ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৯ আশ্বিন ১৪২৯

বয়স বাধা নয়

প্রকাশিত: ০৫:৫০, ৩০ নভেম্বর ২০১৬

বয়স বাধা নয়

বয়স তার ৮০ বছর। এরপরও তার পেশী মজবুত। ফ্যাশন মডেল জগতে রয়েছে তার চাহিদা। ওয়াং দেশুন ২০১৫ সালে চায়না ফ্যাশন উইকের সময় ৩০ সেকেন্ডের জন্য খালি বুক দেখান। প্রথমবার তিনি রানওয়েতে হাঁটেন এবং দর্শকদের ব্যাপক নজর কাড়েন। তিনি চীনে রাতারাতি ইন্টারনেট সেনসেশন বনে যান। অনেকে তাকে ‘চায়না’স হটেস্ট গ্র্যান্ডপা’ ও ‘ওল্ড ফ্রেশ মিট’ বলে অভিহিত করেন। চীনে যুবক টিভি তারকাদের ‘লিটল ফ্রেশ মিট’ বলা হয়। সেক্ষেত্রে ইন্টারনেটে ওয়াং দেশুনকে বলা হলো ওল্ড ফ্রেশ মিট। চীনের শীর্ষ ফ্যাশন ডিজাইনার হু শেগুয়াং চায়না ফ্যাশন উইকের জন্য ক্যাটওয়াকের পরিকল্পনা করছিলেন। তখন তার মাথায় এমন বৃদ্ধের কথা ঢোকেনি। কিন্তু তিনি যখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওয়াংয়ের ছবি দেখলেন তখন তার পরিকল্পনায় নয়া মাত্রা যোগ হয়। হু জিজ্ঞাসা করেন, কে এই বৃদ্ধ, যাকে খুবই প্রাণবন্ত মনে হচ্ছে। এক সুরকার বলেন, ‘তিনি আমার বাবা।’ এরপরই ওয়াং দেশুনের সঙ্গে ডিজাইনার হুয়ের পরিচয় হয় এবং তাকে ক্যাটওয়াকে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়। বাকি দারুণ উত্থানের ইতিহাস। ওয়াং ১৯৩৬ সালে চীনের শেনিয়াং নগরীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মুকাভিনয় করতেন। ঘটা করেই তিনি মার্শাল আর্ট সিনেমায় সুযোগ পান এবং হলিউডের বেশ কয়েকটি ছবিতেও কাজ করেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘ফরবিডেন কিংডম’। তার অভিনয় জীবনের জন্য শরীর ঠিক রাখতে ৫০ বছর বয়সে তিনি জিমে যেতে শুরু করেন। সাত বছর পর তার শরীর হয় আকর্ষণীয় ও আরও সুঠাম। সম্প্রতি ওয়াং সিএনএনকে বলেন, ‘লোকেরা এই ভেবে বিস্মিত যে, আমার মতো একজন বৃদ্ধের এত সুন্দর পেশী থাকতে পারে।’ তারা আরও চায়, তিনি যেন কখনও ঝিমিয়ে না পড়েন। ওয়াং বলেন, তিনি ৩০ বছর ধরে একদিনের জন্যও তার প্রশিক্ষণে বিরতি দেননি। বিশেষ করে প্রতিদিনের সাঁতার কাটার রুটিনে তার হেরফের হয় না। ওয়াংয়ের মতে, বয়স কোন বাধা নয়। ৬৫ বছর বয়সে তিনি তার অভিনয়ের জন্য মাত্র এক মাসে ঘোড়া চালানো শেখেন। ৭৮ বছর বয়সে তিনি মোটরসাইকেল চালানো শেখেন। -সিএনএন