শুক্রবার ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

পায়রা নদীতে কুমির আতঙ্ক মাছ শিকার বন্ধ

পায়রা নদীতে কুমির আতঙ্ক মাছ শিকার বন্ধ

নিজস্ব সংবাদদাতা, আমতলী, বরগুনা ॥ বরগুনার তালতলীতে আমতলী উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত পায়রা নদীতে চারটি কুমির দেখতে পেয়েছে স্থানীয় এবং জেলেরা। ভয়ে মানুষ নদীর তীরে যাচ্ছে না। জেলেরা মাছ শিকার বন্ধ করে দিয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার পায়রা নদীর গাবতলী এলাকায় গত শনিবার জেলে আলমগীর শিকদার নদীতে জাল নিয়ে মাছ শিকার করতে যায়। এ সময় একটি কুমির জেলে নৌকার হামলা করে। পরে জেলেরা জাল ফেলে নৌকা নিয়ে কিনারে আসে। এ ঘটনা জেলেদের মাঝে ছড়িয়ে পরলে তারা এ ঘটনাকে নিছক মিথ্যা বলে উড়িয়ে দেয়।

ওইদিন দুপুরে গাবতলী আবাসনে বসবাসরত নাসিমা, রাব্বি নদীতে পানি আনতে গেলে তারা চারটি কুমির ফাসমান অবস্থায় দেখতে পায়। পরে নদী থেকে পানি না তুলে ফিরে আসে। রবিবার মৌপাড়ার জেলেরা নদীতে জাল ফেলতে যায়। ওই জেলেদের মধ্যে একটি নৌকার আবারো হামলা করে। কিন্তু অল্পের জন্য জেলেরা রক্ষা পায়। এ খবর জেলে ও সাধারণ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পরে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চন্দনতলা গ্রামের মোস্তফা বয়াতির ছেলে হেলাল বয়াতি জাল নিয়ে নদীতে রওয়ানা দেয়। বগীর ব্লক সংলগ্ন পায়রা নদীর কিনারে গেলেই ফাসমান কুমির দেখতে পায়। পরে জাল নৌকা ফেলে চলে আসে এবং স্থানীয় লোকজন খবর দেয়। এ খবর পেয়ে শতাধিক মানুষ নদীর পাড়ে ছুটে এসে ঘটনা প্রত্যক্ষ করে। কুমিরের ভয়ে পায়রা নদীতে জেলেরা মাছ শিকার করছে না।

বর্তমানে মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে। ইউপি সদস্য মোঃ মজিবুর রহমান বিশ্বাস ও মৌপাড়া গ্রামের ইসহাক হাওলাদার বলেন বঙ্গোপসাগরের মোহনা শাখা পায়রা নদীর জয়ালভাঙ্গা, চন্দনতলা, বগীর বাজার, মৌপাড়া, গাবতলী, ও চরপাড়ার ১০ কিলোমিটার পর্যন্ত নদীতে বুধবার সকাল থেকে কুমির আতঙ্কে জেলেরা মাছ ধরা বন্ধ করে দিয়েছে। মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী আলমগীর সিকদার জানান শনিবার সকালে মাছ শিকার করতে জাল নৌকা নিয়ে নদীতে যাই। জাল নদীতে ফেলার মুহুর্তে একটি কুমির নৌকায় হামলা করে। কুমির দেখে জাল না ফেলে কিনারে ফিরে এসে মানুষকে জানাই।

গাবতলী আবাসনে বসবাসরত প্রত্যক্ষদর্শী মোঃ ইউসুফ মিয়ার স্ত্রী নাসিমা বেগম ও ভাগিনা রাব্বি জানান নদীতে পানি আনতে গিয়ে কুমির ভাসমান অবস্থায় দেখে পানি না নিয়ে ফিরে আসি।

চন্দনতলা গ্রামের মোস্তফা বয়াতির ছেলে হেলাল বয়াতি বলেন মাছ শিকারের জন্য নদীর কিনারে গেলে কুমির ভাসতে দেখি। পরে মানুষকে খবর দিলে শত শত লোক কুমির ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায়।

তালতলী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা শামীম রেজা জানান নদীতে কুমির এসেছে এ কথা শুনেছি। এখনো দেখি নাই। ধারনা করা হচ্ছে বঙ্গোপসাগরের গভীর সমুদ্র থেকে দলছুট হয়ে কুমির শাখা নদীতে প্রবেশ করেছে। তিনি আরো জানান কুমির না মারা জন্য জেলেদের বলা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
অবৈধ ক্লিনিকের দৌরাত্ম্য ॥ ভুল চিকিৎসায় প্রতিনিয়ত মৃত্যু         ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উন্নত জীবন নিশ্চিত করতে চাই         জঙ্গী নেতা আবদুল হাই যেভাবে ১৭ বছর আত্মগোপনে ছিলেন         জামিনে মুক্ত দুর্ধর্ষ অপরাধীদের ওপর চলবে নজরদারি         পাচার করা অর্থ ফিরিয়ে আনলে সাধারণ ক্ষমা ॥ অর্থমন্ত্রী         সিরাজগঞ্জে ট্রাক-লেগুনা সংঘর্ষ ॥ নাটোরের ৫ কৃষি শ্রমিক নিহত         হজের খরচ বাড়ল ৫৯ হাজার টাকা         হার ঠেকানোর চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের         বিনিয়োগ বাড়াতে নিরবচ্ছিন্ন সেবা দিচ্ছে বিডা         ফের ঢাবি ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ         হাজার কোটি টাকা পাচার হওয়ার কারণেই বিএনপির গায়ে জ্বালা         সিলেটে বন্যায় প্রাথমিক ক্ষতি হাজার কোটি টাকা         বিএনপি ক্ষমতায় যেতে অন্ধকার চোরাগলি খুঁজছে ॥ কাদের         ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের ঋণ মওকুফের দাবি         ছাত্রলীগ-ছাত্রদল ব্যাপক সংঘর্ষে খুলনা নগরী রণক্ষেত্র ॥ আহত অর্ধশতাধিক         বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিকাশ অনেক উন্নয়নশীল দেশের জন্য উদাহরণ         বাংলাদেশে আমরা জঙ্গি দমন করেছি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনা : ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত ২৮         ট্যাক্স দিয়ে বিদেশে পাচার টাকা দেশে আনা যাবে : অর্থমন্ত্রী