ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

রাজশাহীতে চেক জালিয়াতি মামলায় স্কুলশিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশিত: ০৯:৩২, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

  রাজশাহীতে চেক জালিয়াতি মামলায় স্কুলশিক্ষক গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ চারঘাটে চেক জালিয়াতির দুটি মামলায় উপজেলার নিমপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ইমদাদুল হক নিমপাড়া গ্রামের আতাহার আলীর ছেলে। শনিবার রাতে তাকে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। গত ৩০ ডিসেম্বর রাজশাহীর আদালতে রায় ঘোষণার পর থেকে ওই শিক্ষক পলাতক ছিলেন। রবিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ সূত্র জানায়, উপজেলার বাসুপাড়া গ্রামের অঙ্গজিত কুমার প্রামাণিকের মেয়ে জামাই অমর কুমার ও একই উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম ওরফে মাহাবুর রহমানের স্ত্রী লিলি খাতুনকে চাকরি দেয়ার নাম করে প্রায় ২৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন ওই শিক্ষক। ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করে প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক তাদের কাছে থেকে এই বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়। এরপর দুজনেরই নিয়োগপত্র ভুয়া প্রমাণ হলে তাদের কাছ থেকে নেয়া টাকা ফেরত চায় ওই দুজন শিক্ষক। পরে সোনালী ব্যাংক চারঘাট শাখার অনুকূলে অঙ্গজিত কুমারকে ১০ লাখ টাকা ও রফিকুলকে ১২ লাখ টাকার চেক প্রদান করেন প্রধান শিক্ষক ইমদাদুল হক। চেক প্রদানের পরেও শিক্ষক ইমদাদুল হকের এ্যাকাউন্টে কোন টাকা জমা না হওয়ায় চেক দুটি ডিজঅনার হয়। পরে অঙ্গজিত ও রফিকুল বাদী হয়ে আদালতে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন। এরপর আদালত অঙ্গজিতের মামলায় ২০ লাখ টাকা জরিমানা ও এক বছরের সাজাভোগ এবং রফিকুল ইসলামের মামলায় ১৩ লাখ টাকা জরিমানা ও ১ বছরের সাজা ভোগের আদেশ দেন। এরপর থেকেই পলাতক ছিলেন তিনি।
×