বৃহস্পতিবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কলাপাড়ায় মাদক ডনরা ধরাছোঁয়ার বাইরে

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ৩০ মে ॥ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ অভিযানে এ কয়দিনে কলাপাড়ায় অন্তত ৩২ জন মাদক সেবন ও সরবরাহকারী গ্রেফতার হলেও ধরা পড়েনি কোন গডফাদার। ফলে পটুয়াখালীর সাগরপাড়ের জনপদ কলাপাড়ায় মাদকের ভয়াল আগ্রাসনে স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা শঙ্কিত রয়েছেন। ইয়াবা-গাঁজার স্বর্গরাজ্যে পরিণত হওয়া কলাপাড়ার শহর কিংবা গ্রাম এমন কোন জনপদ নেই যেখানে মাদকের ছোবল হানা দেয়নি। মাদকের অর্থ সংগ্রহে বাড়ছে ছিনতাইসহ চাঁদাবাজি। পুলিশ-র‌্যাবসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা মাদক নিয়ন্ত্রণে কঠোর অভিযানে ইতোপূর্বেও মাসে প্রায় অর্ধশত বিক্রেতাসহ সেবনকারী গ্রেফতার হয়। কিন্তু এর নিয়ন্ত্রক গডফাদাররা ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকায় মাদকের ছোবল থামছে না। মাদকের ভয়াল গ্রাস রোধে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানরা জোরাল বক্তব্য দিচ্ছেন। সড়কের পাশাপাশি বর্তমানে ইয়াবাসহ মাদকের নতুন রুট হচ্ছে সাগরপথ। আলীপুর-মহীপুরে মাছ ধরার ট্রলারে কক্সবাজারসহ বিভিন্ন এলাকার একটি সংঘবদ্ধচক্র স্থানীয় গডফাদারদের প্রত্যক্ষ শেল্টারে ইয়াবার কারবার চলছে। মাদক নির্মূলে পেশাদার চোলাইমদ উৎপাদনকারী রাখাইনচক্রের মহিলাসহ চারজনকেও পুলিশ গ্রেফতার করে বিপুল পরিমাণ মদ জব্দ করে।

পূর্ণ সফলতা না এলেও এই অভিযানে সাধারণ মানুষকে কিছুটা স্বস্তি এনে দিয়েছে। সম্প্রতি আলীপুর বন্দর থেকে ৩৯৫০ ইয়াবাসহ ফাতেমা আক্তার সানজিদাকে (২৭) পুলিশ গ্রেফতার করার পরে এ তথ্য বেরিয়ে আসছে। ফাতেমার দেয়া তথ্যমতে ইয়াবা পাচারের হোতা চিটাগাংয়ের এক ট্রলার মাঝি আবুল হোসেন। আবুল হোসেন ও ফাতেমার বাড়ি কক্সবাজার হলেও তারা দীর্ঘদিন আলীপুর বন্দরে বসবাস করে আসছে। ফাতেমার স্বামীর নাম সৈয়দ হোসেন। তারা আলীপুরের ব্যবসায়ী পান্না মোল্লার বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করে আসছে। সৈয়দ হোসেন একটি বোটের জেলে। পুলিশ-র‌্যাবসহ বিভিন্ন সংস্থার হাতে এ পর্যন্ত যারা আটক হয়ে ইয়াবাসহ মাদক বিক্রেতা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে তারা হচ্ছে লতাচাপলীর খাজুরা গ্রামের হাসান ও তার বাবা হাবিব মুন্সী। নয়াকাটা গ্রামের মামুন। আলীপুরের ইয়াবা স¤্রাজ্ঞী ফাতেমা। ভাড়াটে হোন্ডাচালক ইউসুফ ও তার বাবা কাশেম মাঝি। মহিপুরের বিপিনপুর গ্রামের ইসমাইল সিকদার। ফুলতলী বাজারের অপু ও সজল। কমরপুরের ইমরান বয়াতি। নজিবপুরের তানভির। কলাপাড়া পৌরসভার রহমতপুরের রিয়ামনি ও আব্দুর রাজ্জাক দম্পতি। কুয়াকাটার শাহীন আলম, বাণিজ্যিক ফটোগ্রাফার নাসির ও আমির ঘরামি। লালুয়ার কলাপাড়ার মন্নান মুন্সী। হাড়িপাড়ার রাখাইন নিপু। মিঠাগঞ্জের রোজিনা বেগম ও ফেরদৌস দম্পতি। কলাপাড়ার অটোচালক জাহাঙ্গীর। মহিপুরের সুমন হাওলাদার। মরিচবুনিয়ার ইলিয়াস তালুকদার। চম্পাপুরের রুবেল হাওলাদার।

শীর্ষ সংবাদ:
গণমুখী প্রশাসন ॥ স্বাধীনতার ৫০ বছরে বড় অর্জন         ছাত্রদের কাজ লেখাপড়া, রাস্তায় নেমে যান ভাংচুর নয়         উন্নয়নে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলেছে বাংলাদেশ         ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নেতৃত্বের ভূমিকায় থাকবে         ১১ খাতে বিপুল বিনিয়োগ আসার সম্ভাবনা         ঐতিহাসিক পার্বত্য শান্তি চুক্তিতে বদলে গেছে পাহাড়         রামপুরায় ছাত্র বিক্ষোভ, মতিঝিলে গাড়ি ভাংচুর         দেশের প্রথম বর্জ্য বিদ্যুত কেন্দ্র অবশেষে বাস্তবায়ন হচ্ছে         বাল্যবিয়ে রোধে কাজীদের সচেতন করতে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে         হত্যা মিশনে ব্যবহৃত গুলি-অস্ত্র উদ্ধার         শ্রদ্ধা ভালবাসায় জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের চিরবিদায়         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাজ শুরু         খালেদা জিয়াকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার ॥ ফখরুল         মুক্তিপণের টাকা আদায় হচ্ছিল মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে         সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে লাল সবুজের মহোৎসবে মুখরিত হাতিরঝিল         ৯০ কার্যদিবসে সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা নিষ্পত্তি করতে হবে         এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষা উপলক্ষে যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ডিএমপি         আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমলে ব্যবস্থা নেবো : অর্থমন্ত্রী         হৃদরোগ ঝুঁকি হ্রাসে সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু