শুক্রবার ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ভারতে এগোতে চেয়েছিল জেএমবি

শংকর কুমার দে ॥ বাংলাদেশের নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের খাগড়াগড়ে ঘাঁটি গেড়েছিল জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)। পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলা থেকে শুরু করে নদিয়া, মুর্শিদাবাদ ও বীরভূমে খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে জঙ্গী সংগঠনটি বিস্তৃত করা ছিল তাদের পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত। সোমবার কলকাতার মুখ্য বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে পেশ করা খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলার প্রায় ৩৫০ পাতার অতিরিক্ত চার্জশীটে এ ধরনের তথ্যের কথা উল্লেখ করেছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ।

জাতীয় তদন্ত সংস্থা এনআইএ’র অতিরিক্ত চার্জশীটে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশ জেএমবি’র মূল নিশানা হলেও ভারতে শাখা-প্রশাখা বিস্তার করে নিজেদের পরিকল্পনায় আরও এগোতে চেয়েছিল জেএমবি। এজন্য পশ্চিমবঙ্গে বহু জঙ্গী ডেরা ও বর্ধমানের খাগড়াগড়সহ একাধিক জায়গায় বোমা-বিস্ফোরকের কারখানা তৈরি করেছিল জেএমবি। বাংলাদেশে সাফল্য মিললে জেএমবি ধীরে ধীরে ভারতেও সে লক্ষ্যে এগোতো বলে খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলার দ্বিতীয় সাপ্লিমেন্টারি (অতিরিক্ত) চার্জশীটে ইঙ্গিত দিয়েছে এনআইএ। বর্ধমানের খাগড়াগড় বোমা বিস্ফোরণের মামালায় দ্বিতীয় অতিরিক্ত চার্জশীটই ফাইনাল চার্জশীট। এর পর বিচার প্রক্রিয়া যত শীঘ্র সম্ভব শুরু করে দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এই মামলায় এখনও পর্যন্ত ৬৬ হাজার ৭৫৩ পাতার নথি আদালতে জমা দিয়েছে এনআইএ।

গোয়েন্দাদের দাবি, যেমন- নুরুল হক ম-ল ওরফে নইম, যাকে চলতি বছরের ১৮ জুন হাওড়া স্টেশনের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয়। ধরা পড়ার আগে নইম জেএমবি’র চাঁই হাতকাটা নাসিরুল্লাহ, কওসর, কদর কাজীদের সঙ্গে ফোনে কথা চালিয়ে গিয়েছে বলে দাবি গোয়েন্দাদের। তাঁরা নইমের দুটি ঠিকানা পেয়েছেন- একটি মুর্শিদাবাদের ডোমকল, অন্যটি বীরভূমের বোলপুরের মুলুক গ্রামে। কিন্তু গোয়েন্দাদের একাংশের সন্দেহ, নইম আসলে বাংলাদেশেরই নাগরিক। এনআইএ’র জমা দেয়া দ্বিতীয় অতিরিক্ত চার্জশীটে একজনের নাম রয়েছে আর সেই একজনই হলো নুরুল হক ম-ল ওরফে নইম। এই নিয়ে খাগড়াগড় বিস্ফোরণ মামলায় ২৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট পেশ করল এনআইএ।

শীর্ষ সংবাদ:
‘হাসিনা : আ ডটারস টেল’ আজ ৯ টিভি চ্যানেলে         ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থে যেন জাতীয় শোক দিবসের পরিবেশ নষ্ট না হয় ॥ কাদের         যেখানে সেখানে শিল্প কারখানা নয় ॥ অর্থমন্ত্রী         ৮ বিভাগে আটটি ১৫ তলা ক্যান্সার হাসপাতাল হবে ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী         চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধে ফের ভয়াবহ ভাঙ্গন         পর্বতারোহী রেশমাকে চাপা দেয়া সেই মাইক্রোর সন্ধান পায়নি পুলিশ         সাবেক প্রধান বিচারপতি সিনহাসহ ১১ জনের বিচার শুরু         বন্যার পানি কমলেও নদী ভাঙ্গনে বিপাকে মানুষ         বিশ্বের শীর্ষ ছয় জঙ্গী নেতার মাথার দাম কোটি টাকা         সিলেটে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে মা-মেয়েসহ পাঁচজন নিহত         মেহেরপুর-২ আসনের সাংসদসহ ১০ জন করোনা আক্রান্ত         আওয়ামী লীগের মূল্যবোধ অক্ষুণ্ণ রাখতে হবে : সেতুমন্ত্রী         মোংলা বন্দরে টেনিস বলের পরিবর্তে ৪ কন্টেইনারে আমদানি নিষিদ্ধ আফিম         জাতীয় শোকদিবস উপলক্ষে ধানমন্ডি-বনানীতে আবাসিক হোটেল বন্ধ         বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি করতে আগ্রহী আলজেরিয়া : বাণিজ্যমন্ত্রী         ‘১লা অক্টোবরের মধ্যে সব সংস্থাকে সিটি কর্পোরেশনের সাথে সমন্বয়ে আসতে হবে’         শোধরানো হবে প্রকল্পের অস্বাভাবিক খরচ         ঢাকায় ডি-এইট সম্মেলন জানুয়ারিতে         মালিকরাও প্রত্যাহার চান বাসের বর্ধিত ভাড়া         ‘ট্রেনের টিকিট হস্তান্তর করলে তিন মাসের জেল’        
//--BID Records