বৃহস্পতিবার ৭ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষে ছাত্র নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, নেত্রকোনা, ২৬ এপ্রিল ॥ কেন্দুয়া উপজেলার গড়াডোবা ইউনিয়নের চন্দলাড়া গ্রামে সোমবার রাতে সংঘর্ষে ইকবাল হোসেন খাঁ (১৪) নামে এক স্কুলছাত্র নিহত হয়েছে। নিহত ইকবাল ওই গ্রামের সন্তোষ খাঁর ছেলে এবং রওশন ইজদানী একাডেমির নবম শ্রেণীর ছাত্র। জানা গেছে, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চন্দলাড়া গ্রামের সন্তোষ খাঁ ও হাসিম উদ্দিন মোড়লের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। সোমবার সন্তোষ খাঁর একটি গরু হাসিম উদ্দিন মোড়লের ক্ষেতের ধান খেয়ে ফেললে প্রথমে দু’পক্ষের মধ্যে বাগ্বিত-া হয়। পরে এরই জের ধরে রাত ন’টার দিকে উভয়পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে ইকবাল হোসেন মারাত্মক আহত হয়। ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়।

শরীয়তপুরে ৩০ বাড়ি ভাংচুর

নিজস্ব সংবাদদাতা শরীয়তপুর থেকে জানান, থামছে না নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা। সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকদের নৌকা মার্কার পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবার সকালে আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের চর সিঙ্গারিয়া ও তুলাতলা এলাকায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী বিজয়ী প্রার্থী আনোয়ার সোসেন হাওলাদারের সমর্থকরা হামলা চালিয়ে নৌকা মার্কার পরাজিত প্রার্থী তাসলিমা বেগমের সমর্থকদের ৩টি দোকানসহ অন্তত ৩০ বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করেছে।

সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে চর সিঙ্গারিয়া গ্রামের আয়নাল বেপারীর ২টি ঘর, এলেম মোল্লার একটি ঘর, দিলু তালুকদারের তিনটি ঘর, নুরুল আমীনের দোকানঘর, সিরাজ বেপারী, রাজ্জাক সিকদার, আলিম উদ্দীন সিকদার এবং সেরাজুল সিকদারের ১টি করে ঘর, রেজাউল সিকদারের চায়ের দোকানঘরসহ ৩০টি বসতঘর ভাংচুর ও এসব ঘরের মালামাল লুট করে। এদিকে হামলার ভয়ে নৌকা মার্কার সমর্থক পুরুষরা এলাকা ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।

মাগুরায় আহত ১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা মাগুরা থেকে জানান, শ্রীপুর উপজেলার কচুয়া গ্রামে সোমবার রাত ১২টার দিকে দুই মেম্বর প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৫ জনকে মাগুরা সদর হাসপাতালে ও ১০ জনকে দারিয়াপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, গত ২৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত শ্রীপুর ইউপির নির্বাচনে ৯ নং ওয়ার্ডে কচুয়া গ্রামের নাজির হোসেন মেম্বর নির্বাচিত হন। এ ঘটনায় পরাজিত প্রার্থী সুমন হোসেন নাজিরের সমর্থদের দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে সুমন তার সমর্থকদের নিয়ে নাজিরের সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে সংষর্ষে ১৫ জন আহত হয়।

এমপি-ইউএনও’র বিরুদ্ধে ভোট কারসাজির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে জানান, ফটিকছড়ি আসনের এমপি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ভোট কারসাজির অভিযোগ তুলে ৩টি ইউনিয়ন পরিষদে পুনঃ নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের তিন চেয়ারম্যান প্রার্থী। যে তিন ইউনিয়নের নির্বাচনে কারসাজি হয়েছে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে হারুয়ালছড়ি, পাইন্দং ও কাঞ্চননগর। মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এ দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পাইন্দং ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহ আলম সিকদার। এ সময় অপর দুই প্রার্থী হারুয়ালছড়ির জুলফিকার আলী ভুট্টো ও কাঞ্চননগরের দিদারুল আলম উপস্থিত ছিলেন।

শাহ আলম জানান, গত ২৩ এপ্রিল ফটিকছড়ি উপজেলায় অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র লেবাসধারী জামায়াত ও বিএনপির তিন প্রার্থীর কাছে বড় ধরনের আর্থিক সুবিধা নিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভা-ারী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম তাদের জয়ী করতে প্রশাসনকে ব্যবহার করেছেন। নজিবুল বশরের আশ্রয়ে ও প্রশাসনের ছত্রছায়ায় কারসাজির মাধ্যমে স্বতন্ত্র লেবাসধারী এই তিন প্রার্থী জয়যুক্ত হয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা ভোট চুরির এ নির্বাচন মানি না। সরকারের কাছে এই তিন ইউনিয়নে ঘোষিত বেসরকারী ফল বাতিল করে পুনঃ নির্বাচন দাবি করছি।

ভোট পুনঃগণনার দাবি

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী থেকে জানান, সদরের রামনগর ইউনিয়ন পরিষদে তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ফল কারচুপির অভিযোগ এনে ভোট পুনঃগণনার দাবি জানালেন ইউনিয়নের পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ওবায়দুল ইসলাম। মঙ্গলবার দুপুরে ইউনিয়নের বাহালীপাড়া চৌধুরীবাজার দাখিল মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ওই দাবি জানান তিনি। একই দাবিতে সকালে তিনি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন। গত ২৩ এপ্রিল ইউনিয়নটিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

মাদারীপুরে আহত ১০

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর থেকে জানান, নির্বাচনী সহিংসতায় মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া, পাল্টাধাওয়া, সংঘর্ষ ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় দুই গ্রুপের ১০জন আহত হয়েছে। এ ঘটনা ঘটে সদর উপজেলার ঘটমাঝি ইউনিয়নের ছয়না গ্রামে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশ ৬জনকে আটক করে।

ঠাকুরগাঁওয়ে আহত অর্ধশতাধিক

নিজস্ব সংবাদদাতা ঠাকুরগাঁও থেরক জানান, পীরগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পরবর্তী সহিংসতায় আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির কর্মীদের মধ্যে এক সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ আহত হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা আড়াইটার দিকে হাজীপুর ইউনিয়নের শাটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
২০২৪ সালেও নির্বাচনী জুটি হবেন কমলা-বাইডেন         ৩৩ বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাল জার্মানি         ‘সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই’         এক সপ্তাহে করোনা রোগী বেড়েছে ২২৮ শতাংশ         ‘স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে শহীদ আসাদ একটি অমর নাম’         ‘শহীদ আসাদের আত্মত্যাগ সবসময় প্রেরণা জোগাবে’         বিধিনিষেধে তোয়াক্কা নেই ॥ করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে         অগ্রযাত্রা কেউ থামিয়ে দিতে পারবে না         চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা         ঢাকা, রাঙ্গামাটির পর ঝুঁকিপূর্ণ আরও ১০ জেলা         বিএনপি-জামায়াতের লবিস্ট নিয়োগ তদন্তে গোয়েন্দারা         লাভজনক থেকে রুগ্ন ॥ গাজী ওয়্যারসের আধুনিকায়ন প্রকল্পে ২০ কোটি টাকা লোপাট         বিএনপি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে ॥ কাদের         ওমক্রিন প্রতেিরাধে ডসিদিরে র্সবােচ্চ সর্তক থাকার নর্দিশে         শিমুকে সরিয়ে দেয়ার সুযোগ খুঁজতে থাকে ঘাতক স্বামী         দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন চলবে         কেটে গেছে শৈত্যপ্রবাহ তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টি হতে পারে         অস্ট্রেলিয়ায় চাকরির নামে বিপুল অর্থ আত্মসাত         খাস জমির অর্ধেক উদ্ধার করে ১০ লাখ ভূমিহীনকে আশ্রয় দেয়া সম্ভব