শুক্রবার ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

বিপন্নের পথে তক্ষক

মানুষের মধ্যেই বাস। আড়ালে থাকে। দেখতে অনেকটা বড় টিকটিকির মতো। তবে টিকটিকি নয়। গায়ের রং সাদাটে ধূসরের মধ্যে হালকা ডোরাকাটা নয়। টিকটিকিটিক করে ডাকেও না। গ্রামে ও শহরে কখনও কখনও কারও দৃষ্টিতে এলে বলা হয় ‘বিলাতি টিকটিকি’। বলার কারণ : ওদের গোটা শরীর সাদাটের মধ্যে লাল ও গোলাপি ফোঁটা। প্রাণীটির নাম ‘তক্ষক’। কাব্য সাহিত্যে এই নামে অনেক উপমা আছে। দক্ষিণ এশিয়ার প্রকৃতির সৌন্দর্যের এই ছোট প্রাণীটি নিধন ও পাচারের থাবায় বিপন্ন হওয়ার পথে।

এমন একটি প্রাণী বগুড়া বাংলাদেশ ব্যাংক স্টাফ কোয়ার্টারে উপপরিচালক মাহবুবের ফ্ল্যাটের কোনায় চোখে পড়ে। তিনি খবর দেন সরকারী আজিজুল হক কলেজের পরিবেশবাদী সংগঠন টিম ফর এনার্জি এ্যান্ড ইনভায়রনমেন্ট রিসার্চের (তীর) সভাপতি মোঃ আরাফাত রহমানকে। এরপর খবর দেয়া হয় বন বিভাগকে। তারপর সামাজিক বন বিভাগের ফরেস্টার তোফাজ্জল হোসেন গিয়ে প্রাণীটিকে চিহ্নিত করেন। বিলুপ্তের পথে যাওয়া তক্ষক প্রাণীটি উদ্ধার করে অবমুক্ত করা হয়।

প্রাণীটির ইংরেজী নাম টোকাই গেককো। গেক্কো নিডি গোত্রের প্রাণীটির আবাস দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে। প্রজাতিটি গিরগিটি নামেও পরিচিতি পেয়েছে। পিঠের ফোঁটাগুলো নানা রঙের। পাশাপাশি কয়েকটি সারিতে বিন্যস্ত। সাদা রঙের বলয়। লেজ কিছুটা নীল। মাথা শরীরের অনুপাতে বড়। নাকের ডগা চোখা ও ভোঁতা। চোখ বড়। মণি ফালি গড়নের। লেজ সামান্য নোয়ানো। শরীরের দৈর্ঘ্য যত লেজের দৈর্ঘ্য প্রায় ততটা। অনেকে ভুল করে প্রাণীটিকে সরিসৃপ মনে করে। অতি উৎসাহীরা মেরেও ফেলে।

দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ, ভারত, মিয়ানমার, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, লাওস, কম্পুচিয়া, চীন, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপিন্সসহ কয়েকটি দেশে ৬শ’ প্রজাতির তক্ষকের সন্ধান পাওয়া যায়। তবে বাংলাদেশে দুই প্রজাতির তক্ষক মিলেছে। আরও হয়তো আছে, তবে সেগুলো লুকিয়ে আছে। এরা তক্ক তক তক্কা করে কয়েকবার ডাকে। দূর থেকে শোনা যায়। এদের শ্রবণশক্তি বেশি। কেউ মনে করে এমন তক্কা তক্কা ডাকের জন্য নাম হয়েছে তক্ষক। দেখতে সুন্দর এই প্রাণীটির বাস মানুষেরই সঙ্গে। ছাদের ফাঁকে, কার্নিশে, কোনায়, কোন ফাঁকফোকরে এরা চলাচল করে। দিনে খুব কম দেখা মেলে। জঙ্গলের গাছের শাখায় ও কখনও গর্তেও থাকে। এরা খুবই লাজুক প্রকৃতির। টিকটিকির যেমন অবাধ বিচরণ এদের তেমন নয়। তক্ষক অনেকটা বড় হওয়ায় এরা নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে থাকে। এদের দৈর্ঘ্য ১৫ থেকে ৩৫ সেন্টিমিটার (৫ থেকে ১৪ ইঞ্চি)। শরীর গোলবৃত্তীয়। স্ত্রী তক্ষকের চেয়ে পুরুষ তক্ষক বেশি উজ্জ্বল ও সুন্দর। যে কারণে স্ত্রী তক্ষক পুরুষ তক্ষকের পিছনে ঘুরঘুর করে। বায়োলজিক্যালি এরা ডিমরফিক বা দ্বিরুপচারী। এদের চোয়াল খুব শক্ত। কীটপতঙ্গ ছোট পাখি, ছোট সাপ, কখনও ঘরের টিকটিকিও খায়। দূর অতীতে সুন্দর প্রাণী হিসেবেই এদের বাস ছিল। গত শতকের মধ্যভাগে এই প্রাণীর ওপর নির্মম খড়গ নেমে আসে। পাচারকারীরা তক্ষককে চড়া দামে বেচতে শুরু করে। বলা হয় এদের চামড়া ওষুধ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। ওয়াইল্ড লাইফ থেকে জানা যায় ফিলিপাইনে তক্ষক নিধন ও পাচার শুরু হলে ওই দেশের সরকার তা প্রতিরোধে আইন প্রণয়ন করে। যে আইনে তক্ষক শিকার ও পাচারকারী ধরা পড়লে দশ লাখ ফিলিপিন মুদ্রা জরিমানা ও কারাদ-ের বিধান আছে। ভিয়েতনামে তক্ষক শিকার করলে কারাদন্ড সহ লক্ষ ডলার জরিমানা করা হয়। আন্তঃজাল (ইন্টারনেট) ঘেঁটে জানা যায় চীন এই প্রাণীটি বিভিন্ন দেশ থেকে সংগ্রহ করে। ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন) জানায় তক্ষক প্রাণীটিকে রক্ষার জন্য তারা বিশ্বের সকল দেশের কাছে আহ্বান জানিয়েছে। বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা রোধে বিশ্ব এখন সোচ্চার। পরিবেশবিদ ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের প্রতিষ্ঠানগুলো যে প্রাণীগুলো খুব কম দেখতে পাওয়া যাচ্ছে তা রক্ষায় বড় ভূমিকা পালন করছে। বাংলাদেশের প্রতিটি এলাকায় এই প্রাণীটির বিচরণ আছে। সহসা কেউ এদের দেখতে পায় না। তক্ষক দৃষ্টিসীমার বাইরেই থাকতে চায়। এদের প্রজননকাল আছে। একটি স্ত্রী তক্ষক প্রতিবার এক থেকে তিনটি ডিম দিতে পারে। এদের সংখ্যা কমে গেলে প্রজননের মাধ্যমে সংরক্ষণের কথাও বলা হচ্ছে।

-সমুদ্র হক, বগুড়া থেকে

শীর্ষ সংবাদ:
যে অপরাধ করবে তাকেই শাস্তি পেতে হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ একটি মাইলফলক : সেতুমন্ত্রী         ইভিএম পদ্ধতির ভুল প্রমান করতে পারলে পুরস্কৃত করা হবে ॥ ইসি আহসান হাবিব         অভিবাসীদের জীবন বাঁচাতে প্রচেষ্টা বাড়াতে হবে         অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা সাঈদী রিমান্ডে ॥ জোবায়েরের জামিন         ইসলাম বিদ্বেষ, নারী বিদ্বেষকে ঘুষি মেরে বক্সিং-এ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জারিন         স্ত্রীর কবরের পাশে চিরশায়িত হবেন আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী         শিগগিরই সব দলের সঙ্গে সংলাপ : সিইসি         চাঁদপুরে ট্রাক-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের দুই পরীক্ষার্থী নিহত         তীব্র জ্বালানি সংকটে শ্রীলঙ্কায় স্কুল ও অফিস বন্ধ         মঠবাড়িয়ায় যাত্রীবাহী বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ২         নগর ভবনে দরপত্র জমা দেওয়ার চেষ্টা         রাজধানীর বাজারে প্রায় সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি         শনিবার গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়         আজ ২০ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘পাপ-পুণ্য’         সারাদেশে চলছে ভোটার তালিকার হালনাগাদ         দৌলতখানে বাবা-ছেলে চেয়ারম্যান প্রার্থী         হাইকোর্টের নির্দেশে ভারতে অবৈধ ভাবে নেওয়া চাকরি হারালেন মন্ত্রী কন্যা         আফগানিস্তানে নারী উপস্থাপকদের অবশ্যই মুখ ঢাকতে হবে, নির্দেশ তালিবানের         শাহজালালে ৯৩ লাখ টাকার স্বর্ণসহ যাত্রী আটক