ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রামে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ০৭:০৪, ২৯ জুলাই ২০১৮

চট্টগ্রামে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বহুজাতিক ওষুধ কোম্পানি গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন (জিএসকে) আকস্মিক বাংলাদেশে তাদের ওষুধ উৎপাদন ও বিপণন কার্যক্রম বন্ধ করার ঘোষণার পর কোম্পানির সর্বস্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার লোকসান গুনতে হচ্ছে ঘোষণা দিয়ে এটি বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়। ঘটনার পর থেকে চট্টগ্রামে ফৌজদারহাট এলাকায় প্রতিষ্ঠিত এই অফিস প্রাঙ্গণে কর্মকর্তা কর্মচারীরা বিক্ষোভ শুরু করে। কারখানার মূল ফটকে তালা লাগিয়ে দিয়ে তারা বিক্ষোভ শুরু করে। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক এই কোম্পানিটি স্বাধীনতা অব্যবহিত পর সময় থেকে চট্টগ্রামে বিভিন্ন ক্যাটাগরির ওষুধ উৎপাদন করে আসছে। বিক্ষোভরতদের মতে, দেশী বিদেশী আন্তর্জাতিক চক্রান্তের শিকার হয়ে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তাদের মতে, এটি লোকসানি কোন প্রতিষ্ঠান নয়। এটি বন্ধ ঘোষণার নেপথ্যে চক্রান্ত রয়েছে। সহ¯্রাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রাপ্য না দিয়ে এটিকে বন্ধ ঘোষণা সম্পূর্ণ বেআইনী। কর্মকর্তাদের বিভিন্ন সূত্রে বলা হয়েছে, লোকসানি কোন স্টেটমেন্ট এরা প্রকাশ করেনি। অথচ, ঘোষণায় বলা হয়েছে লোকসানের কথা। জিএসকে এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ ইলিয়াস হোসেন জানিয়েছেন, এটি একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠান। ২০১৭ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরে এ কোম্পানির মুনাফা হয়েছে সাড়ে ৩শ’ কোটি টাকারও বেশি। এই কোম্পানিতে সরকারী মালিকানাধীন বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ১৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। প্রসঙ্গত, বাণিজ্যিক লোকসান দেখিয়ে জিএসকের পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঘোষণা দেয়া হয়, কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে ফার্মাসিউটিক্যাল বিজনেস ইউনিটের সকল উৎপাদন ও বাণিজ্যিক কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে কোম্পানির কনজুমার হেলথ্ কেয়ার ব্যবসা অব্যাহত থাকবে। ১৯৭৪ সালে এই কোম্পানি বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর পুঁজি বাজারে আসে ১৯৭৬ সালে।
monarchmart
monarchmart