রাইভেটকার চাপায় পর্বতারোহী রেশমা নিহত         করোনা ভাইরাসে আরও ২৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই লাখ ছাড়াল         শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে গুজব রটিয়ে লাভ হবে না ॥ কাদের         জেকেজিকে সহায়তা করেও আসামি নন সাবেক স্বাস্থ্য ডিজি !        
//--BID Records