মঙ্গলবার ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

হোলসিম কিনতে আরও একধাপ এগিয়েছে লাফার্জ সুরমা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ হোলসিম কিনতে রেজিস্টার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানি থেকে শেয়ার স্থানান্তর সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ফাইলিংয়ের কাজ সম্পন্ন করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, হোলসিম কেনার জন্য হোল্ডারফিনের শেয়ার বিক্রি এবং ক্রয়ের চুক্তির সংশোধনী অনুসারে তার সহকারী হোলচিন বি.ভি. সঙ্গে ৮৮ হাজার ২৪৩টি শেয়ার হস্তান্তর করার জন্য প্রয়োজানীয় কাগজপত্রসহ শেয়ার ট্রান্সফার সম্পন্ন করা হয়েছে। লাফার্জ হোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেড এবং কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রাজেশ কে সুরানা নামে রেজিস্টার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানি থেকে শেয়ার স্থানান্তর সংক্রান্ত কাগজপত্র কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্ধারণ করে দেয়া ৫০৫ কোটি টাকায় হোলসিম বাংলাদেশের শতভাগ শেয়ার কিনছে লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড। বিশ্বজুড়ে লাফার্জ-হোলসিমের একীভূত হওয়ার অংশ হিসেবে গত ডিসেম্বরে বাংলাদেশে হোলসিমকে কিনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল লাফার্জের পরিচালনা পর্ষদ।

পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্তের পর বিশেষ সাধারণ সভায় (ইজিএম) ১১ কোটি ৭০ লাখ ডলারে ( ডলারের মান ৮০ টাকা ধরে ৯০০ কোটি টাকার বেশি) হোলসিম বাংলাদেশ লিমিটেডের শতভাগ সম্পদ কিনে তা একীভূত করে দেয়ার পরিকল্পনা অনুমোদন করেছিলেন লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেডের শেয়ারহোল্ডাররা। পরে বাংলাদেশ ব্যাংক হোলসিমের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে প্রায় ৬ কোটি ২৫ লাখ ডলার বা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৫০৫ কোটি টাকা। তাতে দুই কোম্পানির মধ্যে নির্ধারিত দামের চেয়ে ৪৩১ কোটি টাকা দাম কমিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কমিয়ে দেয়া এ দামে কোম্পানি দুটির মালিকানা বদল হচ্ছে।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের বেঁধে দেয়া দামে তা বিক্রি নিয়ে তৈরি হয়েছিল নতুন জটিলতা। সব জটিলতার অবসান ঘটিয়ে, অবশেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বেঁধে দেয়া মূল্যেই হোলসিমকে কিনে নিচ্ছে লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট। গত ১৭ সেপ্টেম্বর ৫০৪ কোটি ৭৮ লাখ ১৯ হাজার ৯৪০ টাকায় হোলসিমকে কিনতে সম্মতি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর আগে ২০১৪ সালের এপ্রিলে বৈশ্বিকভাবে লাফার্জ ও হোলসিম একীভূত হওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে। সেই অনুযায়ী, বৈশ্বিকভাবে কোম্পানি দুটির একীভূত কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। ফলে বিশ্বের সিমেন্ট খাতে জায়ান্ট দুই কোম্পানি এক ছাতার নিচে এসে ‘লাফার্জহোলসিম’ হিসেবে যাত্রা শুরু করে। এতে করে দুই কোম্পানি মিলে হয়ে যায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় সিমেন্ট কোম্পানি। বৈশ্বিকভাবে একীভূত হওয়ার পর বাংলাদেশেও কোম্পানি দুটি একীভূতকরণের বিষয়টি সামনে আসে।

কারণ, এ দেশেও দুই কোম্পানির আলাদা কার্যক্রম ছিল। এর মধ্যে লাফার্জ সুরমা বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হলেও হোলসিম তালিকাভুক্ত নয়। তাই বৈশ্বিকভাবে একীভূত হওয়া লাফার্জ হোলসিম গ্রুপ থেকে হোলসিম বাংলাদেশের সব শেয়ার কিনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় লাফার্জ।

শীর্ষ সংবাদ:
স্ক্র্যাপ ও পুরনো জাহাজের দাম বেড়েছে, রডের বাজার অস্থিতিশীল         পার্বত্য চট্টগ্রামের সব ইটভাঁটির কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ         মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো কোন ঘটনা ঘটেনি         তাড়াহুড়া ইসি নিয়োগ আইন টিকে থাকার নীলনক্সা ॥ ফখরুল         দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে দুর্ভোগ সারাবছর         বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমের মুখোমুখি হচ্ছেন সিইসি কেএম নূরুল হুদা         দেশের অর্থনীতিতে গতিসঞ্চারে ভূমিকা রাখতে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান রাষ্ট্রপতির         করোনায় মৃত্যু ১৮, শনাক্ত ১৬ হাজার         করোনাভাইরাস : বাণিজ্যমেলা বন্ধ ও বইমেলা পেছানোর পরামর্শ         টিকার কারণে হাসপাতালে রোগী কম, মৃত্যুও কম : স্বাস্থ্যমন্ত্রী         একনেকে ১০ প্রকল্প অনুমোদন         ‘আমরণ অনশন ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আন্দোলন চলবে’         ডিবির জ্যাকেটে নতুন প্রযুক্তি         ওমিক্রনে শিশুদের ঝুঁকি বাড়ছে         ‘বিএনপি অগণতান্ত্রিক পথে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে’         ভূমধ্যসাগরে নৌকায় হাইপোথার্মিয়ায় ৭ বাংলাদেশির মৃত্যু         ৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা শুরু         ক্রিপ্টো বাজারে ট্রিলিয়ন ডলার ধস         দুর্নীতি মামলায় জিকে শামীমের মা কারাগারে         ‘জাতিসংঘে চিঠি শান্তিরক্ষা মিশনে প্রভাব ফেলবে না’