ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

চট্টগ্রাম আবাহনীকে রুখে দিল আরামবাগ

প্রকাশিত: ০৫:৫২, ২৬ আগস্ট ২০১৭

চট্টগ্রাম আবাহনীকে রুখে দিল আরামবাগ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নাই মামার চেয়ে কানা মামা নিশ্চয়ই অনেক ভাল। আর সেই ভাল কাজটাই শুক্রবার করলো আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলের দিনের প্রথম ম্যাচে তারা গোলশূন্য ড্র করে রুখে দিয়েছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা এবং গত লীগের রানার্সআপধারী চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেডকে। টানা পাঁচ ম্যাচ জেতা বন্দরনগরীর দল চট্টগ্রাম আবাহনীর এটি প্রথম ড্র। তারপরও ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে তারা। পক্ষান্তরে ‘দ্য রাইজিং স্ট্রেন্থ’ খ্যাত আরামবাগেরও এটা সমান ম্যাচে প্রথম ড্র। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান দশম (১২ দলের মধ্যে)। ম্যাচের ৬ মিনিটেই একবার আরামবাগের জালে বল পাঠিয়েছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। তবে ফাউলের কারণে গোল বাতিল হয়েছে। কর্নার থেকে বল পেয়ে বক্সে হেড নেন নাইজিরিয়ান ডিফেন্ডার এ্যালিসন উদোকা। কিন্তু তাদের একজন ফুটবলার ফাউল করায় রেফারি জালাল উদ্দিন গোলটি বাতিল করেন। ৪১ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে সতীর্থের লম্বা ক্রস পেনাল্টি এরিয়ায় পেয়ে দুর্দান্ত হেড নেন চট্টগ্রাম আবাহনীর ওলাদিপো। কিন্তু অল্পের জন্য বল চলে যায় বাইরে। দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণ করে খেলে আবাহনী। কিন্তু তাদের প্রতিটি প্রচেষ্টাই নসাৎ করে দেয় আরামবাগ। ৮১ মিনিটে কাউন্টার এ্যাটাকে যায় আরামবাগ। প্রায় মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে দ্রুতগতিতে প্রতিপক্ষের বক্সে ঢুকে পড়েন বুকোলো ওলালেকান। ডিফেন্ডারদের চাপে বল নিয়ন্ত্রণে নিতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়ে বক্সে পড়ে যান বুকোলো। পরক্ষণে উঠে দাঁড়িয়ে দারুণ ক্রসে বল বাড়িয়ে দেন সতীর্থের উদ্দেশে। পোস্টের খুব কাছে বল পেয়ে হেড নেন সুমন আলী। তবে তার দুর্বল হেডের বল পোস্টে হাল্কাভাবে লেগে ফিরে আসে বক্সে। নিশ্চিত গোলের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয় আরামবাগ। শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দুই দল। ম্যাচ শেষে রেফারির সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে লালকার্ড দেখেন আরামবাগের মিডফিল্ডার হাবিবুর রহমান সোহাগ।