ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

গাজীপুরে ভেজাল খাদ্য উৎপাদনের দায়ে চারজনের কারাদন্ড

প্রকাশিত: ০৬:১১, ৩০ মার্চ ২০১৮

গাজীপুরে ভেজাল খাদ্য  উৎপাদনের দায়ে চারজনের  কারাদন্ড

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ গাজীপুরে ভেজাল সরিষার তেল, এনার্জি ড্রিংকস, ম্যাংগো জুসসহ বিভিন্ন ভেজাল খাদ্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রির দায়ে এখানে চারজনকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। রায়ে একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেক আসামিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাস করে সশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার গাজীপুর সিনিয়র স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল’র বিচারক একেএম এনামুল হক ওই রায় দেন। দন্ডিতরা হলো- জয়দেবপুর থানাধীন ছয়দানা এলাকার মোঃ আব্দুল গফুরের ছেলে মোঃ মাসুদ (৩০), একই থানাধীন ডেগেরচালার আব্দুল মালেকের ছেলে মোঃ আলম হোসেন (৩০) ও মোঃ শাহ আলম (২৬) এবং জাজর এলাকার মোঃ শওকত হোসেনের ছেলে মোঃ নাহিদ হাসান (২৮)। রায় ঘোষণার সময় আলম হোসেন ছাড়া অন্যরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আদালতের পরিদর্শক মোঃ রবিউল ইসলাম জানান, জয়দেবপুর থানাধীন ডেগেরচালা এলাকায় এসিএল বেভারেজ এ্যান্ড ফুড লিমিটেড নাম দিয়ে একটি কারখানায় ভেজাল সরিষার তেল, লায়ন ম্যাংগো জুস ও এনার্জি ড্রিংকসসহ ভেজাল খাদ্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রি করে আসছিল। এ খবর পেয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ২০১১ সালের ৯ এপ্রিল অভিযান চালিয়ে কারখানার সামনে থেকে ওই চার জনকে আটক করে এবং কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ ভেজাল পণ্যও অন্যান্য মালামাল জব্দ করে। আটকরা ভেজাল জুস, ড্রিংকস ও তেল উৎপাদনের কথা স্বীকার করেছে। এ সংক্রান্ত বৈধ কোন কাগজ দেখাতে তারা ব্যর্থ হয়। এ বিষয়ে এসআই জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে তদন্ত কর্মকর্তা ৫ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করে। আদালতে দীর্ঘ শুনানির পর আসামিরা ১৯৭৪ সালের স্পেশাল পাওয়ার এ্যাক্ট-এর ২৫সি (১) ধারায় অভিযুক্তদের মধ্যে চারজন দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় বৃহস্পতিবার দুপুরে বিচারক ওই রায় ঘোষণা করেন। তবে দোষী সাব্যস্ত না হওয়ায় ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি ওমর ফারুককে খালাস দেয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষে গাজীপুর আদালতের পিপি এ্যাডভোকেট মোঃ হারিছ উদ্দিন আহম্মদ এবং আসামি পক্ষে এ্যাডভোকেট মুনীম খান ও এ্যাডভোকেট আলেয়া আক্তার মামলা পরিচালনা করেন।
monarchmart
monarchmart