বুধবার ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৫ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নরসিংদীতে রামবুটান চাষে সাফল্যে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে

নরসিংদীতে রামবুটান চাষে সাফল্যে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী ॥ রামবুটান চাষে আগ্রহ বাড়ছে নরসিংদীর কৃষকদের। দেখতে কদম ফুলের মতো হলেও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সুস্বাদু ও জনপ্রিয় রামবুটান ফল লিচুর মত স্বাদে-গন্ধে অতুলনীয়। সম্প্রতি এই ফল চাষে সফলতা পেয়েছে নরসিংদীর শিবপুরের কৃষক জামাল উদ্দিন। তার এ সফলতায় আশা জাগিয়েছে এলাকার অন্যান্য কৃষকদের মনে। অধিক লাভজনক আর নানা পুষ্টিগুণে ভরপুর দৃষ্টিনন্দন এই ফল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন স্থানীয় কৃষকরা। কৃষি বিভাগ বলছে, প্রয়োজনীয় সহায়তা ও দিক নির্দেশনা পেলে আগামী দিনে দেশের কৃষি অর্থনীতিতে নতুনত্ব যোগ করতে পারে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার জনপ্রিয় এ ফল রামবুটান।

নরসিংদীর শিবপুরের কৃষক জামাল উদ্দীন জানান, জীবিকার তাগীদে কাজের সন্ধানে প্রথমে মালয়েশিয়া এবং পরে ব্রুনাই যান কৃষক জামাল উদ্দিন। প্রায় ১৫ বছর পর ২০০৬ সালে দেশে ফেরার সময় এক কেজি রামবুটান ফল নিয়ে আসেন তিনি। সে ফলের বীজগুলো তিনি দেশীয় পদ্ধতিতে রোপণ করেন। পরীক্ষামূলকভাবে তার লটকন বাগানের ভেতরেই ১৭টি রামবুটানের চারা রোপণ করেন তিনি। এর মধ্যে ১০টি চারা মারা যায়। বাকি সাতটি ধীরে ধীরে বেড়ে উঠতে থাকে।

২০১২ সালে প্রথমবারের মতো কিছু ফল আসলেও প্রতি বছর ফলের পরিমান বাড়তে থাকে। চলতি বছর পাঁচটি গাছ থেকে কয়েক লক্ষ টাকার রামবুটান বিক্রি করেছেন বলে জানান তিনি। বাজারে প্রতি কেজি রামবুটান বিক্রি হচ্ছে ৮শত টাকা থেকে ১হাজার টাকা পর্যন্ত। জামাল উদ্দিনের সফলতায় ইতোমধ্যে আনন্দিত এলাকার অন্যান্য চাষীরা। তারাও আগ্রহ প্রকাশ ও চাষ শুরু করছেন বিদেশী ফল রামবুটান। এছাড়া এখানকার মাটি ও আবহাওয়া রামবুটান চাষে উপযোগী হওয়ায় এই অঞ্চলে রামবুটান চাষে বিপ্লব ঘটানো সম্ভব বলে মনে করছেন কৃষি বিভাগের মাঠ কর্মীরা।

স্থানীয় কৃষি বিভাগ জানান, গুণগত মান সম্মত চারা ও প্রযুক্তিগত চাষ পদ্ধতি কৃষকদের মাঝে দেয়া গেলে লটকনের পাশাপাশি রামবুটান চাষে বিপ্লব ঘটানো সম্ভব। রামবুটান চাষে স্বয়ংসম্পূর্ন হতে পারলে দেশের বাইরে থেকে রামবুটান আমদানী করতে হবে না।

নরসিংদী কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মোঃ লতাফত হোসেন জানান, এই অঞ্চলের রামবুটান নতুন সম্ভাবনার দুয়ার খুলে লটকনের পর নরসিংদীর রামবুটান রাঙ্গাবে দেশবাসীকে এমনটাই আশাবাদী সংশ্লিষ্টরা।

শীর্ষ সংবাদ:
মাঙ্গিপক্স ভাইরাসের বিস্তার ঠেকানো সম্ভব ॥ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা         ধামরাইয়ে অগ্নিকাণ্ডে ১২টি ঘর পুড়ে ছাই         পদ্মা সেতু হওয়ায় বিএনপির বুকে বড় জ্বালা ॥ কাদের         সাড়ে তিন কোটি টাকা আত্মসাত করেন চক্রটি         শাহরাস্তিতে ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হোটেলে, নিহত ১         নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছে কিন্তু আমার আয় বাড়েনি         সংযুক্ত আরব আমিরাতেও প্রথম মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত রোগী শনাক্ত         জো বাইডেন এশিয়া ছাড়তেই তিনটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া         বাগেরহাটে ট্রলির ধাক্কায় নারীসহ নিহত ৩         প্রচন্ড বৃষ্টিতে মিরপুর টেস্টের দ্বিতীয় সেশনের খেলা শুরু হতে পারেনি         যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের স্কুলে বন্দুকধারীদের গুলিতে ১৯ শিশুসহ ২১ জন নিহত         ঢাকায় সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী         মানবতা-সাম্য-দ্রোহের কবি নজরুল ॥ প্রধানমন্ত্রী         কাজী নজরুলের সমাধিতে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের শ্রদ্ধা         হালদায় আবারো মৃত ডলফিন         ইভিএম বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকে ইসি