শনিবার ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৮ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সারাদেশে নৌধর্মঘট চলছে

সারাদেশে নৌধর্মঘট চলছে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ নদীপথে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকা, খোরাকি ভাতা ফ্রি করা, কথায় কথায় শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ, নৌপথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি বন্ধসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে সারাদেশে একযোগে নৌ ধর্মঘট চলছে। মঙ্গলবার বিকালে নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাড়ায় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ জাহাজি শ্রমিক ফেডারেশনের অন্তর্ভুক্ত বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের জেলা শাখার মানববন্ধন থেকে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

আজ বুধবার সকালে বরিশাল নদীবন্দর থেকে অভ্যন্তরীণ বা দূরপাল্লার রুটের কোনো নৌযান ছেড়ে যায়নি বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতা হাশেম আলী। এদিকে নৌ ধর্মঘটের ফলে যাত্রীদের ব্যাপক ভোগান্তি লক্ষ্য করা গেছে বরিশাল নদীবন্দরে।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য লাগাতার কর্মবিরতিতে নামছেন নৌযান শ্রমিকরা। বাংলাদেশ নৌশ্রমিক ফেডারেশনের ডাকে শ্রমিকদের এ কর্মসূচী দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের বরিশালের সভাপতি হাশেম আলী।

তিনি আরও জানান, এর আগে ১৫ এপ্রিল ১৫ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে নৌ ধর্মঘট ডাকা হলে ৪৫ দিনের মধ্যে দাবি পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তা বাস্তবায়ন করা হয়নি। তাই ফের ১১ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ধর্মঘট ডাকা হয়েছে বলে তিনি জানান।

ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি শাহ আলম বলেন, গত ২০ জুলাই সভা করে ২৩ জুলাই রাত ১২টা থেকে সারাদেশে অবিরাম শ্রমিক ধর্মঘট করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এর পেছনের কারণ হিসেবে তিনি বলেন, গত ১৫ এপ্রিল ১৫ দফা আদায়ে ধর্মঘট শুরু হয়েছিল। ধর্মঘটের প্রথম দিন শ্রমিক অধিদফতর, মালিক ও শ্রমিক পক্ষ ত্রিপক্ষীয় বৈঠক করে দাবিগুলো বাস্তবায়নে ৪৫ দিনের সময় নেয় নৌযান মালিকপক্ষ।

‘তাদের আশ্বাসে ওই দিন ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়। কিন্ত এ পর্যন্ত একটি দাবিও বাস্তবায়ন করেননি মালিকরা। তাই ফের ধর্মঘট ডাকা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, গত ২০ জুলাই ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত হয়। এ কথা জানার পরও এই তিন দিনে মালিকপক্ষ থেকে কোনোরকম পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। এ পর্যন্ত শ্রম অধিদফতর ও নৌযান মালিক সংগঠন সমঝোতার কোনো উদ্যোগও নেয়নি। এ কারণে শ্রমিকরা ধর্মঘটের ডাক দিতে বাধ্য হয়েছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
মির্জাপুরে দুই মোটরসাইকেল আরোহীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার         কাল থেকে শুরু হচ্ছে একাদশে ভর্তি আবেদন         বঙ্গমাতা ছিলেন জাতির পিতার যোগ্য ও বিশ্বস্ত সহচর ॥ প্রধানমন্ত্রী         বঙ্গমাতা ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সার্বক্ষণিক রাজনৈতিক সহযোদ্ধা॥ সেতুমন্ত্রী         চুয়াডাঙ্গায় নৈশকোচের ধাক্কায় নিহত পাঁচ         বঙ্গমাতা নিরবে নিভৃতে বাঙালী জাতির স্বাধীনতার জন্য কাজ করে গেছেন॥ তাপস         বঙ্গমাতার জন্মদিনে ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা         ভারতে কারাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন তাবলিগের ১৪ সদস্য         ১২ অগস্ট আসছে বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন         রোনালদোর জোড়া গোলেও বেজে গেলো জুভেন্টাসের বিদায়ঘণ্টা         বিধ্বস্ত বিমানের ককপিটে ছিলেন স্বর্ণ পদক পাওয়া পাইলট         লাদাখে নতুন করে ভারত-চীনের উত্তেজনা         নড়াইলে মাশরাফির পিতা-মাতাসহ ২১ জনের করোনা শনাক্ত         গত ১৭ বছরের মধ্যে ব্রিটেনের তাপমাত্রা সর্বোচ্চ         চীন-আমেরিকা যুদ্ধ এখন আর অসম্ভব বিষয় নয় ॥ অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী         যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি টিকটকের         করোনা মোকাবিলায় আদর্শ নিউজিল্যান্ড-ডেনমার্ক-উগান্ডা         বৈরুতে যেভাবে পৌঁছায় ভয়াবহ বিস্ফোরকের চালান         হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা        
//--BID Records