ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

আইএমএফকে চিঠি দেয়া হয়েছে ॥ অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৫:৫৫, ২৩ জুলাই ২০১৫

আইএমএফকে চিঠি দেয়া হয়েছে ॥ অর্থমন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বিদেশি অডিট ফার্ম দিয়ে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) সমুদয় হিসাব অডিট করানোর বিষয়ে সরকারের সম্মতি জানিয়ে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলকে (আইএমএফ) চিঠি দেয়া হয়েছে। বুধবার সকালে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত একথা জানিয়েছেন। বুধবারই আইএমএফের বোর্ড মিটিংয়ে ‘বর্ধিত ঋণ সহায়তা’ (ইসিএফ) চুক্তির সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা। সংস্থার সঙ্গে ইসিএফ চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা আগামী ৩১ জুলাই। ইসিএফ ঋণের শেষ দুই কিস্তির অর্থ নেয়ার সিদ্ধান্তের কথা আইএমএফকে জানানো হয়েছে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের অনাপত্তির কথা ইতোমধ্যেই চিঠি দিয়ে আইএমএফকে জানানো হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘ঈদের আগে ‘বর্ধিত ঋণ সহায়তা’র (ইসিএফ) শেষ দুই কিস্তির অর্থ নেয়া হবে না যখন বলেছিলাম তার পরের দিনই আইএমএফ- কে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেয়া হয়েছিল। এর পাশাপাশি বিপিসির সমূদয় হিসাব বিদেশী অডিট ফার্ম দিয়ে অডিট করানোর বিষয়ে সরকারের সম্মতির কথা আইএমএফ-কে জানিয়ে দেয়া হয়েছে।’ ইসিএফের শেষ দুই কিস্তির অর্থ ২৮ কোটি ডলার ছাড়ের ক্ষেত্রে বিপিসি’র সমুদয় হিসাব কোন বিদেশী কোম্পানি দিয়ে অডিট করানোর শর্ত দিয়েছিল আইএমএফ। এ বিষয়ে ঈদের আগে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছিলেন যে, ‘এ শর্ত মেনে আইএমএফ-এর ‘ইসিএফ’ ঋণের শেষ দুই কিস্তির অর্থ নেয়া হবে না।’ কিন্তু ঈদের পর প্রথম কার্যদিবসে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আইএমএফ-এর কাছ থেকে ইসিএফের শেষ দুই কিস্তির ২৮ কোটি ডলার বাংলাদেশ নিচ্ছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যে এ অর্থ পাওয়া যাবে।’ ইসিএফ সহায়তা গ্রহণের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী তখন বলেছিলেন, ‘বিদেশী অডিট কোম্পানি দিয়ে বিপিসির সমুদয় হিসাব অডিট করার ক্ষেত্রে আইনগত কোন বাধা নেই। এ কারণে সরকার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছে।’ পার্বত্য পরিষদের প্রতিনিধি দলের সাক্ষাত বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, তাদের তো অনেক অভিযোগ। নানা কারণে তাদের কিছু বিষয় বাস্তবায়িত হয়নি, তাদের ক্ষমতায়ন হয়নি। বৈঠকে এসব বিষয় তুলে ধরেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। তাদের অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখা হবে।
monarchmart
monarchmart