ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ব্রিকস-বিমসটেক শীর্ষে মোদি ও পুতিনের সঙ্গে হাসিনার বৈঠক

প্রকাশিত: ০৫:১৫, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬

ব্রিকস-বিমসটেক শীর্ষে মোদি ও পুতিনের সঙ্গে হাসিনার বৈঠক

কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বৈঠকের প্রস্তুতি চলছে। আগামী ১৫-১৬ অক্টোবরে ভারতে ব্রিকস-বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেয়ার সময় এই দুই শীর্ষ নেতার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর এই বৈঠক হবে বলে আশা করা হচ্ছে। অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য ইতোমধ্যেই ভারতের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ভারতের গোয়ায় আগামী ১৫-১৬ অক্টোবর ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার জোট ব্রিকস। এর বর্তমান চেয়ারম্যান ভারত। অন্যদিকে দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সাত দেশের কারিগরি ও অর্থনৈতিক জোট বিমসটেকের সদস্য বাংলাদেশ। বিমসটেকের দেশগুলো Ñভুটান, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মিয়ানমার ও থাইল্যান্ড। ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সম্মেলনে যোগ দেবেন বলে আশা করছে দেশটি। তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ পাওয়ার পর থেকেই শেখ হাসিনার যোগদানের বিষয়ে প্রস্তুতি নিচ্ছে ঢাকা। ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলনে যোগ দেয়ার আগেই আগামী ১৪ অক্টোবর চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং ঢাকায় আসছেন। চীনের প্রেসিডেন্ট ঢাকায় দুই দিন সফর শেষে ভারতে ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলনে যোগ দেবেন। সে কারণে চীনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সেখানে প্রধানমন্ত্রীর আর দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের সম্ভাবনা নেই। তবে সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমারও একটি সৌজন্য বৈঠক হতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলনে যোগ দেয়ার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সম্মেলনের শেষ দিন ১৬ অক্টোবর দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বৈঠকের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বৈঠকে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নির্মূলে করণীয় বিষয়ে পারস্পরিক আলোচনা হতে পারে। জঙ্গীবাদ মোকাবেলার পাশাপাশি উন্নয়নের দিকে নজর দুই দেশেরই। বাংলাদেশে ভারতের বিনিয়োগ বাড়ানোর দাবি দীর্ঘদিনের। এ নিয়েও আলোচনা হবে। এছাড়া দ্বিপক্ষীয় অসম্পাদিত চুক্তি দ্রুত সম্পাদন নিয়ে কথা হবে দুই প্রধানমন্ত্রীর। গত বছর জুন মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের সময় সীমান্ত চুক্তি হয়েছিল। এই চুক্তির বাস্তবায়ন প্রক্রিয়াও দ্রুতগতিতে চলছে। দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে চুক্তির অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে। এছাড়া সীমান্ত চুক্তির পরে বাংলাদেশের নজর রয়েছে তিস্তা চুক্তির বিষয়ে। বাংলাদেশ এখন তিস্তা চুক্তিকেই প্রাধান্য দিচ্ছে। দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে আয়োজিত বৈঠকে তিস্তা চুক্তির বিষয়টি আবারও আলোচনায় আসতে পারে। এদিকে ঢাকার সঙ্গে মস্কোর দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক ধীরে ধীরে জোরালো হচ্ছে। বিশেষ করে রাশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের রাজনৈতিক ও সামরিক সহযোগিতা বেড়েছে। এছাড়া পরমাণু বিদ্যুত প্রযুক্তিতে রাশিয়া বাংলাদেশকে সহযোগিতা করে আসছে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে রাশিয়া সফরে গিয়েছিলেন। সে সময় বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে নয়টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হয়েছিল। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুতিনকে ঢাকা সফরের জন্য আমন্ত্রণও জানিয়েছিলেন। পুতিনের ঢাকা সফরের বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকবার আলোচনাও হয়েছে। তারপর থেকে তিন বছর পেরিয়ে গেলেও সময় ও সুযোগের কারণে পুতিন এখনও ঢাকায় আসতে পারেননি। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রিকস-বিমসটেক সম্মেলনে সাইড লাইন বৈঠকে পুতিনের সঙ্গে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বিষয়ে আলোচনা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। প্রাকৃতিক সম্পদ ও মানবসম্পদের যথাযথ ব্যবহারের ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহায়তা বাড়াতে ১৯৯৭ সালের ৬ জুন বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা ও থাইল্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন (বিসটেক) নামে নতুন উপ-আঞ্চলিক জোট গঠন হয়। পরে মিয়ানমার, নেপাল ও ভুটান এতে যোগ দিলে ২০০৪ সালে ব্যাংককে অনুষ্ঠিত শীর্ষ সম্মেলনে নাম পরিবর্তন করে বিমসটেক করা হয়। ১৯৯৭ সালে সহযোগিতার ছয়টি ক্ষেত্র নিয়ে যাত্রা শুরু হলেও পরবর্তীতে আরও আটটি নতুন ক্ষেত্র যোগ হওয়ায় বিমসটেক এখন উন্নয়ন এবং অভিন্ন স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ১৪টি খাতের ওপর জোর দিচ্ছে। খাতগুলো হলো বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, প্রযুক্তি, জ্বালানি, পরিবহন ও যোগাযোগ, পর্যটন, মৎস্য, কৃষি, সাংস্কৃতিক সহযোগিতা, পরিবেশ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, জনস্বাস্থ্য, জনগণের মধ্যে যোগাযোগ, দারিদ্র্য দূরীকরণ, সন্ত্রাসবাদ ও আঞ্চলিক অপরাধ দমন এবং জলবায়ু পরিবর্তন। ২০১৪ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকায় বিমসটেক সচিবালয় উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অপরদিকে ভারতের গোয়ায় এবার আয়োজিত ব্রিকসের অষ্টম শীর্ষ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। তবে ব্রিকস ও বিমসটেকের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর লক্ষ্যে দুই জোটের সদস্য দেশগুলো যৌথভাবে এই সম্মেলনে অংশ নেবে।
monarchmart
monarchmart

শীর্ষ সংবাদ:

সব রেকর্ড ভেঙে দুইদিনে পাঠানের আয় ১২৭ কোটি!
শীতের তীব্রতা কমায় বোরো ধান লাগাতে ব্যস্ত চুয়াডাঙ্গার কৃষকরা
নেপালের আসিফ পেলেন আইসিসির পুরস্কার, কৃতিত্ব কী তার!
পাকিস্তানে ২৫৫ রুপির বিপরীতে ১ ডলার
আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র বিশ্বাস করে, সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন
বিদ্যুতের দাম প্রতি মাসেই সমন্বয়, নিরবিচ্ছিন্ন গ্যাস দেয়ার চেষ্টা
মির্জা ফখরুল কি আল্লাহর ফেরেশতা, প্রশ্ন কাদেরের
মাশরাফির সিলেটকে ৬ উইকেটে হারাল রংপুর
বিএনপি শুধু মিথ্যা তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে: নানক
মার্কিন অভিযানে সোমালিয়ায় আইএস নেতা নিহত
দম ফুরিয়ে গেছে, তাই বিএনপির নীরব পদযাত্রা কর্মসূচি: তথ্যমন্ত্রী
রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের কয়লা পরীক্ষার মেশিন চুরি
খাদ্যশস্যের দিক থেকে বাংলাদেশ এখন স্বয়ংসম্পূর্ণ