ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

এশিয়ান গেমস হকি বাছাইয়ে প্রতিপক্ষ আজ হংকং

জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বাংলাদেশ হকি দল

প্রকাশিত: ০৬:৫৫, ১১ মার্চ ২০১৮

জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বাংলাদেশ হকি দল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ জয় দিয়ে শুরু। জয় দিয়ে শেষ। তার মানে এই নয় যে, মাঝে কোন জয় থাকবে না। এশিয়ান গেমস হকির বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে থাইল্যান্ডকে ৫-০ গোলে হারিয়ে শুভসূচনা করেছিল বাংলাদেশ। আজ বাছাইপর্বে দ্বিতীয় ম্যাচ লাল-সবুজদের। যেখানে প্রতিপক্ষ হংকং। ওমানের মাস্কটে সুলতান কাবুস কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় দু’দলের এ ম্যাচটি শুরু হবে। থাইল্যান্ডের মতো এ ম্যাচেও জয়ের প্রত্যাশা বাংলাদেশের। এমন কথাই জানিয়েছেন দলের দুই সদস্য গোলরক্ষক অসীম কুমার দাস এবং ডিফেন্ডার আশরাফুল ইসলাম। তবে কোচ মাহবুব হারুন কিছুটা ভিন্ন সুরে কথা বলেছেন। হংকংয়ের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচের আভাস দিয়েছেন এ কোচ। বাছাইপর্বে বাংলাদেশ ‘এ’ গ্রুপ থেকে লড়ছে। যেখানে থাইল্যান্ড, হংকং ছাড়াও রয়েছে আফগানিস্তানের মতো নবীন দল। এই আফগানদের বিপক্ষেই আগামী ১৩ মার্চ গ্রুপের শেষ ম্যাচ খেলবেন জিমি-চয়নরা। বাংলাদেশের মতো জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে হংকং। প্রথম ম্যাচে র‌্যাঙ্কিংহীন আফগানিস্তানকে ১৯-১ গোলে উড়িয়ে শুরু করেছে সাং কিং, ফেলিক্সরা। বাংলাদেশের বিপক্ষে তাই ফিল্ডে নামার আগে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই রয়েছে দলটি। তবে শক্তি সামর্থ্য, র‌্যাঙ্কিং, অভিজ্ঞতা সব থেকে হংকংয়ের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। হংকংয়ের র‌্যাঙ্কিং যেখানে ৪৫, সেখানে বাংলাদেশের ৩০। তবে র‌্যাঙ্কিং নিয়ে ভাবছেন না বাংলাদেশের কোচ। হংকংয়ের বিপক্ষে ম্যাচটি সামনে রেখে মাহবুব হারুন বলেন, ‘হংকং খুব শক্তিশালী দল। টুর্নামেন্টে যারা খেলতে এসেছে তাদের মধ্যে আমার মনে হয়েছে হংকং বেশ ভাল প্রস্তুতি নিয়ে এসেছে। তাছাড়া প্রথম ম্যাচেই দলটি বড় জয় পেয়েছে।’ ভুল কিছু বলেননি হারুন। এই দলে পিসি স্পেশালিস্ট সাং কিং কান, হো চিং এবং ফেলিক্সিরের মতো খেলোয়াড় রয়েছে। এর মধ্যে সাং ৪ গোল দিয়ে রয়েছেন গোলদাতাদের তালিকায় শীর্ষে। হো চিং ও ফেলিক্স গোল করেছেন ৩টি করে। তাই এই তিনজনের ওপর যে বাড়তি নজর থাকবে হারুন শিষ্যদের সেটা মুখে না বললেও অনুমেয়। থাইল্যান্ডের বিপক্ষে সহজ জয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে বাংলাদেশ। একইভাবে জয়ের প্রত্যাশা হংকংয়ের বিপক্ষেও। এ ব্যাপারে দলটির গোলরক্ষক অসীম কুমার দাস বলেন, ‘থাইল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা ভাল খেলে জয় পেয়েছি। কোচের পরিকল্পনা মতো খেলেছি। একইভাবে হংকংয়ের বিপক্ষেও খেলতে চাই। জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে চাই।’ জয়ের পাশাপাশি গত ম্যাচের ভুলত্রুটিও ওঠে এসেছে দলের আরেক সদস্য আশরাফুল ইসলামের কথায়, ‘থাইল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা অনেকগুলো পিসি পেয়েছি। কিন্তু সেগুলো গোলে পরিণত করতে পারেনি। হংকংয়ের বিপক্ষে এই ভুল করতে চাই না। ভাল খেলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে চাই।’ থাইল্যান্ডের বিপক্ষে পিসি থেকে এসেছে মাত্র একটি গোল। বাকি চারটি ফিল্ড গোল। চার অর্ধেই গোল পেয়েছে জিমিরা। প্রথম গোলটি এসেছে সারোয়ার হোসেনের স্ট্রিক থেকে। বাকি চারটি গোল করেছেন হাসান যুবায়ের নিলয়, মিলন হোসেন, রোমান সরকার এবং মামুনুর রহমান চয়ন। থাইল্যান্ড ম্যাচের মতো আক্রমণাত্মক মেজাজে খেললে হংকংকে যে হারানো অসম্ভব নয় তা আর বলতে।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২